শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন সম্পন্ন

রশিদ তালুকদার চেয়ারম্যান, ইমরান ও মুক্তা ভাইস চেয়ারম্যান

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা বাস্তবায়নের পর থেকেই নির্বাচনকে নিয়ে ছিল ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা। সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে উৎসব আনন্দে ১৮ জুন অনুষ্ঠিত হলো এ উপজেলার নির্বাচন। বিচ্ছিন্ন কয়েকটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হয় ভোটগ্রহণ।

শায়েস্তাগঞ্জের ইতিহাসে উৎসব আনন্দের এদিন সকাল ৯টা থেকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ১৮টি কেন্দ্রের ১১৪টি বুথে ভোটগ্রহণ শেষ হয় বিকেল ৫টায়। 

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।

চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হবিগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল নৌকা নিয়ে, স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা আলহাজ গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলাল আনারস ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলী আহমেদ খান ঘোড়া প্রতীক নিয়ে একে অপরের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। 

এর মধ্যে রাতে বেসরকারিভাবে প্রকাশিত ফলাফলে নৌকা প্রতীকে আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল ১৬ হাজার ৯৩৬ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলাল আনারস প্রতীকে ৮ হাজার ৮৮৮ ভোট পান। ভোটের ব্যবধান ৮ হাজার ৪৮।

ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর শত শত নেতাকর্মী, সমর্থক নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবালকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। ফুলেল ভালবাসায় তিনি সিক্ত হন। শহরজুড়ে আনন্দ উৎসব শুরু হয়। 

অপর প্রতিদ্বন্দ্বী আলী আহমেদ খান ঘোড়া প্রতীক নিয়ে ২৩৬৮ ভোট পেয়েছেন। তবে তিনি ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে বিকেল পৌনে ৫টায় স্থানীয় প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেন।

এদিকে চেয়ারম্যানদের ন্যায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি গাজিউর রহমান ইমরান (মাইক), বিএনপি নেতা সৈয়দ তানবির আহমেদ জুয়েল (চশমা), আওয়ামী লীগ নেতা বদরুল আলম দিপন (টিউবওয়েল), খন্দকার শফিক মিয়া সরদার (তালা), মো. আব্দুল মতিন মাষ্টার (বই) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেরা সুলতানা হ্যাপী (কলস), মমতাজ বেগম ডলি (প্রজাপতি), রুবিনা আক্তার (ফুটবল), পারভিন আক্তার (হাঁস) ও মুক্তা আক্তার (পদ্মফুল)  প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। 

এর মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান(পুরুষ) গাজিউর রহমান ইমরান (মাইক) ১০ হাজার ৪৪৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (টিউবওয়েল) বদরুল আলম দিপন পেয়েছেন ৬ হাজার ৫৩৮। ৮ হাজার ১৭৬ ভোট পেয়ে মুক্তা আক্তার (পদ্মফুল) মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেরা সুলতানা হ্যাপী (কলস) পেয়েছেন ৭ হাজার ৬৯২ ভোট।  

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ৪৫ হাজার ৬৬৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২২ হাজার ৬২১ এবং নারী ভোটার ২৩ হাজার ৪৫ জন। 

হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা জানান, ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পেরেছেন। যেহেতু জেলায় একটিমাত্র উপজেলা পরিষদের নির্বাচন ছিল, সেই ক্ষেত্রে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের অভাব ছিল না। সবার আন্তরিক প্রচেষ্টায় সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

২০১৪ সালের ২৯ নভেম্বর হবিগঞ্জের নিউফিল্ড মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভায় শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলার দাবি জানান হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবু জাহির। পরে ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তেজগাঁওয়ে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) বৈঠকে ৪৯২তম উপজেলা হিসেবে শায়েস্তাগঞ্জকে অনুমোদন দেয়া হয়।


ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ফুলবাড়িয়া বাস্ট্যান্ড ও সদর উপজেলার সুলতানপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায়
বিস্তারিত
১৩ দিনে ৬৮০ কর্মকর্তা কর্মচারী
গত ১৩ দিনে ৮১ প্রকৌশলীসহ ৬৮০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি করেছে তিতাস
বিস্তারিত
রাজধানীতে ৩ রোহিঙ্গা নারীসহ ১০
রাজধানী ঢাকার কেরাণীগঞ্জ থেকে তিন রোহিঙ্গা নারীসহ মানব পাচারকারী চক্রের
বিস্তারিত
ব্যাগে মিলল শিশুর কাটা মাথা,
নেত্রকোনায় এক শিশুর গলাকাটা মাথা নিয়ে ঘুরাফেরা করার সময় জনতার
বিস্তারিত
খালেদার মুক্তিতে আন্দোলনের প্রস্তুতি নিন:
বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকারের মামলা-হামলায় তার
বিস্তারিত
এরশাদের সমাধি অঙ্গনে দিনব্যাপী কোরানখানি
সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা পল্লীবন্ধু মরহুম
বিস্তারিত