সওয়াল জওয়াব

প্রশ্ন : আমি পাশের গ্রামের এক চাষিকে ১ লাখ টাকা দিয়েছি এই শর্তে যে, তিন মাস পর বোরো ধানের মৌসুমে সে আমাকে ৫০০ টাকা দরে ২০০ মণ ধান দেবে। টাকা দেওয়ার এক মাস পরই আমার মা অসুস্থ হয়ে যান। ফলে চিকিৎসার জন্য টাকার প্রয়োজন দেখা দেয়। তখন আমার মামার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা এ কথা বলে ধার নিলাম যে, দুই মাস পর ওই কৃষক ২০০ মণ ধান দিলে আমরা দুজনে ১০০ মণ করে ভাগ করে নেব। আর এভাবে তার ঋণ পরিশোধ হয়ে যাবে। মামার সঙ্গে আমার এ ঋণচুক্তিটি কি ঠিক হয়েছে? দয়া করে জানালে কৃতজ্ঞ থাকব।

 

উত্তর : আপনার মামা থেকে ওইভাবে টাকা নেওয়া বৈধ হয়নি। এটাকে ঋণ বলা হলেও বাস্তবে এটি ধানের আগাম খরিদচুক্তি, ঋণচুক্তি নয়। কারণ এক্ষেত্রে আপনি মামার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা নিয়েছেন এই শর্তে যে, পরবর্তী সময়ে আপনি এর বিনিময়ে চাষি থেকে আপনার পাওনা ধানের অর্ধেক তাকে দেবেন। সুতরাং আপনার মামার সঙ্গে ওই টাকার বিনিময়ে ধানের আগাম ক্রয় চুক্তি করা হলো। অথচ চাষি থেকে এখনও আপনি ওই ধান হস্তগত করেননি। আর ক্রয়কৃত পণ্য হস্তগত করার আগেই তা বিক্রি করে দেওয়া জায়েজ নয়। হাদিসে এটি থেকে নিষেধ করা হয়েছে। আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি কোনো খাদ্যদ্রব্য ক্রয় করল, তা হস্তগত করার আগেই যেন সে তা বিক্রি না করে। (মুসনাদে আহমদ : ২৪৩৮)। সুতরাং এ চুক্তিটি বাতিল করে দেওয়া জরুরি। (আলবাহরুর রায়েক : ৬/১৬২; বাদায়েউস সানায়ে : ৪/৪৫১; তাবয়ীনুল হাকায়েক : ৪/৫১৬)।


মুম্বাইয়ে ভবন ধস, নিহতের সংখ্যা
মুম্বাইয়ে চার তলা একটি ভবন ধসে ১৪ জন নিহত ও
বিস্তারিত
২৩ বার ছুরিকাঘাতের শিকার খাদিজা
পাকিস্তানের খাদিজা সিদ্দিকী এবং শাহ হুসেইনের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক শেষ
বিস্তারিত
দক্ষিণ এশিয়ার বন্যা পরিস্থিতি :
মৌসুমী বন্যায় সৃষ্ট ভারী বর্ষণ ও ভূমিধসে ভারত, নেপাল ও
বিস্তারিত
একসঙ্গে ৩ ভাইবোনকে গলা কেটে
নরবলি দেওয়ার প্রবণতা ভারতে নতুন করে ছড়িয়ে পড়েছে। পরিবার কর্তৃক
বিস্তারিত
সরকারি অফিসে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার
ভারতে সরকারি অফিসে কম্পিউটারের পাশাপাশি মোবাইলে ফেসবুক বা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার
বিস্তারিত
ভারতের চন্দ্রযান-২ উৎক্ষেপণ স্থগিত
যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে নির্দিষ্ট সময়ে মহাকাশে পাড়ি জমাতে পারল না
বিস্তারিত