যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের মানবাধিকার পরিস্থিতি দেখা প্রয়োজন

বাংলাদেশের নির্বাচন ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তা একপেশে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, এটি মূলত কিছু সংস্থার পাঠানো রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে। রিপোর্টে সেই সমস্ত সংস্থার নামও উল্লেখ করা হয়েছে। আমরা এই প্রতিবেদন প্রত্যাখান করছি।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয় নির্বাচন উৎসবমুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে হয়েছে দাবি করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলেও প্রচারণায় ছিল না। অনেক জায়গায় পোস্টার লাগায়নি, প্রার্থীদেরও দেখা যায়নি। বিএনপি প্রথম দিকে ৩০০ আসনে ৮০০ জনকে মনোনয়ন দিয়েছিল। যেটি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মনোনয়ন দেয়ার ইতিহাসে রেকর্ড। এটি করতে গিয়ে যে মনোনয়ন বাণিজ্যের কথা জেনেছি-শুনেছি এটি অত্যন্ত দুঃখজনক ও অনভিপ্রেত। এ বিষয়গুলো ওই রিপোর্টের মধ্যে আসেনি।

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি খুব ভালো দাবি করে মন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আমাদের ব্যাপারে যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, আমি মনে করি যুক্তরাষ্ট্রের নিজেদের মানবাধিকার পরিস্থিতির দিকে নজর দেয়ার প্রয়োজন আছে। কিছু সংগঠন অব্যাহতভাবে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে মনগড়া প্রতিবেদন প্রকাশ করে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


জাহিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে:
দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে কেউ শপথ নিলে তা ‘সাংগঠনিক অপরাধ’
বিস্তারিত
সরকারি কর্মকর্তার নামে দুদকে মামলা
খেলার পাশাপাশি রাজনীতিতে নাম লিখিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে
বিস্তারিত
জাহিদুরকে ‘গণদুশমন’ বললেন গয়েশ্বর
দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে ও দলীয় প্রধানকে কারাগারে রেখে যারা
বিস্তারিত
‘দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে শপথ
বহিষ্কারের কথা জেনেই দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে শপথ নিয়েছেন বলে
বিস্তারিত
শপথ নিলেন বিএনপির সংসদ সদস্য
সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিয়েছেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির
বিস্তারিত
ক্ষমতা ও সম্পদ ছিনতাইয়ের আশঙ্কায়
নিজের স্বাক্ষর জালের আশঙ্কায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন জাতীয়
বিস্তারিত