পেটের পাঁচ রোগে ওজন বাড়ে

ভারী একটা পেট ও মোটা স্বাস্থ্য নিয়ে যারা যন্ত্রণায় ভোগেন, তাদের অনেকেই নিজেদের ওজন নিয়ন্ত্রণে প্রচুর চেষ্টা করেন। কিন্তু কিছুতেই কিছু হয় না। উল্টো অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। কিন্তু ওজন কমানোর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ হল খাবার কত ভালো হজম হচ্ছে। অনেকে ডায়েট মেনে এমন কিছু খাবার খান, যাতে তারা মনে করেন ওজন কমবে। কিন্তু পরে দেখা যায় সেই খাবার পেটে একদমই হয় না। ফলে ওজন বেড়েই চলে। চলুন তবে দেখে নেই কোন কোন সমস্যার কারণে আপনার ওজন কমছে না।

অ্যাসিডিটি: আজকের দিনে এই সমস্যায় কে না ভোগেন। আর এই সমস্যা কিন্তু হয় আমাদের খাদ্যাভাস থেকেই। বুকজ্বালা, বমি, পেটে ব্যথা- সবকিছুর পেছনে রয়েছে এই অ্যাসিডিটি। এখান থেকেই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা হয়। তখন ওজন কমানো আরও সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। অনেকের বেশি খাওয়ার অভ্যাসও রয়েছে। সেখান থেকেও হতে পারে অ্যাসিডিটি।

আলসার: দীর্ঘদিন ধরে অ্যাসিড হতে হতে অন্ত্রে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। ফলে অল্পেই ইনফেকশন, অ্যাসিড হয়। আর আলসার হলে খুব অল্প গ্যাপে খাবার খেতে হয়। এতেই ওজন বেড়ে যায়।

ব্যাকটেরিয়া জন্মালে: খাবার থেকেই পেটের যাবতীয় সমস্যা হয়। সেখান থেকেই জন্মায় ব্যাকটেরিয়া। ব্যাকটেরিয়া পেটে মিথেন গ্যাস তৈরি করে। সেখান থেকে মেটাবলিজম কমে যায়। ফলে বারবার খিদে পায় এবং ওজন দ্রুত বাড়তে থাকে।

ইরিটেবল বোয়েল সিনড্রম: গ্যাসট্রোইনটেস্টিনাল এর সমস্যা থেকেই এর সূত্রপাত। যদিও ভালো ব্যাকটেরিয়াই এর কারণ। কিন্তু জ্বালা, ক্ষতের সমস্যা, পেটজ্বালা থেকেই যায়। সেখান থেকে ঠান্ডা জাতীয় খাবার কোল্ডড্রিংক, আইসক্রিম বেশি খাওয়া হয়। যা পরবর্তীতে সমস্যা তৈরি করে এবং ওজন বাড়ে।

স্টেরয়েডের প্রভাব: অনেকেই দীর্ঘদিন ধরে স্টেরয়েড নেন। এর ফলে ওজন বাড়ে ছাড়া কমে না। এছাড়া থাইরয়েডের ওষুধ খেলেও ওজন বাড়ে।


বাবা-মায়ের তালাকে ‘মোটা হয় শিশুরা’
যাদের বাবা-মা এক সঙ্গে থাকে তাদের তুলনায় যেসব শিশুর বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
কম বাজেটে ভ্রমণ! জেনে নিন
পকেট ফাঁকা, টাকার দেখা নেই বেশ কতদিন, কিন্তু কোথাও তো
বিস্তারিত
যে কারণে অকালে চুল ঝরে
টাক পড়ে যাওয়া এখন খুব স্বাভাবিক একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।
বিস্তারিত
কম ঘুমালে হবে যেসব ক্ষতি
সারা দিন কাজ ও নানা রকম চাপের কারণে অনেকে চার-পাঁচ
বিস্তারিত
ফরমালিনমুক্ত আম চিনবেন যেভাবে
বাজারে আম কিনতে গেলে বিপাকে পড়ে যান আপনি। ঠিক বুঝে
বিস্তারিত
সন্তান প্রতিবন্ধী হতে পারে স্বামী-স্ত্রীর
মহান আল্লাহতায়ালা প্রত্যেক পুরুষের জন্য স্ত্রী হিসেবে একজন নারীকে মনোনিত
বিস্তারিত