যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের মানবাধিকার পরিস্থিতি দেখা প্রয়োজন

বাংলাদেশের নির্বাচন ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তা একপেশে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, এটি মূলত কিছু সংস্থার পাঠানো রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে। রিপোর্টে সেই সমস্ত সংস্থার নামও উল্লেখ করা হয়েছে। আমরা এই প্রতিবেদন প্রত্যাখান করছি।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয় নির্বাচন উৎসবমুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে হয়েছে দাবি করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলেও প্রচারণায় ছিল না। অনেক জায়গায় পোস্টার লাগায়নি, প্রার্থীদেরও দেখা যায়নি। বিএনপি প্রথম দিকে ৩০০ আসনে ৮০০ জনকে মনোনয়ন দিয়েছিল। যেটি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন দেয়ার ইতিহাসে রেকর্ড। এটি করতে গিয়ে যে মনোনয়ন বাণিজ্যের কথা জেনেছি-শুনেছি এটি অত্যন্ত দুঃখজনক ও অনভিপ্রেত। এ বিষয়গুলো ওই রিপোর্টের মধ্যে আসেনি।

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি খুব ভালো দাবি করে মন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আমাদের ব্যাপারে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, আমি মনে করি যুক্তরাষ্ট্রের নিজেদের মানবাধিকার পরিস্থিতির দিকে নজর দেয়ার প্রয়োজন আছে। কিছু সংগঠন অব্যাহতভাবে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে মনগড়া প্রতিবেদন প্রকাশ করে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা হচ্ছেন রওশন
জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর
বিস্তারিত
এরশাদের আসনে প্রার্থী দেবে আ.লীগ:
জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ইন্তেকাল করায় শূন্য হওয়া
বিস্তারিত
অনিয়ম অব্যবস্থাপনায় শেষ হলো জবি
নানা অনিয়ম অব্যস্থাপনায় শেষ হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের দ্বিতীয়
বিস্তারিত
আওয়ামী লীগ সরকার জনআতঙ্কে ভুগছে:
বর্তমান ফ্যাসিবাদী আওয়ামী সরকার এখন জনআতঙ্কে ভুগছে, জনসমাগম দেখলেই জনবিস্ফোরণের
বিস্তারিত
প্রিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার প্রক্রিয়া
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশি নারী প্রিয়া সাহার অভিযোগ
বিস্তারিত
চট্টগ্রামে ২৭ শর্তে বিএনপির মহাসমাবেশ
অনেক নাটকীয়তা এবং জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে শর্ত জুড়ে দিয়ে
বিস্তারিত