প্রসূতির নাইট শিফটে কাজ, মিসক্যারেজ হতে পারে!

প্রতীকী ছবি

মা হতে চাওয়া সব নারীরই সহজাত প্রবৃত্তি। কর্মজীবী নারী যারা চাকরির প্রয়োজনে কখনো কখনো রাত্রিকালীন দায়িত্ব পালন করে থাকেন তাদের ক্ষেত্রে মা হওয়ার কিছুটা ঝুঁকি থেকে যায়।

প্রেগন্যান্ট অবস্থায় এক সপ্তাহে দু'দিন বা তার বেশি নাইট শিফটে কাজ করছেন? এতে কিন্তু আপনার মিসক্যারেজও হতে পারে। সম্প্রতি একটি গবেষণায় এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। 

বলা হচ্ছে, রাত জেগে কাজ করা মানে, কৃত্রিম আলোর সামনে দীর্ঘ সময় থাকা। এর ফলে শরীরের স্বাভাবিক বডি ক্লক (দেহঘড়ি) নষ্ট হয়ে যায়। মেলাটনিন নামে এক ধরনের হরমোন যা প্রেগন্যান্সির সময় হবু মায়ের শরীরে অত্যন্ত জরুরি, তার ক্ষরণ প্রভাবিত হয়, অনেকটাই কমে আসে। অকুপেশনাল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল মেডিসিন জার্নালে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। 

এই গবেষণার জন্য প্রায় ২৩ হাজার গর্ভবতী নারীকে অংশগ্রহণ করানো হয়েছিল। গবেষণায় উঠে এসেছে, আট সপ্তাহের প্রেগন্যান্সির পর যে নারীরা নাইট শিফটে কাজ করেন তাদের মিসক্যারেজের সম্ভাবনা প্রায় ৩২ শতাংশ বেশি হয়। 

এরই সঙ্গে আগের বেশ কয়েকটি গবেষণায় উঠে এসেছে, নাইট শিফটে কাজ করা নারীদের ক্ষেত্রে সময়ের আগে মেনোপজ, কার্ডিওভাস্কুলার রোগ, অস্টিওপোরোসিস ও স্মৃতিভ্রমের আশঙ্কা বেশি থাকে।


যেসব রোগের জন্য নামাজ ব্যতীত
কিছু কিছু রোগ আছে যার নামাজ ব্যতিত কোন ঔষধ বা
বিস্তারিত
এমআরআই (MRI) কি? কি ধরনের
MRI is The Abbreviation Of Magnetic Resonance Imaging. বর্তমান চিকিত্সা
বিস্তারিত
হার্ট সুস্থ রাখতে ডা. দেবী
উপমহাদেশের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী প্রসাদ শেঠি। বলা হয়,
বিস্তারিত
প্রস্রাবের রঙ দেখে রোগ নির্ণয়
প্রতিদিন শরীর থেকে প্রায় দুই লিটার পানি প্রস্রাব আকারে বেরিয়ে
বিস্তারিত
টুয়েলভ নতুন আঙ্গিকে যমুনা ফিউচার
ফ্যাশন হাউস টুয়েলভ যমুনা ফিউচার পার্কে নতুন আঙ্গিকে যাত্রা করেছে।
বিস্তারিত
গভীর ঘুমের মধ্যে বোবায় ধরা,
চিকিৎসাশাস্ত্রের ভাষায় এই সমস্যাকে বলা হয় স্লিপ প্যারালাইসিস, বা ঘুমের
বিস্তারিত