মাঝ রাতে মির্জা গালিবের শের

আরেক বার দেখা হলে
অশুদ্ধ কিছু হবে না মহাভারত,
চাই কী খুলেও যেতে পারে
বাঁশঝাড়ে ছাওয়া নিবিড় পথ।
বসা যেতে পারে রেস্তোরাঁয় চুপচাপ
ভেবে দেখোÑ অতঃপর
রিকশা চড়েও জুড়ানো যায় মনস্তাপ।
তারপর বৈশিষ্ট্যহীন দোতালা বাড়িতে
দেখতে যাওয়া যায় হোসেনের চিত্রকলা
যে বিষয় রেখা হয়ে ফুটে তবে যায় না বলা,
না হয় ফিরলে তুমি নির্জন ফ্ল্যাটে
টিপসি হয়ে খানিক,
দানাপানি দেওয়া হয়নি সারা দিনমান
পিঞ্জিরায় ঝিমোয় তোমার শালিক।
দ্যাখোÑ ছবির হাট থেকে কত দূরে আছি
সওদা তো করতে যাওয়া যায় ফের,
হোটেলে ফিরে মাঝ রাতে আমি না হয়
শুনবো মির্জা গালিবের শের।


প্রসন্ন সাঁঝের পাখি ও ভয়াল
পাটাতনে বসে আহত পালাসি-গাঙচিল বিস্ফারিত নয়নে আমাদের দেখছে। ধীরে ধীরে
বিস্তারিত
জল : ০১
কাজল কাননে পায়ের আলোতে রবির ঘুম ভাঙে রোজ যাপিত সংসার সুখ-দুখে
বিস্তারিত
১৪ বছর বয়সি
রেখা এখন ক্লাস টেন, ক্লাস সিক্স থেকে শুরু হওয়া অপেক্ষা
বিস্তারিত
তুমি যদি এসে
এইসব শিশির ভেজা ফসলের মাঠ নতুন ভোরের সোনালি রোদ্দুর  কৃষকের হাসিমাখা
বিস্তারিত
দেহের নিমন্ত্রণে
কেউ ডাকে দেহের নিমন্ত্রণে কেউ প্রেমেরÑ সঙ্গোপনে কেউবা নিছক খেয়ালের বশে
বিস্তারিত
গাজী আবদুল্লাহেল বাকীর রুবাইয়াতে রূপ
গাজী আবদুল্লাহেল বাকীর রুবাইয়াত মিলবিন্যাস, ছন্দ, বিষয়-বৈচিত্র্য ও আঙ্গিক শোভনে
বিস্তারিত