সওয়াল

প্রশ্ন : বারো বছর ধরে কাজের উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম থেকে টেকনাফ যাতায়াত করছি। সফরে কসর করতে হয় এ মাসআলা আমি জানতাম। কিন্তু কখনও কখনও সফরের সময় তা আমার স্মরণ থাকত না। তাই পথিমধ্যে কোনো বাসস্ট্যান্ডে গাড়ি থামলে আসরের সময় হলে চার রাকাত, মাগরিব হলে তিন রাকাত আদায় করতাম। মুফতি সাহেবের কাছে জানতে চাচ্ছি, আমার জানা থাকা সত্ত্বেও এত বছর ধরে আমি যে চার রাকাত বা তিন রাকাত পড়েছি এর কী হুকুম? ওই নামাজগুলো আমাকে কি ফের আদায় করে নিতে হবে? আমার তো সব স্মরণও নেই। বিস্তারিত জানালে খুশি হব।
আবু তাহের, লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম

উত্তর : সফর অবস্থায় চার রাকাত ফরজ নামাজ দুই রাকাত পড়া ওয়াজিব। ইচ্ছাকৃত চার রাকাত পড়া গোনাহ। তবে চার রাকাত পড়ে নিলেও ফরজ আদায় হয়ে যায়। আর ভুলবশত চার রাকাত পড়ে ফেললে সাহু সিজদা ওয়াজিব হয়। তাই সামনে থেকে সতর্ক থাকবেন। আর চার রাকাত পূর্ণ করলে যেহেতু ফরজ আদায় হয়ে যায়; তাই পেছনের নামাজ নিয়ে দুশ্চিন্তা করবেন না। নামাজ শুদ্ধ হয়েছে। অবহেলাবশত যা হয়েছে তার জন্য তওবা-ইস্তেগফার করে নেবেন।
উল্লেখ্য, চার রাকাতবিশিষ্ট ফরজ নামাজের কসর দুই রাকাত। কিন্তু তিন রাকাত বা দুই রাকাতবিশিষ্ট ফরজের কোনো কসর নেই। তাই সফর অবস্থায়ও মাগরিব তিন রাকাত এবং ফজর দুই রাকাতই পড়তে হবে। (কিতাবুল আছল : ১/২৩৫; আলমাবসুত, সারাখসি : ১/২২৯; আলবাহরুর রায়েক : ২/১৩০; আদ্দুররুল মুখতার : ২/১২৮)।


উত্তম চরিত্র নিয়ে যাবে জান্নাতে
রাসুল (সা.) এর উত্তম আখলাক সম্পর্কে দোয়া করতেনÑ তিনি নিজে
বিস্তারিত
আসল ব্যাধির দাওয়াই
ঈমানি ভ্রাতৃত্ববোধ বজায় রাখা। দ্বীনের ওপর চলার ক্ষেত্রে এটা বড়
বিস্তারিত
আলমেদরে সমালোচনা
আমি মাদ্রাসার ছাত্র ও শক্ষিক ছলিাম। মাদ্রাসায় পড়ার পর আরও
বিস্তারিত
ন তু ন প্র
বই : সুবাসিত জীবনের পথ লেখক : মুহাম্মদ যাইনুল আবেদীন ইবরাহীম সম্পাদক
বিস্তারিত
পাথেয়
  ষ আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘এ হচ্ছে স্মৃতিচারণ, মুত্তাকিদের জন্য অবশ্যই
বিস্তারিত
শীতকালের তাৎপর্য ও বিধিবিধান
শরিয়তে বিধানের অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, কষ্ট বা প্রয়োজনের সময়
বিস্তারিত