বিধ্বস্ত এই তারুণ্য!

নিষিদ্ধ নেশার কালো পথ এবার ছাড়তেই হবে

যারা মারছে, যারা মরছে, যারা মৃত্যুর প্রহর গুনছে- এরা সবাই তো কেউ না কেউ আপনার আমার অতি আদরের সন্তান। ক্রসফায়ারের মত এতবড় একটা ভয়াবহ ঘটনায় করুণ মৃত্যুর পরেও একটা তরুণের লাশকে ঘৃণাভরে থুথু ছিটাতে, কিংবা লাইন ধরে ‘জঘণ্য খুনী’কে দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষের ভীড়! উহ, কল্পনাও করা যায় না।

আমি কষ্টে নির্বাক হয়ে গেছি দশ মাস নিজের জঠরে ধারণ করা মা ও অতি আদুরে এ-ই ছেলেটার লাশটাকে দাফনের জন্য কারও একটু করুণা বা সাহায্য পায়নি। অনেকেই এ-ই জন্মদাত্রী মা’কেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে!

কবরের একটু মাটিও এ-ই তরুণের ভাগ্যে জুটল না! শুনেছি, নেশার টাকা যোগাড় করতে নিহত ছেলেটা তার মাকেও বেশ ক’বার মেরেছে। বরগুনার মত ছিমছাম ছোট্র শহরটা কোপাকুপি, খুনোখুনি, রক্তারক্তি, গালাগালি, ভয়ার্ত, বিভৎস্য নারকীয়তার এক অসভ্য জনপদের খ্যাতি পেয়ে গেল কয়েক মিনিটের ঘটনায়।

অথচ শান্তিপ্রিয়, সংগ্রামী, অতিথিপরায়ণ এ-ই সাগরপাড়ের জেলাটার এ জাতীয় বদনাম তেমন শোনা যায়নি। এ-ই দেশের বহু তরুণকে ‘মুরগী মিলন’, ‘কুত্তা লিটন’, ‘ব্যাঙা বাবু’, ‘ছেড়া আকবর’, ‘কোপা শামসু’, ‘নয়ন বণ্ড’, ‘রামদা রিফাত’- ইত্যাকার নানা কুখ্যাত ট্যাগ লাগিয়ে নির্মম পরিণাম ভোগ করতে হয়েছে, কিংবা হবার অপেক্ষায় রয়েছে।

যুক্তি আছে, এদের পেছনে নাকি মদদদাতারা আছে। কিন্তু প্রশ্ন হলো, জন্ম দিয়ে ছেড়ে দেয়াই কি বাবা মা'র কাজ? এ-ই সমাজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা গুরু, সমাজ ব্যবস্থা কোন কিছুই কি এদের শোধরানোর দায়িত্ব পালন করবে না? বরগুনার দুটো তরুণের করুণ মৃত্যু দেশটাকে কাঁপিয়ে দিল। এর পরেও ছেলেদের হাতে খেলনা পিস্তলের মত চাইনিজ রাইফেল, মুড়ি মুড়কির মত গাঁজা ইয়াবা, কিংবা ছুরি চাপাতি সাপ্লাইয়ের কাজ তলে তলে ঠিকই চলেবে।

একটা ঘটনা ঘটলেই মিডিয়ার হুড়োহুড়ি, দোষারোপের ছড়াছড়ি, দায় এড়ানোর মহড়া চলতেই থাকে। অথচ এই বিপন্ন তারুণ্যকে সুনাগরিক বানানোর উপদেশ দেবার চেয়ে তার মেধা ও যোগ্যতাকে মস্ত লাঠিয়াল বানানোর চেষ্টার কোন কমতি নেই। আর কেউ পাশে থাক বা না থাক, এই সব জঞ্জালের মধ্যেও খুঁজতে হবে আলোর পথ। Enough is Enough. আসুন, সবাই ভুল শোধরাতে ব্যস্ত হই।

লেখক- মো. নুরুজ্জামান, সাবেক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, বরগুনা।


মোহিত কামালের টুকরো গল্প ‘উপকার’
একা একা ঘাস আর গাছের  কচি কচি লতাপাতা খাচ্ছিল জেব্রা।
বিস্তারিত
তামাক ও নিকোটিন থেকে তরুণদের
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ঘোষিত বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস আজ ৩১
বিস্তারিত
রক্ত জমাট বাঁধা: করোনায় মৃত্যুর
পঞ্চাশ বয়সের একজন ভদ্রলোক হাসপাতালে ভর্তি হন কভিড ১৯ পজিটিভ
বিস্তারিত
উন্নয়ন আর পরিবেশ রক্ষা, দুটি
উন্নয়ন আর পরিবেশ রক্ষা- দুটি কি একই সাথে সম্ভব? যদি
বিস্তারিত
করোনা প্রতিরোধে অন্তরের অসুখ নিরাময়
মানুষের অসুস্থতা প্রধানত দুই প্রকার, শারীরিক ও মানসিক। বিশ্বস্বাস্থ সংস্থা
বিস্তারিত
আমাদের চার পাশে হাজারো দু’পায়ের
আপনি পবিত্র রমজান মাসে কতজন লোককে সাহায্য করেছেন? একজন? দুইজন?
বিস্তারিত