মাসআলা

রোজা অবস্থায় নখ বা চুল কাটা

রোজা অবস্থায় নখ
বা চুল কাটা 

রোজা অবস্থায় হাত-পায়ের নখ কাটলে, চুল কাটলে বা কাটালে; ক্ষৌরকর্ম করলে বা করালে রোজার ক্ষতি হবে না। এর সঙ্গে রোজা ভঙ্গের কোনো সম্পর্ক নেই। রোজা নষ্ট হয় মূলত পানাহার ও রতিক্রিয়া দ্বারা। তাই রমজানে রোজা অবস্থায় দিনের বেলায় হাত-পায়ের নখ কাটা, চুল কাটা বা অবাঞ্ছিত পশম মু-ানো বা কামানো, ছাঁটা বা কাটা অথবা উপড়ানো জায়েজ আছে; এতে রোজার কোনো ধরনের ক্ষতি হবে না। তবে ফরজ, ওয়াজিব ও সুন্নতের খেলাফ কোনো কাজ সবসময়ই নিষেধ; বরং তা রমজানের ইবাদতের মাসে আরও বেশি ক্ষতির কারণ। তাই রমজানে রোজা অবস্থায় কোনো ধরনের ফরজ, ওয়াজিব ও সুন্নতের বরখেলাফ কোনো কাজ অবশ্যই কঠোরভাবে নিষিদ্ধ ও অধিক নিন্দনীয়। অনেককে দেখা যায় রমজানে দিনের বেলায় যে গোনাহের কাজটি করছেন না, রাতের বেলায় অবলীলায় তা করছেন; এটি মূর্খতা ছাড়া কিছু নয়। (ইমদাদুল আহকাম; ফাতাওয়ায়ে দারুল উলূম)।

মুফতি শাঈখ মুহাম্মাদ উছমান গনী


ইসলামি অর্থনীতির দৃষ্টিতে সম্পদ
‘সম্পদ’ অর্থনীতির অন্যতম উপাদান। সম্পদ ছাড়া অর্থনীতি কল্পনা করা যায়
বিস্তারিত
সওয়াল জওয়াব
প্রশ্ন : আমার একটি বিষয় জানার খুবই প্রয়োজন। যেহেতু আমি
বিস্তারিত
জুয়া ও বাজি ইসলামে নিষিদ্ধ
হাদিসে রাসুল (সা.) জুয়া পরিহার করার প্রতি এত গুরুত্বারোপ করেছেন
বিস্তারিত
জীবন সংগ্রাম বনাম নিয়তির বিধান
তাওয়াক্কুল মানে আল্লাহর ওপর ভরসা করা। সুফি দর্শনে তাওয়াক্কুল একটি
বিস্তারিত
পরচর্চা সামাজিক মহামারি
‘চর্চা’ শব্দটা উত্তম। অর্থবহ। আলোচনা, পড়াশোনা, অভ্যাস, অনুশীলন, গবেষণা ইত্যাদি
বিস্তারিত
রাগ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে
রাগ হচ্ছে শয়তানের কাজ, যা দিয়ে সে খুব সহজেই মানুষের
বিস্তারিত