যুগান্তরের কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি কারাগারে

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দোহার থানায় পাঁচ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর দৈনিক যুগান্তরের কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি আবু জাফরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

সাংবাদিক আবু জাফর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকার আগানগর এলাকার বাসিন্দা। তিনি কেরানীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক।

মঙ্গলবার দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় ‘নবাবগঞ্জ থানার ওসি মোস্তফা কামালের আলিশান বাড়ি’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ সংবাদ প্রকাশের জের আবু জাফরসহ পাঁচ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

বুধবার দুপুরে মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে দোহার থানার ওসি মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. পলাশ বাদী হয়ে দোহার থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পাঁচ সাংবাদিককে আসামি করে মামলাটি দায়ের করেছেন। এদের মধ্যে আবু জাফর একজন।
অন্যান্য চার আসামির নাম জানতে চাইলে ওসি বলেন, তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম প্রকাশ করা যাচ্ছে না। তাদের গ্রেপ্তারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। 

ওসি মো. সাজ্জাদ হোসেন আরও জানান, মঙ্গলবার রাতে ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে জাফরকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তবে কেরানীগঞ্জের কোন এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে নিশ্চিত করতে পারেননি ওসি।

বুধবার বিকাল ৪টায় আবু জাফরকে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করা হয়। আদালত রিমান্ড নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। আবু জাফরের আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

অপরদিকে, দৈনিক যুগান্তরে প্রকাশিত সংবাদটি মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত দাবি করে মঙ্গলবার বিকালে বিক্ষোভ করে নবাবগঞ্জ উপজেলার আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। বুধবারও ‘ওসি মোস্তফা কামালের সম্পদের পাহাড়’ শিরোনামে আরও একটি সংবাদ প্রকাশ করেছে যুগান্তর। 

দৈনিক যুগান্তরে প্রকাশিত সংবাদগুলো হাস্যকর, ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত দাবি করে বুধবার দুপুরে নিজ অফিসে ওসি মোস্তফা কামাল সাংবাদিকদের জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচনকালীন আমার নিরপেক্ষ ভূমিকা একটি পক্ষের ক্রোধের কারণ ছিল। তাদের উদ্দেশ্য ছিল নির্বাচনকে প্রভাবিত করার। তারা মিডিয়া ব্যবহার করে আমাকে হেয় করার ষড়যন্ত্র করছে। 

এদিকে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে পাঁচ সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা ও সাংবাদিক আবু জাফরকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন কেরানীগঞ্জ, দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলার সাংবাদিকবৃন্দ। তারা অবিলম্বে আবু জাফরকে মুক্তি ও পুরো বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।

দৈনিক যুগান্তরের স্টাফ রিপোর্টার ও নবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আজহারুল হকের বিরুদ্ধে দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা করেছে নবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সদস্যরা। বুধবার বেলা ১২টায় প্রেসক্লাবে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. ইব্রাহীম খলিল এতে সভাপতিত্ব করেন।


সিরাজগঞ্জে ভুয়া ডাক্তার গ্রেপ্তার, থানায়
সিরাজগঞ্জে মাসুদ ইকবাল (২৫) নামে ভূয়া এমবিবিএস ডাক্তারকে থানায় সোপর্দ
বিস্তারিত
রাষ্ট্রপতি নির্দেশ দিলে সরে যাব:
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে
বিস্তারিত
সিরাজদিখানে মামির হাতে ভাগনী খুন
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে মামীর হাতে ভাগনী খুনের ঘটনা ঘটেছে। তুচ্ছ ঘটনায়
বিস্তারিত
বশেমুরবিপ্রবি’র উপাচার্যের অপসারণ দাবি রাবির
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য
বিস্তারিত
রাজশাহী বিভাগে বাস্তবায়ন হচ্ছে ৫৫
রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় সরকারের ৫৫টি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা
বিস্তারিত
জমি রক্ষায় আইনের আশ্রয় নিতে
রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) সদর দপ্তর নির্মাণের কাজ শুরু করা
বিস্তারিত