যে পাঁচটি কথা বাবা-মাকে না বলাই ভালো

সন্তান লালন-পালন করা প্রত্যেক বাবা-মার সবচেয়ে বড় দায়িত্ব। তবে সন্তানকে মানুষ করার ধরনটা সবার এক রকম হয় না। কেউ হয়তো একটু বেশি বকাবকি করেন, কেউ আবার একটু কম। সন্তান বড় হতে থাকলে, একটু একটু করে বাবা-মার সঙ্গে কথা বলাও শুরু করেন। এরপর যখন নিজের ব্যক্তিত্ব তৈরি হয়, তখন বাবা-মায়ের সঙ্গে অনেকে খুব খোলাখুলি সব কথা বলেন, আবার অনেকে তা করেন না।

কিন্তু এমন কিছু কথা রয়েছে, যা বাবা-মাকে না বলাই ভালো। তবে চলুন জেনে নিই কোন কথাগুলো বাবা-মাকে বলবেন না-

১. ‘আমি তোমাকে ঘৃণা করি’- এই কথাটা যেকোনো অভিভাবকের কাছে সবচেয়ে বড় ধাক্কা। সন্তান যত বড়ই হোক বা যত ছোটই হোক- এ কথা কখনোই বলা উচিত নয়।

২. ‘তোমরা আমাকে জন্ম দিলে কেন’- সন্তানকে বকাবকি করার সময়ে বা তার কোনো বিষয়ে অসুবিধা প্রকাশ করলে অনেক সময়েই অভিভাবকদের এই কথা শুনতে হয়। বিশেষ করে বিবাহবিচ্ছেদের পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় এই অভিযোগ। কিন্তু এই কথাটাও সবচেয়ে বেশি আঘাত করে তাদের।

৩. ‘তুমি বোন বা ভাইকে বেশি ভালোবাসো’- অভিভাবকের কাছে তার সব সন্তানই সমান। হয়তো স্নেহের বহিঃপ্রকাশটা একেকজনের ক্ষেত্রে একেক রকম হয়ে থাকে। কিন্তু এটা কখনো ভাবা উচিত নয় যে, অন্য সন্তানকে তিনি বেশি ভালবাসেন এবং সেটা ভেবে তাকে কটু কথা বলা একেবারেই উচিত নয়।

৪. ‘তোমরা যদি আমার বাবা-মা না হতে তবে ভালো হতো’- সম্ভবত প্রথম কথাটির চেয়েও এই কথাটি অনেক বেশি কষ্ট দেয় অভিভাবকদের।

৫. ‘তোমাকে এখন সময় দিতে পারব না’- বাবা-মায়েরা সন্তানকে বড় করে তোলার সময়ে অনেক আত্মত্যাগ করেন। কিন্তু উল্টোটা সব সময়ে দেখা যায় না। যদি ব্যস্ততার কারণেও বয়স্ক অভিভাবককে সময় দিতে না পারা যায়, তাহলেও এভাবে কথা বলা কখনো শোভন নয়।


ভালোবাসা দিবস নিয়ে কিছু কথা
বিশ্ব ভালোবাসা দিবস! বরাবরের মত এ বছরও আমার এই দিবসটির
বিস্তারিত
আনিসুল হক ও সাঈদ খোকনকে
দেড় কোটি মানুষের শহরে মাত্র ৯ লাখ ভোটের মেয়ররা নিশ্চয়
বিস্তারিত
ভাওয়াইয়া গানের প্রাণপুরুষ মহেশ চন্দ্র
লোকগীতি মানুষ কোন স্কুলে শিখে না, স্মৃতিই হলো তাদের লোকগীতি
বিস্তারিত
একজন সৎ মানুষের পক্ষেই এমন
গত কালকের ঘটনা, এক সার্জেন্ট একটি প্রাইভেট কার সিগনাল দিয়ে
বিস্তারিত
লেখাটি বেকার শিক্ষিত সবার জন্য!
হাসিব মিয়া প্রতিদিনই সাভার থেকে ৭০ কেজি দুধ এনে ধানমন্ডির
বিস্তারিত
শুভ জন্মদিন সাংবাদিক নেতা আবু
ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) এর সভাপতি ও দৈনিক সংবাদ প্রতিদিনের
বিস্তারিত