টাকার প্রতি মানুষের লোভ থাকাটাই স্বাভাবিক

একজন অসৎ ব্যক্তি কখনোই দেশপ্রেমিক হতে পারে না

ফাহাদ মোহাম্মদ, ট্রাফিক সার্জেন্ট, বাংলাদেশ পুলিশ

দিন দিন পরিচিত মানুষের সংখ্যা যত বাড়ছে সেই অনুযায়ী শ্রদ্ধা করা যায় এমন মানুষের সংখ্যা খুব একটা বাড়ছে না। ক্ষেত্রবিশেষে আগে শ্রদ্ধা করতাম এমন মানুষের তালিকা সংক্ষিপ্ত হচ্ছে। তাই বেশিরভাগ সময় একাই থাকি। বই পড়ি, মুভি দেখি আর ফেসবুক খুললে দেখি চামচামি।

চামচামি আপনাকে এতোটা নিচে নামিয়ে দিবে যে, আমার নিজস্বতা বলে কিছু থাকে না। আপনার নেতা শতভাগ অসৎ যেনেও আপনি থাকে সৎ দেশপ্রেমিক বলে সমর্থন দিবেন। তিনি দুশ্চরিত্রের অধিকারী যেনেও বলবেন নেতার চরিত্র ফুলের মতো পবিত্র। আপনার সিনিয়র কতটা ভালো বা সৎ সেটা জেনেও আপনি তার প্রসংশা করেন। সেটাও আমাদের হজম করতে হয়।

একজন অসৎ ব্যক্তি কখনোই দেশপ্রেমিক হতে পারে না। মানুষ টাকার জন্য জীবন দেয় আবার দেশের জন্যেও জীবন দেয়। কিন্তু দেশের জন্য টাকার মায়া ত্যাগ করতে পারে কয়জন? বরং দেশের প্রতি ভালবাসা ত্যাগ করতে পারলেও টাকার মায়া ছাড়তে পারে না। টাকা পৃথিবীর সব থেকে শক্তিশালী বস্তু যা দিয়ে এক মাত্র মৃত্যু ছাড়া সব ক্রয় করা যায়। টাকার প্রতি মানুষের লোভ থাকাটাই স্বাভাবিক।

যারা টাকার জন্য রিক্সা চালায় তাদের বলি রিক্সাওয়ালা, টাকার জন্য যারা চুরি করে তাদের বলি চোর। রাস্তায় মালামাল বিক্রয় কারীকে বলি হকার। যারা দেহ ব্যবসা করে তাদের বলি পতিতা। কিন্তু যারা দুর্নীতি করে টাকা উপার্জন করে তাদেরকে কেন দুর্নীতিবাজ বললে তাদের ইজ্জতে লাগে? ভাই যেই জিনিষটা আপনাকে আঙুল ফুলে কলাগাছ হতে সাহায্য করেছে তাকে একটু শ্রদ্ধা করুন। নিজের নামের পাশে নিশ্চিন্তে লাগাতে পারেন দুর্নীতিবাজ। চাকরির শুরুতেই একজন মুরব্বি বলেছিলেন, যেই কর্ম আপনাকে অন্ন দেয় তাকে কখনোই ছোট করে দেখবেন না। আমি আমার কর্মকে ছোট করে দেখি না৷

ছোট ছোট উদ্যোগ পারে দেশটাকে বদলাতে। আপনি যদি দেশ বদলাতে চান তাহলে নিজে কিছু করুণ। পুলিশকে পালটাতে চান, বিসিএস দিয়ে পুলিশে আসুন। রাজনীতিকে পালটাতে চান, আজ থেকে রাজনীতি শুরু করুণ। আমি যে সেক্টরটা পালটাতে চান সেখানে জয়েন করুণ। দেশ একদিনে পালটাবে না। ধীরে ধীরে আপনি শুরু করুন না।

ফেসবুকে লেখালেখি করে কিছু পরিবর্তন করা যায় না জেনেও লেখি। কারণ একজন মানুষও যদি আমার লেখার মাধ্যমে সচেতন হয় সেটাই আমার সার্থকতা। বেশিরভাগ আমার লেখা গ্রহণ করবেনা। আমার মতামত গ্রহণ করবে না। আমাকে নিয়ে বন্ধু মহলে হাসাহাসি করেবে জেনেও নির্বোধের মতো লিখি। শুধু এই লাইনটা অন্তরে গেতে গেছে বলে,"আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি"। ভালবাসার জিনিসের কি ক্ষতি করা যায় বলেন?

বিঃদ্রঃ ভাই মনে কষ্ট নিয়েন না। দিন শেষে বিজয় আপনাদেরই হবে। ত্যাগী বলেন, সততা বলেন সেটা শুধু আত্মার সন্তুষ্টি আর দেশের জন্য একটু ভালবাসা।

লেখক- ফাহাদ মোহাম্মদ, ট্রাফিক সার্জেন্ট, বাংলাদেশ পুলিশ।


রক্ত জমাট বাঁধা: করোনায় মৃত্যুর
পঞ্চাশ বয়সের একজন ভদ্রলোক হাসপাতালে ভর্তি হন কভিড ১৯ পজিটিভ
বিস্তারিত
উন্নয়ন আর পরিবেশ রক্ষা, দুটি
উন্নয়ন আর পরিবেশ রক্ষা- দুটি কি একই সাথে সম্ভব? যদি
বিস্তারিত
করোনা প্রতিরোধে অন্তরের অসুখ নিরাময়
মানুষের অসুস্থতা প্রধানত দুই প্রকার, শারীরিক ও মানসিক। বিশ্বস্বাস্থ সংস্থা
বিস্তারিত
আমাদের চার পাশে হাজারো দু’পায়ের
আপনি পবিত্র রমজান মাসে কতজন লোককে সাহায্য করেছেন? একজন? দুইজন?
বিস্তারিত
সাংবাদিকতা ছাড়া কিছুতেই আর আনন্দ
বেশিরভাগ প্রতিবেদন প্রচার হবার পরে এক শ্রেণির তীর্যক তীর প্রতিহত
বিস্তারিত
প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ বর্তমান সংকট
  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন উন্নতির দিকে এগিয়ে চলছিল
বিস্তারিত