১৩ দিনে ৬৮০ কর্মকর্তা কর্মচারী বদলি করল তিতাস

গত ১৩ দিনে ৮১ প্রকৌশলীসহ ৬৮০ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বদলি করেছে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড। এরমধ্যে সিবিএ নেতা ও কর্মচারী ৫০৭ জন।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) তিতাস বোর্ডের অ্যাকশন প্ল্যানের আওতায় দফায় দফায় বদলি করা হয়েছে প্রকৌশলীসহ ১১৭ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে।

জানা গেছে, বদলিকৃত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অনেকে ৪ থেকে ২৫ বছর ধরে প্রতিষ্ঠানটির বিতরণ এলাকার একই অফিসে কাজ করে আসছিলেন। অভিযোগ আছে, একই কর্মস্থলে বছরের পর বছর থাকায় তারা শক্তিশালী ঘুষ-দুর্নীতির সিন্ডেকেটে জড়িয়ে পড়েছিলেন।

সম্প্রতি এ ব্যাপারে একটি প্রতিবেদন দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এরপর জ্বালানি বিভাগের আদেশে প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কার শুরু করে তিতাস।

তিতাস গ্যাস সূত্র জানায়, ৪ জুলাই থেকে এ বদলি শুরু হয়েছে। ওই দিন বদলি করা হয় ১৮৭ জনকে। এরপর ৭ জুলাই ১৩৩ জনকে বদলি করে তিতাস। এর আগে এত বেশিসংখ্যক কর্মীকে একসঙ্গে বদলি করার নজির নেই প্রতিষ্ঠানটিতে।

তিতাসের এক পরিচালক বৃহস্পতিবার বলেন, যারা বছরের পর বছর একই জায়গায় আছেন তাদের বদলি করা হচ্ছে। এটি একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। এ প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, অনেকে বদলি চান, হয় না। আবার অনেককে বদলি করলেও যান না। তিনি বলেন, ‘দুদকের সুপারিশ ছিল, আমাদের বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি।

দুর্নীতি কমাতে অর্থাৎ দুর্নীতির পরিস্থিতি যাতে তৈরি না হয় সেজন্য এ উদ্যোগ নেয়া জরুরি ছিল।’ এমন উদ্যোগ আরও আগে নেয়া দরকার ছিল মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘কেউ দায়িত্ব নেয়নি। আগে কাজটি হলে, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে একটি ধারণাও তৈরি হতো যে, তিনিও বদলি হতে পারেন। একই জায়গায় বছরের পর বছর থাকা যাবে না।’

সম্প্রতি দুদক জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের কাছে পাঠানো এক প্রতিবেদনে জানায়, তিতাসের কর্মীরা একই কর্মস্থলে অনেক দিন কাজ করে সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছেন।

এর আগে এপ্রিলে তিতাসের অপেক্ষাকৃত উপরের সারির কর্মকর্তাদের বদলি করা হয়। ওই সময় প্রতিষ্ঠানটির কাঠামোর বাইরে গঠিত ১৮টি ভিজিল্যান্স টিম বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। এবার মধ্যম শ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারীর কর্মস্থল বদলে দিল প্রতিষ্ঠানটি।

তিতাস বলছে, দুদকের প্রতিবেদন ধরে ব্যবস্থা নেয়া শুরু হয়েছে। এর আগে ট্র–থ কমিশনে যাওয়া ব্যক্তিদের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে জ্বালানি বিভাগে। এরপর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা যেন দুর্নীতি করতে না পারে সে বিষয়ে নজর রাখা হচ্ছে। প্রাতিষ্ঠানিক সংস্কারের অংশ হিসেবেই এই বদলি করা হচ্ছে বলে তিতাসের প্রশাসন বিভাগের এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।


বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বিচারপতি ও প্রেস
গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় শুক্রবার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর
বিস্তারিত
শিশু আমির ফিরে পেলো পরিবার
চারদিন পর শিশু আমির হোসেন (৮) ফিরে পেলো পরিবারকে। সে
বিস্তারিত
রাজশাহীর সাংবাদিক ফটিক আর নেই
রাজশাহীর জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিক (৬০) আর নেই। বৃহস্পতিবার
বিস্তারিত
ছড়া সংসদ রংপুরের অভিষেক ও
রংপুর বিভাগের ছড়া লিখিয়েদের সংগঠন ছড়া সংসদ রংপুরের কার্যনির্বাহী কমিটির
বিস্তারিত
জাতীয় পর্যায়ে গীতা পাঠ প্রতিযোগিতার
জাতীয় পর্যায়ে শ্রী শ্রী গীতা পাঠ প্রতিযোগিতার রংপুর বিভাগীয় চূড়ান্ত
বিস্তারিত
খালেদা জিয়ার মুক্তিতে সরকারের সহযোগীতা
খালেদা জিয়া দুর্নীতির দায়ে কারাদণ্ড ভোগ করছে আর দুর্নীতির দায়ে
বিস্তারিত