আগস্ট শুধু শোকই নয়

পরাধীন বাংলার গণমানুষের এক সময় প্রাণের দাবী ছিল স্বাধীনতা। মানুষ চাইত যে কোনো মুল্যে দেশটা স্বাধীন হোক। স্বাধীনতার প্রয়োজনে রক্ত দিতে ৭ কোটি বাঙালী তখন প্রস্তত ছিল। প্রয়োজন ছিল নেতৃত্বে দেয়া কিছু মানুষের। যাদেরকে আমরা নেতা বুঝি বা জানি।বঙ্গবন্ধু কতিপয় দেশপ্রেমিক নাগরিকদের নেতৃত্বের জন্য তৈরী করলেন এবং স্বাধীনতার ডাক দিলেন। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে দেশটা স্বাধীন হলো। পৃথীবির মানচিত্রে একটা নতুন দেশ আবিস্কার হলো। বাংলাদেশ, প্রিয় বাংলাদেশ।

সদ্য স্বাধীন হওয়া যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটি পুনর্গঠনে তখন দরকার হয়ে পরল দেশপ্রেমিক স্বেচ্ছাসেবীদের। দরকার হয়ে পরল সঠিক নেতৃত্বের, দক্ষ নেতার। প্রিয় মুজিব দেশের সকল এলাকায় এলাকায় নেতা তৈরী করলেন। সময়ের প্রয়োজনে আবারও বঙ্গবন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে ঐ সকল দেশপ্রেমিক নেতাগন দেশ গঠনে ঝাপিয়ে পরল। দেশটা পুরোপুরি মাথা তুলে দাঁড়াবার আগেই ৭১ পরাজিত শক্তি একত্রিত হয়ে প্রিয় মুজিবকে হত্যা করল। দেশটা আবার পিছিয়ে গেল। প্রিয় মাতৃভূমির বোবা কান্নায় কাঁদতে কাঁদতে চলে গেল ২১ বছর। 

এর পর বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরলেন। দেশটাকে নিয়ে যেতে চাইলেন উন্নত দেশের সারিতে। দরকার হয়ে পরল অর্থের। প্রিয় নেত্রী সমগ্র পৃথীবি ঘুরে ঘুরে দেশের জন্য অর্থ সংগ্রহ করলেন। দেশটাতে শুরু হলো অগ্রগতির অগ্রযাত্রা।

মানুষ তার মৌলিক চাহিদা প্রাপ্তির দ্বার প্রান্তে প্রায় চলে এসেছিল। অবকাঠামোগত উন্নয়ন শুরু হতে না হতেই আবার কপাল পুড়ল এই অভাগা দেশটির। আবার ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে পুরোনো শকুনেরা ক্ষমতা দখল করে রাষ্ট্রের উপর চালিয়েছে অবিরাম দুর্নিতীর খড়গ।লুটপাট, জবর, দখল করে করে দেশটিকে নামিয়ে ফেলেছে তলদেশে।বানিয়ে ফেলেছিল দুনিয়ার এক নম্বর দুর্নিতীগ্রস্ত দেশে হিসেবে। জনরোষে টিকতে না পেরে সেনা শাসকের হাতে ক্ষমতা ধরিয়ে দিয়ে আবার সেই চোরদের পলায়ন।

জনগণ তার সর্বশক্তি দিয়ে আবার শেখ হাসিনাকে রাষ্ট্রনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা  দায়িত্ব নিয়ে অর্থনীতিতে সম্পুর্ন ভঙ্গুর একটি দেশকে মাত্র ৯ বছরে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে আজ উন্নিত করেছে। শিক্ষায়, অর্থে,অবকাঠামো সব কিছুতে দেশ আজ স্বয়ংসম্পুর্ন।
দেশটিতে যথেষ্ট পরিমানে নেতা এখন বিদ্যমান। ঘরে ঘরে নেতা। অর্থের জন্য বিদেশে আর ধর্না ধরার প্রয়োজন নেই। শিক্ষিত লোকের অভাব নেই। অবকাঠামো যথেস্ট। এখন দরকার সৎ কিছু মানুষের। শেখ হাসিনার মত সৎ নেতৃত্বের।

আসুন এই পবিত্র আগস্ট মাসে বঙ্গবন্ধুর নামে শপথ নেই আগামী বাংলাদেশ হবে শেখ হসিনার সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ। নৌকাই হবে জনগণের রাজনৈতিক ঠিকানা।


নিজের নিরাপত্তায় হেলমেট ব্যবহার করেন
বাংলাদেশে ট্রাফিক আইন প্রয়োগে সবথেকে বড় সমস্যা হলো অতি গরীব
বিস্তারিত
ই-সিগারেট সম্পর্কিত কিছু ভুল তথ্য
ইলেকট্রনিক সিগারেট বা ই-সিগারেট ব্যাটারি চালিত একধরনের যন্ত্র, যার মাধ্যমে
বিস্তারিত
অপসাংবাদিকতা রোধে চাই কার্যকর পদক্ষেপ
সাংবাদিকতা একটি মহান পেশা। একজন সাংবাদিককে সকল পেশার মানুষ অত্যন্ত
বিস্তারিত
নৌকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য সংরক্ষণে
নৌকা এবং বাংলাদেশের সংস্কৃতি ওতপ্রোতভাবে জড়িত। দীর্ঘকাল ধরে এদেশের মানুষের
বিস্তারিত
মাদকমুক্ত বরগুনা গড়তে প্রয়োজন সম্মিলিত
বরগুনা আমাদের আবেগ ও অনুভূতির জায়গা। এখানে বেড়ে ওঠা প্রতিটি
বিস্তারিত
৩৮ লাখ বছর আগের মাথার
আবিষ্কার হওয়া মাথার খুলি তৈরি করেছেন এক শিল্পী। আনামেনসিস দেখতে
বিস্তারিত