শিশুর জন্য স্ক্রিন দেখা নিরাপদ কতক্ষণ?

কর্মব্যস্ততার চাপে বেশির ভাগ বাবা-মাই তার সন্তানদের দেওয়ার মতো সময় পান না। বর্তমান সময়ে শিশুদের খেলাধূলারও তেমন সুযোগ নেই। এ কারণে তাদের শৈশব কাটছে স্মার্টফোন, টিভি বা কম্পিউটারের সঙ্গে। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, স্মার্টফোন, টিভি বা কম্পিউটারের প্রতি শিশুদের অতিরিক্ত আকর্ষণ তার শারীরিক বৃদ্ধি এবং মানসিক বিকাশের অন্তরায় হয়ে দাঁড়াচ্ছে। এই তথ্য অনেক বাবা-মাই জানেন। কিন্তু ঠিক কতক্ষণ স্মার্টফোন, টিভি বা কম্পিউটারের সঙ্গে সময় কাটানো শিশুর জন্য নিরাপদ তা অনেকেই জানেন না। সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু-এর (WHO) একটি নির্দেশিকায় জানা গেল এই তথ্য। 

ওই নির্দেশিকায় হু জানিয়েছে, শিশু যত বেশি সময় টিভি, স্মার্টফোন বা কম্পিউটারের সঙ্গে কাটাবে, ততই তার মানসিক, শারীরিক বিকাশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ওই নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, শিশুর মানসিক ও শারীরিক স্বাস্থ্যের পরিপূর্ণ বিকাশের জন্য টিভির পর্দা নয়, খেলার মাঠেই উপযুক্ত। 

হু জানিয়েছে, ২ থেকে ৪ বছর বয়সী শিশুদের যত বেশি করে শারীরিক কার্যকলাপ, দৌড়াদৌড়ি, খেলাধূলায় নিযুক্ত করা যায়, ততই তার মানসিক ও শারীরিক বিকাশ উন্নত হয়। নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, ৫ বছরের কম বয়সী শিশুরা দিনে বড়জোড় ১ ঘণ্টা টিভি বা কম্পিউটারের সঙ্গে সময় কাটাতে পারে। এর বেশি হলেই তাদের বিকাশ বাঁধাগ্রস্ত হবে। সূত্র : জি নিউজ


বাবা-মায়ের তালাকে ‘মোটা হয় শিশুরা’
যাদের বাবা-মা এক সঙ্গে থাকে তাদের তুলনায় যেসব শিশুর বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
কম বাজেটে ভ্রমণ! জেনে নিন
পকেট ফাঁকা, টাকার দেখা নেই বেশ কতদিন, কিন্তু কোথাও তো
বিস্তারিত
যে কারণে অকালে চুল ঝরে
টাক পড়ে যাওয়া এখন খুব স্বাভাবিক একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।
বিস্তারিত
কম ঘুমালে হবে যেসব ক্ষতি
সারা দিন কাজ ও নানা রকম চাপের কারণে অনেকে চার-পাঁচ
বিস্তারিত
ফরমালিনমুক্ত আম চিনবেন যেভাবে
বাজারে আম কিনতে গেলে বিপাকে পড়ে যান আপনি। ঠিক বুঝে
বিস্তারিত
সন্তান প্রতিবন্ধী হতে পারে স্বামী-স্ত্রীর
মহান আল্লাহতায়ালা প্রত্যেক পুরুষের জন্য স্ত্রী হিসেবে একজন নারীকে মনোনিত
বিস্তারিত