পরকীয়া: একই পরিবারের তিনজনের আত্মহত্যার চেষ্টা

যশোরের চৌগাছায় পরকীয়ার কারণে কীটনাশক পান করে একই পরিবারের তিনজন আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলা সদর ইউনিয়নের উত্তর কয়ারপাড়া গ্রামে।

আত্মহত্যা চেষ্টাকারীরা হলেন, তিন সন্তানের জনক আব্দুর রশিদ (৪০), তার স্ত্রী আছমা খাতুন (২৮) ও রশিদের প্রেমিকা মালয়েশিয়া প্রবাসী শ্যালকের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী ডলি খাতুন (৩০)। 

পহেলা বৈশাখ রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার দক্ষিণ কয়ারপাড়া গ্রামের বাড়িতেই তারা কীটনাশক পান করেন। তিনজনই বর্তমানে চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

হাসপাতালে তাদের স্বজনরা জানান, আব্দুর রশিদ প্রেম করে তার আপন চাচাতো বোন আছমা খাতুনকে বিয়ে করেন। এই দম্পতির তিনটি সন্তান রয়েছে। এরপরও প্রবাসী আপন শ্যালক ও চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রী দুই সন্তানের জননী ডলির সঙ্গে তার দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া রয়েছে। বিষয়টি জানাজানি হলে রশিদের স্ত্রী একবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন। তখন আব্দুর রশিদ প্রতিজ্ঞা করেন আর এমন করবেন না। কিছুদিন পর আবারো সেই সম্পর্কে জড়ান। সে যাত্রায়ও প্রতিজ্ঞা করে রেহাই পান রশিদ-ডলি।  

লাগোয়া বাড়ি ও নিকটাত্মীয় হওয়াই গোপনে সম্পর্ক রেখে আসছিলেন উভয়েই।

তারা বলছেন, রোববার পহেলা বৈশাখের দিন তাদের সম্পর্ক ধরা পড়ে গেলে এ নিয়ে বাড়িতে ঝগড়াঝাটির একপর্যায়ে সন্ধ্যায় রশিদের স্ত্রী কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। বিষয়টি বুঝতে পেরে গ্রামের মানুষের সহানুভূতি পেতে রশিদও কীটনাশক পান করেন। স্থানীয়রা উভয়কে উদ্ধার করে চৌগাছা ৫০ শয্যা হাসপাতালে নেন। 

এ ঘটনায় গ্রামবাসী তিরস্কার করলে ডলিও কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তাকেও উদ্ধার করে চৌগাছা হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে তিনজনই হাপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

রোববার রাত সাড়ে ৯টায় এ প্রতিবেদকের সামনেই ডলির মা ও রশিদের স্ত্রীর স্বজনরা বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন।

ডলি কেন কীটনাশক পান করেছেন জানতে চাইলে তার মা বলেন, 'রশিদের স্ত্রী-কন্যা মারপিট করেছে বলে সে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে।'

আব্দুর রশিদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পারিবারিক কলহের কারণে তিনি একাজ করেছেন। পরকীয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে কোনো জবাব না দিয়ে তিনি বলেন, সুস্থ হয়ে এর একটা বিহিত করবেন।

আছমা খাতুন বলেন, 'আমার মেয়েরা বড় হয়েছে। তাদের বিয়ে দিতে হবে। বারবার বলা সত্ত্বেও আমার স্বামী পরকীয়ার পথ থেকে সরে না আসায় হতাশা থেকে আত্মহত্যার চেষ্টা করি।'

এদিকে, একইদিন সন্ধ্যায় উপজেলার জগদীশপুর গ্রামের মৃত বকুল হোসেনের মেয়ে শারমিন খাতুন (১৪) গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।  তাকেও গ্রামবাসী উদ্ধার করে চৌগাছা উপজেলা হাসপাতালে নেন। সে জগদীশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

ঠিক কী কারণে মেয়েটি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে তা জানা না গেলেও স্থানীয়রা বলছেন, প্রেমের কারণে সে আত্মহত্যার চেষ্টা করে থাকতে পারে।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মুঞ্জুরুল হাসান জানান, চারজনই বর্তমানে শংকামুক্ত আছেন।


সভাপতি গোলাম দস্তগীর গাজী সা.
দীর্ঘ ২২ বছর পর নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি,
পাহাড়ি ঢল ও প্রবল বর্ষণে যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত
বিস্তারিত
স্কুলছাত্রীর ধর্ষক চাচাত ভাই!
ঢাকার সাভারে চাচাত ভাইয়ের কাছে ধর্ষণের শিকার হয়েছে সপ্তম শ্রেণি
বিস্তারিত
বিআইডব্লিউটিএর অভিযানে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা
ঢাকার বুড়িগঙ্গা নদীর তীর দখল করে গড়ে তোলা অপসোনিন ওষুধ
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন
সিরাজগঞ্জে ধর্ষণ মামলার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় রঞ্জু মিয়া (৩০) নামে
বিস্তারিত
রংপুরে পল্লী নিবাসে সমাহিত এরশাদ
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে রংপুরে তার নিজ বাসভবন
বিস্তারিত