শ্রীলঙ্কায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২০৭, আটক ৭ সন্দেহভাজন

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডের প্রার্থনার সময় তিনটি গির্জা ও পাঁচ তারকা তিনটি হোটেলে সিরিজ বোমা হামলায় ৩৫ বিদেশিসহ অন্তত ২০৭ জন নিহত ও ৪ শতাধিক আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সাত সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে।

এখনও পর্যন্ত কমপক্ষে আটটি বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়েছে।

এদিকে এ খবরে বেশ উদ্বিগ্নতা প্রকাশ করেছেন শ্রীলঙ্কায় বাংলাদেশ দূতাবাসের হাইকমিশনার রিয়াজ হামিদুল্লাহ। নিহত ও আহতের মধ্যে বাংলাদেশি আছে কিনা তার খোঁজে তৎপর বাংলাদেশ দূতাবাস।

তিনি বলেন, বাংলাদেশিদের কারও কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হলে বা কারও ক্ষয়ক্ষতি হয়ে থাকলে আমাদের হাইকমিশনের কর্মকর্তা মোসা. মাহমুদা (+94712406313) এর সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করছি।

শ্রীলংকার পুলিশকে উদ্ধৃত করে দেশটির দ্য ডেইলি মিরর পত্রিকা জানিয়েছে, তিনটি গির্জায় অন্তত ছয়টি বিস্ফোরণ হয়েছে।

এছাড়া তিনটি পাঁচ তারকা হোটেলে বিস্ফোরণের খবর দিচ্ছে পত্রিকাটি। আহতদের মধ্যে বিদেশী পর্যটকও রয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

বিবিসির প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, পুলিশ আরও বিস্ফোরণের আশঙ্কা করছে। লোকজনকে আতঙ্কিত না হয়ে যার যার বাসার ভেতর থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে বিবিসি বাংলার প্রকাশিত খবরে জানা যায়, বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় মোট সাত সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া আরও জানা যায়, শ্রীলঙ্কান সরকার নিশ্চিত করেছে অধিকাংশ বিস্ফোরণই ছিল আত্মঘাতী হামলা এবং একটি গোষ্ঠীই হামলাগুলো চালিয়েছে।

পুলিশ জানায়, ‘রোববার সকাল পৌনে নটার দিকে  ধারাবাহিক বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে রাজধানী কলম্বো। ইস্টারের প্রার্থনার সময় তিনটি গির্জায় বিস্ফোরণ ঘটে। একই সঙ্গে তিনটি হোটেলেও পর পর বিস্ফোরণ ঘটে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ।’

এখনো উদ্ধার কাজ চলছে বলেও জানায় পুলিশ। কলম্বোর কোচ্চিকাড়ের অ্যান্টলি গির্জা,কাতুয়াপিতিয়ার সেন্ট সিবেস্টিয়ান গির্জা-সহ একাধিক জায়গায় বিস্ফোরণের ভয়াবহ শব্দ শোনা গিয়েছে।

সাংরি লা, সিনামন গ্র্যান্ডের মতো বিলাসবহুল হোটেলেও চলে হামলা। হোটেলগুলিতে অসংখ্য বিদেশি পর্যটক ছিলেন বলে স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

ইতোমধ্যেই বিস্ফোরণের বিভিন্ন ছবি উঠে এসেছে টুইটার এবং সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। তবে কোন জঙ্গি গোষ্ঠী এই বিস্ফোরণের পিছনে রয়েছে তা এখনও স্পষ্ট নয়৷

শ্রীলঙ্কা মূলত বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদেরই দেশ। দেশে খ্রিস্টধর্মে বিশ্বাসী ক্যাথলিকদের সংখ্যা ছয় শতাংশ মাত্র। ইস্টারের প্রার্থনার কারণে গির্জায় বেশ ভিড় ছিল, তাই এই নির্দিষ্ট সময়টাকেই জঙ্গিরা বেছে নিয়েছে বলে মত কলম্বো পুলিশের। তথ্যসূত্র: বিবিসি ও আনন্দবাজার


নেতাদের অনুরোধ সত্ত্বে পদত্যাগে অনড়
লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির দায় নিয়ে সভাপতির পদ থেকে রাহুল
বিস্তারিত
যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা
যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়েট সিটিতে জয়নুল ইসলাম নামে এক বাংলাদেশিকে
বিস্তারিত
ডিম চাওয়ায় ৩ বছরের শিশুর
অঙ্গনওয়াড়িতে দেওয়া খিচুড়ির সঙ্গে একটা ডিম বেশি চেয়েছিল তিন বছরের
বিস্তারিত
নিজের আপন বোনকে বিয়ে করলো
ব্যক্তিস্বার্থ হাসিল করার জন্য মানুষ কত কিছুই না করে! তাই
বিস্তারিত
যে কারণে এখনও বিয়ে করেননি
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে
বিস্তারিত
সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে নুসরাতের
লোকসভা ভোটের ফল বিশ্লেষণ করে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ইছামতীর পাড়ের
বিস্তারিত