হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রধান মারা গেছেন

আফগানিস্তানের জঙ্গি সংগঠন তালেবানের সবচেয়ে শক্তিশালী ও সক্রিয় শাখা হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা জালালউদ্দিন হাক্কানি মারা গেছেন।

এক বিবৃতিতে দীর্ঘ সময় ধরে রোগাক্রান্ত থাকা তালেবান এ নেতার মারা যাওয়ার খবর জানিয়েছে সংগঠনটি।

আফগানিস্তানে ‘গুরুত্বপূর্ণ’ এ জঙ্গি নেতার মৃত্যুর খবর এর আগে বেশ কয়েকবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের শিরোনাম হয়। তবে সে সময় সংগঠনটির পক্ষ থেকে কোনো বিবৃতি বা বক্তব্য পাওয়া যায়নি। এবারই প্রথম তার মৃত্যুতে বিবৃতি দিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করলো আফগান তালেবান।

তবে কবে ও কোথায় তার মৃত্যু হয়েছে সে বিষয়ে বিবৃতিতে স্পষ্ট করে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি।

পাকিস্তানি উপজাতি এলাকাভিত্তিক আল-কায়েদা ও তালেবান সংশ্লিষ্ট হাক্কানি নেটওয়ার্ক সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আফগান ও ন্যাটো বাহিনীর বিরুদ্ধে বহু হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।

এর আগে ২০১৫ সালে জালালউদ্দিন হাক্কানির মৃত্যুর খবর প্রকাশিত হয়। সে সময় বলা হয়, দীর্ঘদিন রোগে ভোগার পর অন্তত এক বছর আগেই জালালউদ্দিন মারা গেছেন।

ধারণা করা হয় ২০০১ সালে হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রধানের দায়িত্ব পান জালালউদ্দিন হাক্কানির ছেলে নাসিরউদ্দীন হাক্কানি। তবে ২০১৩ সালে মসজিদ থেকে বাড়িতে ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা নাসিরউদ্দীন হাক্কানিকে গুলি করে হত্যা করে বলেও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়।

জালালউদ্দিন হাক্কানির প্রতিষ্ঠিত এ নেটওয়ার্ককে আফগানিস্তানে তালেবানের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর শাখা হিসেবে বিবেচনা করা হয়।


এখনো সন্ত্রাসী হামলার ঝুঁকিতে রয়েছে
বুধবার প্রকাশিত মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সন্ত্রাসবাদ সম্পর্কিত বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা
বিস্তারিত
নওয়াজ ও তার মেয়েকে মুক্তির
দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং তার
বিস্তারিত
মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক
মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাককে ফের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওয়ান
বিস্তারিত
প্রথম রাষ্ট্রীয় সফরে সৌদি গেলেন
প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের একমাস পর প্রথম রাষ্ট্রীয় সফরে মঙ্গলবার
বিস্তারিত
মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আইসিসি’র তদন্ত শুরু
হত্যা, যৌন নির্যাতন ও দেশত্যাগে বাধ্য করাসহ রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে
বিস্তারিত
ইয়েমেনে গৃহযুদ্ধে দুর্ভিক্ষের কবলে অর্ধকোটি
ইয়েমেনের আরো ১০ লাখ শিশু দুর্ভিক্ষের কবলে পড়তে যাচ্ছে বলে
বিস্তারিত