মার্কিন ড্রোন ভূপাতিতের জের ইরান-যুক্তরাষ্ট্র পাল্টাপাল্টি সাইবার হামলা

ইরানের রেভ্যুলুশনারি গার্ডের কর্মকর্তা আমির আলী হাজিজাদেহ সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন। পাশে বিধ্বস্ত মার্কিন ড্রোনের কিছু অংশ

ওমান উপসাগরে বৃহস্পতিবার তাদের একটি অত্যাধুনিক ড্রোন বিধ্বস্ত করার বদলা হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি সামরিক পথ না নিলেও ইরানের বিরুদ্ধে বড় ধরনের সাইবার হামলা শুরু করেছে।
যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক নির্ভরযোগ্য মিডিয়া রিপোর্টে বলা হচ্ছে, যেসব কম্পিউটার ব্যবহার করে ইরানের রকেট এবং ক্ষেপণাস্ত্র প্রক্ষেপণ ব্যবস্থা পরিচালিত হয় সাইবার হামলা চালিয়ে সেগুলো অকেজো করে দেওয়া হয়েছে। তবে ওই হামলায় ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থায় কতটা ক্ষতি হয়েছে, তা নিয়ে নিরপেক্ষ সূত্র থেকে নিশ্চিতভাবে কিছু জানা যায়নি। যুক্তরাষ্ট্রের মিডিয়া রিপোর্টে বলা হচ্ছে, ওমান উপসাগরে তেলের ট্যাংকারে মাইন হামলার বদলা হিসেবে বেশ কয়েক সপ্তাহ আগেই ইরানের বিরুদ্ধে সাইবার হামলা চালানোর পরিকল্পনা করে যুক্তরাষ্ট্র।
বিশেষ করে ইরানের ইসলামিক রেভোলিউশনারি গার্ডের (আইআরজিসি) অস্ত্র ব্যবস্থা টার্গেট করার পরিকল্পনা করা হয়। ইরানের সেনাবাহিনীর ক্ষমতাধর এ ইউনিট বৃহস্পতিবার মার্কিন ড্রোনটি ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ধ্বংস করে। হরমুজ প্রণালিতে ট্যাংকারে হামলার জন্যও আমেরিকা এ আইআরজিসিকেই দায়ী করছে।
ওয়াশিংটন পোস্ট এবং মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি বলছে, মার্কিন সাইবার হামলায় আইআরজিসিরের অস্ত্র ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়েছে। নিউইয়র্ক টাইমস বলছে, অন্তত কিছু সময়ের জন্য ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থাকে বিকল করে দেওয়ার টার্গেট করা হয়।

ইরানের পাল্টা সাইবার হামলা
মার্কিন অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বিভাগ শনিবার সাবধান করে যে, ইরান যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সাইবার হামলা জোরদার করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার নিরাপত্তা এবং অবকাঠামো সংস্থার পরিচালক ক্রিস্টোফার ক্রেবস বলেছেন, ‘ইরানের সরকার এবং তাদের সহযোগীরা’ যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সরকারি সংস্থা এবং শিল্পপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে সাইবার হামলা চালাচ্ছে।
মি ক্রেবস বলেন, ‘স্পিয়ার ফিশিং’ এবং ‘পাসওয়ার্ড স্প্রেইংয়ের’ মতো কৌশল কাজে লাগিয়ে ইরান অনলাইনে ‘বিধ্বংসী ওয়াইপার হামলা’ শুরু করেছে। ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজ ব্যবস্থা হ্যাকিংয়ের চেষ্টা করছে ইরান।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কী বলছেন?
ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থা বিকল করতে সাইবার হামলা নিয়ে কোনো কথা বলেননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। শুক্রবার তিনি বলেন, ইরানের ওপর হামলা চালানোর সিদ্ধান্ত তিনি শেষ মুহূর্তে স্থগিত করেন, কারণ তার উপদেষ্টারা তাকে জানান ওই হামলায় দেড়শ ইরানি নাগরিকের মৃত্যু হতে পারে।
শনিবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ইরানের সঙ্গে তিনি মীমাংসা বৈঠকে বসতে চান। তিনি বলেন, ‘ইরান যদি সমৃদ্ধ একটি দেশ হতে চায়, আমার তাতে কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু সেটি তারা কখনও হতে পারবে না যদি তারা আগামী পাঁচ-ছয় বছরের ভেতরে পারমাণবিক বোমা তৈরির চিন্তা করে।’ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, তিনি ইরানের ওপর বাড়তি নিষেধাজ্ঞা চাপানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং দ্রুত তা কার্যকর করা হবে।

মার্কিন ড্রোন এবং ইরান
ইরানের রেভ্যুলুশনারি গার্ড বলছে, মার্কিন ড্রোন বিধ্বস্ত করে তারা ‘পরিষ্কার বার্তা’ দিতে চেয়েছে যে, ইরানের সীমান্ত ‘আমাদের রেড লাইন।’
বাহিনীর একজন সিনিয়র কর্মকর্তা আমির আলী হাজিজাদেহ বলেন, ৩৫ যাত্রীসহ আমেরিকার আরেকটি সামরিক বিমানও ড্রোনটির কাছাকাছি ছিল। ‘আমরা সেটিকেও ধ্বংস করতে পারতাম; কিন্তু তাতে মানুষ থাকায় আমরা তা করিনি।’


তাওয়াফের কিছু ভুলত্রুটি
আয়েশা (রা.) বলেন, ‘আমি কাবা ঘরে ঢুকে সালাত আদায় করতে
বিস্তারিত
ইসলামে নৈতিকতার চর্চা
ইসলাম মহান আল্লাহপাকের দেওয়া এক পূর্ণাঙ্গ পরিপূর্ণ ও প্রগতিশীল জীবন
বিস্তারিত
ভিন্নমত পোষণকারীদের প্রতি আচরণবিষয়ক সেমিনার
গেল ১২ জুলাই সন্ধ্যায় ফিকহ একাডেমি বাংলাদেশ কর্তৃক ফিকহবিষয়ক চতুর্থ
বিস্তারিত
বিদায় হজের ভাষণে জানমালের নিরাপত্তার
মহানবী (সা.) তাঁর বিদায় হজে আরাফার দিন উরনা উপত্যকায় নিজ
বিস্তারিত
মুসলিম জাতির পিতা ইবরাহিমের সমর্পিত
হজের মৌসুম এলে হৃদয়পটে যার স্মৃতি ঝলমল করে তিনি ইবরাহিম
বিস্তারিত
তামাত্তু হজের সহজ নিয়ম
পবিত্র হজ ইসলামের মৌলিক ইবাদতের মধ্যে অন্যতম। এই গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত
বিস্তারিত