তদন্ত কমিটির নির্দেশনা চেয়ে বিএনপির আইনজীবীর রিট

দেশজুড়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ আইনজীবীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে করা ‘কাল্পনিক’ মামলার বিষয়ে স্বাধীন তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে।

রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, আইনজীবী নিতাই রায় চৌধুরী ও সানাউল্লা মিয়া এ রিট দায়ের করেন।

এ তিনজনের মধ্যে খন্দকার মাহবুব হোসেন বিএনপির ভাইস চেয়ার‌ম্যান, নিতাই রায় চৌধুরী বিএনপি সরকারের সাবেক মন্ত্রী ও সানাউল্লা মিয়া বিএনপির আইন সম্পাদক।

রিটে বিবাদী করা হয়েছে, স্বরাষ্ট্রসচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক, ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার, গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (নর্থ জোন), রমনা জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার, রমনা ও শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে।

রিট দায়েরের পর খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে সারাদেশে ঢালাওভাবে এ ধরনের কাল্পনিক মামলা করার উদ্দেশ্যে হচ্ছে বিরোধীদলকে চাপে রেখে বিরোধী নেতাকর্মীদের মধ্যে ভীতি সঞ্চার করা।

ওই আইনজীবী আরো বলেন, এ ধরনের মামলা ঠিক হয়েছে কিনা তা তদন্ত করতে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিশন গঠন করার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের কাল্পনিক মামলা করে যেন হয়রানি না করা হয়, তার নির্দেশনা জারির আবেদন করা হয়েছে। যারা এ ধরনের মামলা করেছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা চেয়েও আবেদন করা হয়েছে।

বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি আহমদ সোহেলের হাইকোর্ট বেঞ্চে এ রিট আবেদনের ওপর শুনানি হতে পারে। ড. কামাল হোসেনসহ জ্যেষ্ঠ আইনজীবীরা এ মামলার শুনানিতে অংশ নিবেন বলে জানিয়েছেন খন্দকার মাহবুব হোসেন।

রিট আবেদনে সেপ্টেম্বর মাসে বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে আবেদনকারী ও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের অগণিত মানুষের বিরুদ্ধে ‘কাল্পনিক’ মামলা করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, এই ধরনের ‘কাল্পনিক’ মামলাকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিবাদীদের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- এ মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে।

এ রুল বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় আবেদনকারীসহ বিরোধী নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পরবর্তীতে এ ধরনের মামলা দায়ের থেকে বিরত থাকতে এবং এ ঘটনা তদন্তে সাত সদস্যের একটি স্বাধীন তদন্ত কমিটি (যার মধ্যে জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশনের প্রতিনিধি রাখা) গঠনের নির্দেশনা জারির আবেদন করা হয়েছে।

এছাড়াও রুল বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় আবেদনকারীদের বিরুদ্ধে করা এসব মামলার তদন্ত থেকে বিরত থাকে নির্দেশনা জারির আর্জি জানানো হয়েছে আবেদনে।


উন্নয়ন ও শান্তির পক্ষে তরুণদের
উন্নয়ন ও শান্তির পক্ষে নেতৃত্ব কার হাতে থাকলে বাংলাদেশ এগিয়ে
বিস্তারিত
খুলে দেয়া হয়েছে ৫৮ ওয়েবসাইট:
দেশের যে ৫৮টি ওয়েবসাইট নিরাপত্তাজনিত কারণে বন্ধ করা হয়েছিল তা
বিস্তারিত
খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে আদেশ
কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার তিনটি আসনে মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে
বিস্তারিত
উন্নয়নের পক্ষে নৌকায় ভোট দিন:
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উন্নয়নের পক্ষে ৩০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগকে
বিস্তারিত
‘ইসি হলুদ গণতন্ত্র চায় না
নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, দেশ আইনের শাসনের অভাবে যে
বিস্তারিত
বিশ্ব মানবাধিকার দিবস আজ
আজ ১০ ডিসেম্বর বিশ্ব মানবাধিকার দিবস। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও যথাযোগ্য
বিস্তারিত