কবিতা

ধোঁয়াশার তামাটে রঙ

দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ
মনে রেখো এই পথ, আবাদি জমিন, সবুজ অরণ্য সুতীব্র বন্ধ্যায়,
ভুগে ভুগে ক্ষয়ে যাবে চাঁদ; অনন্তের মায়াহীন প্রবল ছায়াÑ
ঢালবে আঁধার, থামাবে সুখ : ছড়াবে দীঘল কায়া।
তখন পাখিরা খোয়াবে ডানা; পৃথিবী পড়বে ভীষণ রকম মন্দায়!

হিজলের মতো এত মুগ্ধতা ছড়ায় কে, রুক্ষ আঁধারে?
রাতদিন তন্নতন্ন খুঁজে সৌরভ কিংবা গৌরব বনবাদাড়েÑ
কে ছেড়েছে পশুর স্বভাব, কার হাতে বাজে সম্প্রীতির বীণা-বাঁশি?
কণ্ঠ নামেনি কারো, রুদ্ধ হলো না যুদ্ধ-হিংস্রতায়ভরা হাসিÑ
স্তব্ধ হয়নি চিরতরে : কালো চোখ কেন বারবার খোঁজে শাদারে!


রাজধানীর রাজহাঁস সাপ-পাখি ও ডাহর
আটটি রাজহাঁস দশ-বারো ফুট দূরে হল্লা করে ভেজা ঘাস খাচ্ছে।
বিস্তারিত
নোঙর
গভীর গহনস্রোতে চোখ রেখে বলি হাতে হাতখানি ধরোÑ এসো, ঝাঁপ দিই অতল
বিস্তারিত
মহিউদ্দিন -বিনে পয়সায় বৃষ্টি
    এসো বৃষ্টি দেখি, বিনে পয়সায় বৃষ্টি। এ শহরের বৃষ্টি বড়ই লাজুক
বিস্তারিত
টিপু সুলতান-নারকেল পাতার চশমা
      আমার একটা ভাবনা ছিল কারোর আঙ্গিনায় গাছ হই। রোদ ভাঙা সন্ধ্যেয়
বিস্তারিত
বিবর্তন
    আভিজাত্য সম্মান জাদুঘরে নির্বাসিত   আমাদের সমাজ এখন ভেড়ার বদলে  কুকুর পালনে মনোনিবেশ
বিস্তারিত
ডুডল
  দীর্ঘ বিরতির পর এই দেখলামÑ তোমার বয়সের ছাপ এসে গেছেÑ চোখের নিচে
বিস্তারিত