টর্চ লাইটের সন্ধানে পাথুরে গুহায় দুর্বিষহ চার দিন!

গুহার মধ্যে বাদুড়ের বিষ্ঠা সংগ্রহ করতে গিয়ে দুই শিলাখণ্ডের মাঝে আটকে পড়েন এক যুবক। খাবার ও পানি ছাড়া দুর্বিষহ সময় কাটে তাঁর। শেষ পর্যন্ত চার দিন পর স্থানীয় সময় গত বুধবার সন্ধ্যায় তাঁকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। কম্বোডিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে পার্বত্য এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। উদ্ধার করা ওই যুবকের নাম সুম বোরা (২৮)।

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, গত রোববার গর্তে পড়ে যাওয়া টর্চ লাইট উদ্ধার করতে গিয়ে পিছলে পড়ে দুই পাথরের মাঝখানে আটকা পড়েন সুম বোরা। অনেক চেষ্টা করেও তা থেকে আর বের হতে পারেননি তিনি। এ দিকে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর কোনো হদিস পাচ্ছিল না। এরই মধ্যে তাঁর এক বন্ধু স্থানীয় চকরাই পর্বতে সুমকে আটকে থাকতে দেখেন। এরপর জানাজানি হলে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে ১০ ঘণ্টা উদ্ধার অভিযান চালিয়ে সুমকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নেওয়া হয়। প্রায় দুই শ উদ্ধার কর্মী এই অভিযানে অংশ নেন।

আটকে পড়া যুবককে উদ্ধারে অভিযান চলছে। ছবি: বিবিসির সৌজন্যে

আটকে পড়া যুবককে উদ্ধারে অভিযান চলছে। ছবি: বিবিসির সৌজন্যেকম্বোডিয়ায় বাদুড়ের বিষ্ঠা উর্বর সার হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এটি একটি লাভজনক দ্রব্য হিসেবে দেশটিতে পরিচিত, যা বিক্রি করে অনেকেই অর্থ উপার্জন করে থাকে। স্থানীয় একটি ইংরেজি সংবাদমাধ্যমকে সুম বোরা বলেন, ‘বেঁচে থাকার সব আশা আমি হারিয়ে ফেলেছিলাম। ওই মুহূর্তে আমি যদি একটি ছুরি পেতাম, তবে আমি আত্মহত্যা করতাম।’

এ দিকে তাঁর আটকে থাকার খবর দেশটির সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়। বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করেন স্বয়ং দেশটির প্রধানমন্ত্রী হান সেন। তিনি দেশের সবচেয়ে দক্ষ উদ্ধারকারী দলকে অভিযানে যেতে নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশ অনুযায়ী উদ্ধারকারীরা ঘটনাস্থলে যান। দুই শিলাখণ্ডের মাঝখানে সুম বোরা এমন কঠিন ফাঁদে আটকে ছিলেন যে প্রাথমিকভাবে তাঁকে উদ্ধার করা যায়নি। পরে উদ্ধার কার্যক্রমে হেলিকপ্টারের সহযোগিতা নেওয়া হয়। অবশেষে পাথর কেটে তাঁকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কম্বোডিয়ান যুবক। ছবি: বিবিসির সৌজন্যে

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কম্বোডিয়ান যুবক। ছবি: বিবিসির সৌজন্যেএ ঘটনায় সুম বোরা ও তাঁর পরিবারকে নগদ অর্থ ও খাবার সহায়তা দিয়েছে দেশটির সরকার। এক বিবৃতিতে সুমের স্ত্রী কোয়ুন সোথিয়া বলেন, তাঁর স্বামী মাথা, হাঁটু ও বুকে ব্যথা পেয়েছেন। তাঁর চিকিৎসা চলছে। এ ঘটনায় উদ্ধারকারী দল পাঠানো এবং ২ হাজার ৫০০ ডলার আর্থিক সহায়তার জন্য কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হান সেনকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন সোথিয়া।

দেশটির পুলিশ প্রধান সারেথ ভিথ স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, এ ধরনের দুর্ঘটনা ঠেকাতে আপাতত চকরাই পর্বতে আরোহণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

সূত্রঃ প্রথম আলো


রাতভর সংঘর্ষ, আবার অবরুদ্ধ কাশ্মীর
পুলিশের সঙ্গে সাধারণ মানুষের রাতভর সংঘর্ষের পর রবিবার থেকে কাশ্মীরের
বিস্তারিত
৭১টি ভেড়ার বিনিময়ে স্ত্রীর প্রেমিকের
চাই ভেঁড়া! একটা নয়! দুটোও নয়! এক্কেবারে ৭১টা ভেঁড়া! সেই
বিস্তারিত
আফগানিস্তানে বিয়ের অনুষ্ঠানে আত্মঘাতী হামলায়
আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে শিয়া অধ্যূষিত এক এলাকায় একটি বিয়ে বাড়িতে
বিস্তারিত
কলকাতায় বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কায় দুই
ভারতের কলকাতায় বেপরোয়া গাড়ির ধাক্কায় দুই বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। শুক্রবার
বিস্তারিত
দিল্লির এইমস হাসপাতালে ভয়াবহ আগুন
দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সে (এআইআইএমএস) তথা এইমস
বিস্তারিত
ফোনালাপে ইমরান খানকে যে বার্তা
জম্মু ও কাশ্মীর সঙ্কট নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার উত্তেজনা
বিস্তারিত