নিস্তব্ধ অন্তরে

তুমি আছো নিস্তব্ধ অন্তরে আমার
অন্তরের দেবালোকে।
পাইনি বলে আজও তোমায়
ভালোবাসি আমি।
নীল সাগরের এপার ওপার
করছে কানাকানি।

নাম না জানা বন্ধু মোরা
হয়নি পরিচয়।
আমার বুকে কাঁদছে আশা
তোমার বুকে ভয়।
তোমায় আমি পেলাম নাকো
জানার অবসর।

গানের পাখি বসেছিল
দু’দিন শাখার পর।
বর্ষা ঝরা এমন রাতে
আমার মতো কি!
ঝরবে তুমি একা মনে
বনের কেতকী!

থাকবে তুমি ছায়ার সঙ্গে 
থাকবে আমার বুকের মাঝে।
মায়ার মতো চাঁদনী রাতে
থাকবে এ প্রাণ তোমার পাশে।

তুমি আমার আড়াল থাকা
তুমি স্বপন চোর।
তুমি আছো, আমি আছি
এই তো খুশি মোর।

ঘুম ঘোরে
স্বপ্নে আমার মনে হলো
তুমি এসেছিলে ঘুমের ও প্রাতে
ঊষার সোনার বিন্দু লয়ে হাতে
নিঃশব্দ পুরী, কেহ ছিল না পথে
একা চলে গেলে তোমার সোনার রথে
খানিক থমকে দাঁড়িয়েছিলে মোর বাতায়ন পাশে 
চেয়েছিলে করুণ আঁখিপাতে।

স্বপ্নে আমায় ভরেছিল মৃদ গন্ধে
শিয়রে রজনীগন্ধা তারই সুবাসে
ঘরের আঁধার কেঁপেছিল কি আনন্দে 
বুকে দোলে তার বিরহ ব্যথার মালা
গোপন মিলন অমৃত গন্ধ ঢালা।

কোণে পরে থাকা, ধুলি মাখা নীরব
আমার বীণা বেজে উঠেছিল
কি গো অনাহত আনন্দে
কতবার আমি চেয়েছি জাগিয়া উঠিতে
তবু পারি নাই জাগিতে
যখন ভাঙিল ঘুম, তখন গিয়াছ চলিয়া
দেখা বুঝি আর হলো না তোমার সনে।


ভাতঘুম
সুমন রহমান লাজুক ভঙিতে হাসে। তার মাথাটা নুয়ে আসে বুকের
বিস্তারিত
কাঠমান্ডুর দরবারে
নেপালের কাঠমান্ডুতে অবস্থিত হনুমান ধোকা দরবার ১৯৭৯ সালে ইউনেস্কোর বিশ্ব
বিস্তারিত
কবিতা
কাজী জহিরুল ইসলাম গৃহগল্প দাঁড়াবার জন্য কিছুটা সময় নেয় এরপর টুপ
বিস্তারিত
গণসমুদ্রচোখ আমাকে পাহারা দেয়
দাগহীন আত্মসমর্পণ, গোটা থানকুনি বাঁক তা দিচ্ছে। ধুলোর গায়ে-বেদনায়, প্রয়াণে;
বিস্তারিত
পথিক
তোমার বাস কোথায় গো পথিক, দেশে না বিদেশে আমি তোমায়
বিস্তারিত
নদী এবং নদীরা
হ্যাঁ, মেয়েটির নাম ছিলÑ নদী! পারভীন জাহান নদী। হয়তো আরও
বিস্তারিত