এরিক এরশাদের কান্নায় ভারী হাসপাতাল

বাবা জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদকে আর জড়িয়ে ধরতে পারবেন না ছেলে এরিক এরশাদ। বাবা চিরতরে চলে গেছেন না ফেরার দেশে। পড়ে রইল শুধুই স্মৃতি। ঘনিষ্টজনদের মতে, এরিক বাবাকে একটু বেশিই ভালোবাসতেন। বাবার মৃত্যুর খবর পেয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ছুঁটে যান এরিক। এসময় তার কান্নায় ভারী হয় সিএমএইচ।

জাপার মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গাসহ অন্যরা এরিককে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু কিছুতেই শান্ত হতে পারছিল না এরিক। অল্প বয়সের এরিককে এভাবে কাঁদতে দেখে উপস্থিত অন্যরাও কেঁদে ফেলেন।

এরিক কান্নাজড়িত কণ্ঠে তার বাবার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আমার বাবা আর নেই, বাবা মারা গেছেন, কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছি না। সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ যেন বাবাকে বেহেশত দান করে।

রবিবার (১৪ জুলাই) সিএমএইচে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচএম এরশাদ। তার বয়স হয়েছিল ৮৯ বছর। প্রায় ৮ মাস ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি।

গত ২৬ জুন এরশাদের শারীরিক অবস্থার হঠাৎ অবনতি ঘটে। ওই দিনই তাকে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। এর অগে ১০ ডিসেম্বর চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে যান এরশাদ। সংসদ ভোটের মাত্র ৩ দিন আগে ২৬ ডিসেম্বর দেশে ফিরলেও নির্বাচনি ক্যাম্পেইনে যোগ দেননি। এমনকি নিজের ভোটও দিতে যেতে পারেননি সাবেক এ রাষ্ট্রপতি। এরপর ২০ জানুয়ারি আবারও সিঙ্গাপুরে যান চিকিৎসা নিতে। সেখান থেকে ফেরেন ৪ ফেব্রুয়ারি। তবে তখনো কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচিতে তাকে দেখা যায়নি। সংসদ অধিবেশনে মাত্র একদিনের জন্য হাজির হয়েছিলেন তাও হুইল চেয়ারে ভর করেই।


অতিথি পাখিদের স্থান হবে না
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের
বিস্তারিত
বিজয় দিবসে বিএনপির টানা ৫
আসন্ন বিজয় দিবস ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে টানা পাঁচ
বিস্তারিত
‘খালেদা জিয়াকে বেঁচে থাকার সুযোগ
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে জামিন না দিলে এদেশের মানুষের কাছে
বিস্তারিত
সম্মেলনের আগেই সাধারণ সম্পাদক দাবি,
দে‌শের সব‌চে‌য়ে প্রাচীন রাজ‌নৈতিক দল বাংলা‌দেশ আওয়ামী লীগ। আগামী ২১
বিস্তারিত
অঙ্গ-সহযোগী সংগঠন নিয়ে যৌথসভা ডেকেছে
কারাবন্দি দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি ও
বিস্তারিত
বিচারাধীন মামলায় সরকারের হস্তক্ষেপের প্রশ্নই
আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য, ১৪ দলের মুখপাত্র ও খাদ্য মন্ত্রণালয়
বিস্তারিত