হাসি ও গম্ভীর মুখের পার্থক্য বুঝতে পারে ছাগল!

আমরা কথায় কথায় কাউকে না কাউকে ছাগল বলে ফেলি। ছাগল বলা হয় সাধারণত তুচ্ছার্থে; কাউকে বোকাসোকা বোঝাতে। কিন্তু জানেন কি বাস্তবে এই ছাগলই অনেক বুদ্ধিমান? যে ছাগলকে আপনি বোকাসোকা ভাবেন সেই ছাগলই মানুষের হাসি ও গম্ভীর মুখের ছবি আলাদাভাবে চিনতে পারে? বুধবার এমন এক গবেষণা প্রতিবেদনে এটাই দাবি করা হয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা এএপি’র।

ইউরোপ ও ব্রাজিলের গবেষকরা জানান, ২০টি গৃহপালিত ছাগলকে একই ব্যক্তির হাসি ও গম্ভীর মুখের দুটি ছবি দেখানো হলে তারা হাসি মুখের ছবিটিকেই মুখ দিয়ে স্পর্শ করে।

সহকারি গবেষক লন্ডনের কুইন মেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিস্টিয়ান নওরোত বলেন, ‘ছাগলরা হাসিমুখের দিকে গড়ে ১ দশমিক ৪ সেকেন্ড তাকিয়ে থাকে ও স্পর্শ করে। আর গম্ভীর মুখের দিকে ০ দশমিক ৯ সেকেন্ড তাকিয়ে থাকে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এর মানে ছাগলরা আনুমানিক ৫০ শতাংশ বেশি সময় হাসি মুখের ছবির দিকে তাকিয়ে ছিল। তারা ছবিটাকে স্পর্শ করে।’

রয়েল সোসাইটি ওপেন সাইন্স পত্রিকায় গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়। তারা দাবি করে ছাগল যে মানুষের আবেগ বুঝতে পারে এটা তার প্রথম প্রমাণ।


আমের নাম ‘নূরজাহান’, লম্বায় ১
ফলের রাজা আম, তার রয়েছে নানা প্রকারভেদ। ল্যাংড়া, ফজলি, আম্রপালি,
বিস্তারিত
যে শহরের লক্ষাধিক নারী-পুরুষ পরকীয়ায়
তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির ফলে মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ যেমন বেড়েছে,
বিস্তারিত
রাজা থেকে ভিখারি!
২৫টি গাড়ি, ৩০ জন দাসী যে রাজার সেবায় সর্বদা নিয়োজিত
বিস্তারিত
অন্তঃসত্ত্বাকে মেরে পেট কেটে বের
৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বাকে অপহরণ করে শ্বাসরোধ করে খুন। এরপর তার
বিস্তারিত
দুই বিয়ে না করলে যেতে
দেশের সরকার ফতোয়া জারি করেছে, সব পুরুষকে অন্তত দুটি বিয়ে
বিস্তারিত
গর্ভবতী হলেন পুরুষ!
পেটে প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে এক ব্যক্তি হাজির হলেন হাসপাতালে। তবে
বিস্তারিত