মাসআলা

রক্তদান ও ক্রয়-বিক্রয়

মুফতি শফী সাহেব (রহ.) লিখেছেন, ‘রক্ত মানব দেহের অংশবিশেষ। দেহ থেকে নির্গত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা নাপাক হয়ে যায়। নাপাক বস্তুর ব্যবহার নিষিদ্ধ বিধায় এবং সৃষ্টির সেরা জীব মানব অঙ্গের মর্যাদার কথা বিবেচনা করে স্বাভাবিক অবস্থায় রক্তদান নিষিদ্ধ। তবে যদি কোনো অভিজ্ঞ ডাক্তার রোগীর ব্যাপারে বলেন যে, এ মুহূর্তে তাকে রক্ত না দিলে তার মৃত্যু, কোনো অঙ্গহানি বা মারাত্মক শারীরিক ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে; আর এর বিকল্প কোনো ওষুধও পাওয়া না যায়, তাহলেই তাকে স্বেচ্ছায় রক্ত দেওয়া যাবে। অন্যথায় রক্ত দেওয়া বা বিক্রি করা বৈধ নয়। (ফাতাওয়া হিন্দিয়া : ৫/৩২৮)।


দাজ্জালের ফেতনা থেকে সাবধান
নবী (সা.) তাঁর উম্মতকে ফেতনা থেকে কঠিনভাবে সতর্ক করেছেন। এ
বিস্তারিত
সন্ত্রাসবাদের কোনো ধর্ম নেই
শ্রীলঙ্কায় নিরাপরাধ মানুষের ওপর নির্বিচার সন্ত্রাসী হামলায় সারাবিশ্বের বিবেকবান মানুষের
বিস্তারিত
আলোর পরশ
কোরআনের বাণী আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘যে বিষয়ে তোমার কোনো জ্ঞান নেই,
বিস্তারিত
দ্বিতীয় কাতার কোথা থেকে শুরু
প্রশ্ন : নামাজের প্রথম কাতার পূর্ণ হয়ে গেলে দ্বিতীয় কাতার
বিস্তারিত
ন তু ন প্র
বইয়ের নাম : রামাদান উদযাপন রচয়িতা : ড. মাওলানা আবু সালেহ
বিস্তারিত
জীবন পাথেয়
আপনি বিপদে পড়ে সর্বশেষ কবে আল্লাহর কাছে ধরনা দিয়েছেন? আল্লাহর
বিস্তারিত