হজরত উযায়ের (আ.) এর অভিজ্ঞতা

হজরত উযায়ের (আ.) সম্রাট বুখতে নসরের আক্রমণ-পরবর্তী যুদ্ধবিধ্বস্ত বাইতুল মুকাদ্দসের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় এ এলাকার সব লোক মৃত্যুবরণ করেছিল এবং ঘর-বাড়িগুলো ছাদসহ ধসে পড়েছিল। এলাকার বিপর্যস্ত এই অবস্থা দেখে হজরত উযায়ের (আ.) অবাক বিস্ময়ে বিমূঢ় হয়ে চিন্তা করতে লাগলেন যে, আল্লাহ তায়ালা এই মৃত জনপদকে কীভাবে জীবিত করবেন? তখন আল্লাহ তায়ালা দুনিয়ায় থাকা অবস্থায়ই তাকে মৃতকে জীবিত করার বিষয়টি প্রত্যক্ষ করান। মহাগ্রন্থ আল কোরআনে ঘটনাটি এভাবে উল্লেখ করা হয়েছে যে, ‘তুমি কি সে লোককে দেখনি যে এমন এক জনপদ দিয়ে যাচ্ছিল যার বাড়িঘরগুলো ভেঙে ছাদের ওপর পড়ে ছিল? সে বলল, কেমন করে আল্লাহ মরণের পর একে জীবিত করবেন? অতঃপর আল্লাহ তাকে মৃত অবস্থায় রাখলেন ১০০ বছর। তারপর তাকে উঠালেন। বললেন, কতকাল এভাবে ছিলে? বলল, আমি ছিলাম, একদিন কিংবা একদিনের কিছু কম সময়। বললেন, তা নয়; বরং তুমি তো ১০০ বছর ছিলে। এবার চেয়ে দেখ নিজের খাবার ও পানীয়ের দিকেÑ সেগুলো পচে যায়নি এবং দেখ নিজের গাধাটির দিকে। আর আমি তোমাকে মানুষের জন্য দৃষ্টান্ত বানাতে চেয়েছি। আর হাড়গুলোর দিকে চেয়ে দেখ যে, আমি এগুলোকে কেমন করে জুড়ে দিই এবং সেগুলোর ওপর মাংসের আবরণ পরিয়ে দিই! অতঃপর যখন তার ওপর এ অবস্থা প্রকাশিত হলো, তখন বলে উঠলÑ আমি জানি, নিঃসন্দেহে আল্লাহ সর্ববিষয়ে শক্তিমান।’ (সূরা বাকারা : ২৫৯)।


অগ্নিকান্ডে শহীদদের জন্য দোয়া
আলী হাসান তৈয়ব বুধবার রাতে পুরান ঢাকায় সংঘটিত অগ্নিদুর্ঘটনায় শোকে মুহ্যমান
বিস্তারিত
আল্লাহর প্রিয়তম স্থান মসজিদের বহুমুখী
মসজিদের কাতারগুলো সুশৃঙ্খলভাবে থাকবে। ধনী লোক দরিদ্রের পাশে, মনিব চাকরের
বিস্তারিত
জুমার দিনের ফজিলত
মহান আল্লাহ যেসব দিনকে বিশেষভাবে বরকতময় ও মর্যাদাবান করেছেন, তার
বিস্তারিত
ন তু ন প্র
বইয়ের নাম : ভিন্ন চোখে কওমি মাদরাসা লেখকের নাম : মুফতি
বিস্তারিত
আলোর পরশ
কোরআনের বাণী আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘বলুন, আমি কি তোমাদের সেসব লোকের
বিস্তারিত
ইসলামে মাতৃভাষা
ভাষা একটি বাংলা শব্দ। আরবিতে এর প্রতিশব্দ লিসান, ইংরেজিতে ল্যাংগুয়েজ।
বিস্তারিত