একদিন এই পথ বাঁকে-টিপু সুলতান

হাঁটছি পথের সঙ্গে-গৃহবধূর উঠান ধরে
পেছনে সরে যাচ্ছে অনাগত পথ,
খুঁটছি ফালগুন-বাতাসের গোপন গল্প ভাড়া দিতে দিতে
পুরান ঢাকার তিন গলি মাথায় কিনেছি বসন্ত-বৈশাখ;

একদিন এই পথ বাঁকে, নিশকালো কুচকুচ কাকডুব
নগরীর মদ পানে-কোকিল ধ্বনি ফুটতে ফুটতে
দোয়েল চত্বরে কেটে যায় একটি বৃহস্পতিবারÑ
সন্ধ্যার আলোটুকু গিলে খায় নিরঞ্জন দুপুরের বর্ষা
জ্যোৎস্নার পুকুরে মেঘ খেলে-রাজহংসী নাচ!


দীপা
পহেলা ফাল্গুন। বইমেলায় শাড়ি পরিহিতা সুশ্রী একজন লেখিকা ৩০১ নম্বর
বিস্তারিত
মেঘ শুধু মেঘ নয়
মেঘ শুধু মেঘ নয়; খুঁজেছো কি মেঘে তুমি কিছু  শাদা
বিস্তারিত
আলো অন্ধকারে যাই
ভ্যান থেকে যখন নামল সে, বহু মানুষ দাঁড়িয়ে আছে। সন্ধ্যা
বিস্তারিত
চেতনা বিকাতে পারি
  যিনি চেতনাবাজ হয়ে বেঁচে আছেন এক মেরদ-ী শিক্ষকের কথা বলি যিনি
বিস্তারিত
টুপটুপ রক্ত ঝরছে
কপালে লাল টিপ সেঁটে দৌড়ে ছুটছে লাল ষাঁড় শিং ছুঁয়ে
বিস্তারিত
মায়ের শরীরের একাংশ আমি
আমার অস্তিত্বের অঙ্কুরোদগম হয়েছিল এক মায়াবী নারীর গূঢ় কর্ষিত জঠরে
বিস্তারিত