উন্মাসিক চৈত্রকাল

চারদিকে চৈত্র ঝলসানো চোখ
খেয়ালি রোদে খাঁ-খাঁ মাঠ, 
অসংখ্য ফাটলে খানখান হৃদয়
আর যারা ছিল নিপুণ সন্ন্যাসী,
ব্রত ভেঙে তারা আজ পিতা
হাটবাজার নিয়ে গেছে গেরুয়া রঙ-

আমরা যারা গৃহে ছিলাম, ভালোবেসে-
দুধ-ভাতের চিন্তায়, সাথে স্বপ্ন জাহাজ
এবং ফুল-পাখি-নদী প্রেমে যারা ছিলাম
করুণ স্তব্ধতায় ডুবে আছি আকণ্ঠ
পৈশাচিক পীড়নে কাঁদে মা, কোলের শিশু
কাঁদে শুভ্র মন বিপুল আর্তনাদে-

আমরা অরণ্যে চলে যেতে চাই
ঝলসানো চৈত্র আর শ^াপদ লোকালয় 
এবং মানুষের দাঁতাল থাবা থেকে
যেতে চাই গেরুয়া রঙে, বৃক্ষছায়ায়...

মূলত আমরা পালাতে চাই এ উন্মাসিক চৈত্রকাল থেকে।


দীপা
পহেলা ফাল্গুন। বইমেলায় শাড়ি পরিহিতা সুশ্রী একজন লেখিকা ৩০১ নম্বর
বিস্তারিত
মেঘ শুধু মেঘ নয়
মেঘ শুধু মেঘ নয়; খুঁজেছো কি মেঘে তুমি কিছু  শাদা
বিস্তারিত
আলো অন্ধকারে যাই
ভ্যান থেকে যখন নামল সে, বহু মানুষ দাঁড়িয়ে আছে। সন্ধ্যা
বিস্তারিত
চেতনা বিকাতে পারি
  যিনি চেতনাবাজ হয়ে বেঁচে আছেন এক মেরদ-ী শিক্ষকের কথা বলি যিনি
বিস্তারিত
টুপটুপ রক্ত ঝরছে
কপালে লাল টিপ সেঁটে দৌড়ে ছুটছে লাল ষাঁড় শিং ছুঁয়ে
বিস্তারিত
মায়ের শরীরের একাংশ আমি
আমার অস্তিত্বের অঙ্কুরোদগম হয়েছিল এক মায়াবী নারীর গূঢ় কর্ষিত জঠরে
বিস্তারিত