৩ কোটি ৭০ লাখ সংখ্যালঘু ‘উধাও’, অভিযোগের যে ব্যাখ্যা দিলেন প্রিয়া

বাংলাদেশে ইসলামী মৌলবাদীদের নিপীড়নের শিকার হয়ে ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু- বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ‘নিখোঁজ’ হয়েছেন বলে ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করেছেন প্রিয়া সাহা। উদ্ভট এ অভিযোগের পর সারা দেশে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে করা এ নালিশের ব্যাখ্যা দিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু- বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের এই সাংগঠনিক সম্পাদক।

বাংলাদেশের দলিত সম্প্রদায় নিয়ে করা এনজিও  ‘শারি’র  পরিচালক প্রিয়া সাহা। ‘শারি বাংলাদেশ’ এর ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত এক ভিডিও বার্তায় ট্রাম্পের কাছে করা নালিশের যৌক্তিকতা তুলে ধরেছেন প্রিয়া।

প্রিয়া সাহা বলেন, ‘প্রতিবছর সরকার যে সেন্সাস রিপোর্ট বের করে সেই সেন্সাস রিপোর্ট অনুসারে দেশভাগের সময় দেশের জনসংখ্যা ছিল ২৯.৭ ভাগ। আর এখন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জনসংখ্যা হলো ৯.০৭ ভাগ। এখন দেশের মোট জনসংখ্যা প্রায় ১৮০ মিলিয়নের মতো। সেক্ষেত্রে জনসংখ্যা ‍যদি একই হারে বৃদ্ধি পেত তাহলে অবশ্যই যে জনসংখ্যা আছে সেই জনসংখ্যা অর্থাৎ ক্রমাগতভাবে যা হারিয়ে গেছে, সেই জনসংখ্যার সঙ্গে আমার তথ্যটা মিলে যায়।’

প্রিয়া আরও বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবুল বারকাত পরিসংখ্যান বইয়ের ওপর ভিত্তি করে অর্থাৎ সরকারের প্রকাশিত বইয়ের তথ্যের ওপর ভিত্তি করে গবেষণা করেছেন। সেই গবেষণায় তিনি দেখিয়েছেন, প্রতিদিন বাংলাদেশ থেকে ৬৩২ জন লোক হারিয়ে যাচ্ছে এবং কী পরিমাণে ক্রমাগতভাবে লোক হ্রাস পেয়েছে। পরিসংখ্যান বইয়ে আমি ২০১১ সালে স্যারের সঙ্গে সরাসরি কাজ করেছিলাম, যার কারণে বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবহিত।’

৩ কোটি ৭০ লাখ সংখ্যালঘু বাংলাদেশ থেকে ‘উধাও’ হয়ে গেছে এমনটা বোঝাতে চাননি দাবি করে প্রিয়া সাহা বলেন, ‘আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলি। শব্দের প্রতিটা বিষয় যে আমরা অবগত তা নয়। আমি যেটা বোঝাতে চেয়েছি সেটি হলো-এই পরিমাণে লোক থাকার কথা ছিল। যদি স্বাভাবিক জনসংখ্যা বৃদ্ধির প্রক্রিয়া, যেভাবে বাংলাদেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে সেই একইভাবে যদি ধর্মীয় সংখ্যালঘু ২৯.৭ শতাংশ থাকতো তাহলে এই জনসংখ্যা হতো। কিন্তু তা নাই। এই যে ক্রমাগতভাবে কমে গেছে, এটা যে নাই কেন সেটাই আমি বোঝাতে চেয়েছি।’

মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে এমন গুরুতর অভিযোগ দেওয়ার বিষয়ে সাংবাদিকের করা এক প্রশ্নে প্রিয়া সাহা বলেন, ‘আমি কোনো রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে চাইনি। আমি শুধু নিজের গ্রামের কথা বলি। আমার বাড়ি পিরোজপুরে। সবাই জানেন, সেখানে ২০০৪ সাল থেকে আজ পর্যন্ত ৪০টি পরিবার ছিল। এখন মাত্র ১৩টা পরিবার আছে। আমার গ্রামের মানুষগুলোকে আমি দেখেছি। এই মানুষগুলো কোথায় গেলো, কোথায় আছে, সে তো আপনাদের দেখার কথা বা আমার রাষ্ট্রের দেখার কথা। সেটা যদি আপনি আমার কাছে জানতে চান, তাহলে কেমন হবে দাদা?

এ বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ওই সাংবাদিকের আরেক প্রশ্নের জবাবে প্রিয়া বলেন, ‘আপনি আমার গ্রামে গেলে দেখে আসবেন প্রত্যেকের বাড়িঘর, কোন কোন বাড়িতে কে ছিল। প্রত্যেকের ভিটা পড়ে রয়েছে। ওই গ্রামে যদি আপনি যান প্রত্যেকের ঠিকানা, নাম, কার কী ছিল-না ছিল আপনি খুঁজে আসতে পারবেন। ৪০টি পরিবার ছিল এখন ১৩টা পরিবার আছে। ওইখানটায় যে ঘটনাগুলো ঘটেছে, ২০০৪ সালে থেকে ক্রমাগতভাবে তারা চলে গেছে।’

বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা গত ১৭ জুলাই হোয়াইট হাউসে এক অনুষ্ঠানে ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করেন, বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা মৌলবাদীদের নিপীড়নের শিকার হচ্ছেন। প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান নিখোঁজ হয়েছেন। তার নিজের বাড়িঘরও পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রিয়ার ওই বক্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয় দেশের বিভিন্ন মহলে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ‘ক্ষুণ্নের উদ্দেশ্যেই’ প্রিয়া সাহা ‘বানোয়াট ও কল্পিত অভিযোগ’ করেছেন। প্রিয়া সাহা ‘রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ’ করেছেন মন্তব্য করে  তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।


ময়মনসিংহে ট্রাক চাপায় ট্রাফিক কনস্টেবল
ঈদ উপলক্ষে ময়মনসিংহ-শেরপুর, নেত্রকোনা ও কিশোরগঞ্জ সড়কে গাড়ির চাপ বেড়ে
বিস্তারিত
বরগুনায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলার আসামী
বরগুনার আমতলী উপজেলার কাঠালিয়া তাজেম আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কুলছাত্রী ধর্ষনের
বিস্তারিত
চৌগাছায় সাপের কামড়ে বৃদ্ধার মৃত্যু
যশোরের চৌগাছায় বিষাক্ত সাপের কামড়ে ফাতিমা বেগম (৬০) নামের এক
বিস্তারিত
গোপালগঞ্জে বাসচাপায় শিশু নিহত
গোপালগঞ্জে বাসের চাপায় আমিন শেখ (১১) নামে এক শিশু নিহত
বিস্তারিত
মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী
মাগুরা-শ্রীপুর সড়কের বরিশাট চারাবটতলা এলাকায় শনিবার সকাল ৭টার দিকে সড়ক
বিস্তারিত
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সার্কেল অফিসের
কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সার্কেল অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে নানা
বিস্তারিত