আগস্ট শুধু শোকই নয়

পরাধীন বাংলার গণমানুষের এক সময় প্রাণের দাবী ছিল স্বাধীনতা। মানুষ চাইত যে কোনো মুল্যে দেশটা স্বাধীন হোক। স্বাধীনতার প্রয়োজনে রক্ত দিতে ৭ কোটি বাঙালী তখন প্রস্তত ছিল। প্রয়োজন ছিল নেতৃত্বে দেয়া কিছু মানুষের। যাদেরকে আমরা নেতা বুঝি বা জানি।বঙ্গবন্ধু কতিপয় দেশপ্রেমিক নাগরিকদের নেতৃত্বের জন্য তৈরী করলেন এবং স্বাধীনতার ডাক দিলেন। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে দেশটা স্বাধীন হলো। পৃথীবির মানচিত্রে একটা নতুন দেশ আবিস্কার হলো। বাংলাদেশ, প্রিয় বাংলাদেশ।

সদ্য স্বাধীন হওয়া যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটি পুনর্গঠনে তখন দরকার হয়ে পরল দেশপ্রেমিক স্বেচ্ছাসেবীদের। দরকার হয়ে পরল সঠিক নেতৃত্বের, দক্ষ নেতার। প্রিয় মুজিব দেশের সকল এলাকায় এলাকায় নেতা তৈরী করলেন। সময়ের প্রয়োজনে আবারও বঙ্গবন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে ঐ সকল দেশপ্রেমিক নেতাগন দেশ গঠনে ঝাপিয়ে পরল। দেশটা পুরোপুরি মাথা তুলে দাঁড়াবার আগেই ৭১ পরাজিত শক্তি একত্রিত হয়ে প্রিয় মুজিবকে হত্যা করল। দেশটা আবার পিছিয়ে গেল। প্রিয় মাতৃভূমির বোবা কান্নায় কাঁদতে কাঁদতে চলে গেল ২১ বছর। 

এর পর বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরলেন। দেশটাকে নিয়ে যেতে চাইলেন উন্নত দেশের সারিতে। দরকার হয়ে পরল অর্থের। প্রিয় নেত্রী সমগ্র পৃথীবি ঘুরে ঘুরে দেশের জন্য অর্থ সংগ্রহ করলেন। দেশটাতে শুরু হলো অগ্রগতির অগ্রযাত্রা।

মানুষ তার মৌলিক চাহিদা প্রাপ্তির দ্বার প্রান্তে প্রায় চলে এসেছিল। অবকাঠামোগত উন্নয়ন শুরু হতে না হতেই আবার কপাল পুড়ল এই অভাগা দেশটির। আবার ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে পুরোনো শকুনেরা ক্ষমতা দখল করে রাষ্ট্রের উপর চালিয়েছে অবিরাম দুর্নিতীর খড়গ।লুটপাট, জবর, দখল করে করে দেশটিকে নামিয়ে ফেলেছে তলদেশে।বানিয়ে ফেলেছিল দুনিয়ার এক নম্বর দুর্নিতীগ্রস্ত দেশে হিসেবে। জনরোষে টিকতে না পেরে সেনা শাসকের হাতে ক্ষমতা ধরিয়ে দিয়ে আবার সেই চোরদের পলায়ন।

জনগণ তার সর্বশক্তি দিয়ে আবার শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা  দায়িত্ব নিয়ে অর্থনীতিতে সম্পুর্ন ভঙ্গুর একটি দেশকে মাত্র ৯ বছরে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে আজ উন্নিত করেছে। শিক্ষায়, অর্থে,অবকাঠামো সব কিছুতে দেশ আজ স্বয়ংসম্পুর্ন।
দেশটিতে যথেষ্ট পরিমানে নেতা এখন বিদ্যমান। ঘরে ঘরে নেতা। অর্থের জন্য বিদেশে আর ধর্না ধরার প্রয়োজন নেই। শিক্ষিত লোকের অভাব নেই। অবকাঠামো যথেস্ট। এখন দরকার সৎ কিছু মানুষের। শেখ হাসিনার মত সৎ নেতৃত্বের।

আসুন এই পবিত্র আগস্ট মাসে বঙ্গবন্ধুর নামে শপথ নেই আগামী বাংলাদেশ হবে শেখ হসিনার সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। নৌকাই হবে জনগণের রাজনৈতিক ঠিকানা।


রক্ত জমাট বাঁধা: করোনায় মৃত্যুর
পঞ্চাশ বয়সের একজন ভদ্রলোক হাসপাতালে ভর্তি হন কভিড ১৯ পজিটিভ
বিস্তারিত
উন্নয়ন আর পরিবেশ রক্ষা, দুটি
উন্নয়ন আর পরিবেশ রক্ষা- দুটি কি একই সাথে সম্ভব? যদি
বিস্তারিত
করোনা প্রতিরোধে অন্তরের অসুখ নিরাময়
মানুষের অসুস্থতা প্রধানত দুই প্রকার, শারীরিক ও মানসিক। বিশ্বস্বাস্থ সংস্থা
বিস্তারিত
আমাদের চার পাশে হাজারো দু’পায়ের
আপনি পবিত্র রমজান মাসে কতজন লোককে সাহায্য করেছেন? একজন? দুইজন?
বিস্তারিত
সাংবাদিকতা ছাড়া কিছুতেই আর আনন্দ
বেশিরভাগ প্রতিবেদন প্রচার হবার পরে এক শ্রেণির তীর্যক তীর প্রতিহত
বিস্তারিত
প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ বর্তমান সংকট
  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন উন্নতির দিকে এগিয়ে চলছিল
বিস্তারিত