ধস নেমেছে টাইগারদের ব্যাটিংয়ে

আফগানদের দেওয়া ৩৪২ রানের লিডে খেলতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খেয়েছিল বাংলাদেশ। রানের খাতা খোলার আগেই দলীয় ০ রানে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার সাদমান ইসলাম। ইয়ামীন জাজাইয়ের বলে আফসার জাজাইয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। সেই ধাক্কা সামলে ওঠার চেষ্টা করছিলেন লিটন-সৌম্য। কিন্তু পারেননি।

আফগানদের ইনিংস শেষ হওয়ার পর লাঞ্চে যাওয়ার আগে সাদমানের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। লাঞ্চ থেকে এসে ম্যাচের হাল ধরতে ব্যর্থ টাইগাররা। লাঞ্চ থেকে চা বিরতিতে যাওয়ার আগে সাকিব-মুশফিকের উইকেটসহ বাংলাদেশ চারটি উইকেট হারিয়ে বসে।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৩ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ৮৮ রান। ক্রিজে আছেন মুমিনুল হক।

প্রথম ইনিংসে রেকর্ড গড়েই থেমেছে আফগানিস্তান

আফগানরা স্বস্তিতে থেকে চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন খেলতে নেমেছিল। হাতে ছিল পাঁচ উইকেট, স্কোরবোর্ডে জমা ছিল ২৭১ রান। আজ শুক্রবার আরও ৭১ রান যোগ করে ৩৪২ রানে থামে আফগানদের প্রথম ইনিংস। রশিদ-নবীদের টেস্ট ইতিহাসে যে কোনো ইনিংসে এটাই সর্বোচ্চ রান আফগানদের।

আগে নিজেদের দ্বিতীয় টেস্টে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ৩১৪ রান করেছিল আফগানিস্তান। প্রথম দিনে রহমতের সেঞ্চুরি, আসগরের হাফসেঞ্চুরির দ্বিতীয় দিন রশিদের হাফসেঞ্চুরিতে এই রান করতে পারে টেস্ট ক্রিকেটের নবাগত এই দলটি।

সর্বোচ্চ সর্বোচ্চ ১০২ রান আসে রহমত শাহর ব্যাট থেকে। ৯২ রান করেন আসগর আফগান। ৫১ রান আসে রশিদ খানের ব্যাট থেকে। এ ছাড়া আফসার জাজাই আউট হয়েছেন ৪১ রান করে।

টাইগারদের হয়ে সর্বোচ্চ চার উইকেট  নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। দুটি করে উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান ও নাঈম হাসান। একটি করে উইকেট নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ 

আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে কোনো পেসার ছাড়াই মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। স্পিন অ্যাটাক নিয়েই নবী-রশিদদের বিপক্ষে লড়াই করবেন সাকিব আল হাসান।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিং নিয়েছেন আফগান অধিনায়ক রশিদ খান। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ম্যাচটি শুরু হয়।

আবু জায়েদ রাহী, তাসকিন আহমেদ ও এবাদত হোসেনকে নিয়ে স্কোয়াড ঘোষণা করা হলেও একজনও জায়গা পাননি। নতুন বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গাভেল্টও জানিয়েছিলেন পিচের ধরন অনুযায়ী অধিনায়ক সাকিবের চাওয়া মতোই বোলার নেওয়া হবে। অর্থ্যাৎ পিচ স্পিন সহায়ক হওয়াতে একজন পেসারেরও জায়গা হয়নি একাদশে।

বাংলাদেশ নেমেছে তিনি বিশেষজ্ঞ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম ও নাঈম হাসানকে নিয়ে। ঘরের মাঠে সাদা পোশাকে এই তিনজনই ভয়ংকর বোলার। তাদের সঙ্গে বল হাতে আলো ছড়াবেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ ও মোসাদ্দেক হোসেন।

টেস্ট একাদশ :

সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, শাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, লিটন কুমার দাশ, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসাইন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাঈম হাসান।


সহজ লক্ষ্যেও ভারতের কাছে হারল
ভারতের বিপক্ষে ১০৭ রানের সহজ লক্ষ্য নিয়েও পারল না বাংলাদেশ।
বিস্তারিত
অল্পের জন্য চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি
আবারও প্রতিপক্ষ ভারত, মঞ্চ এশিয়া কাপ। বাংলাদেশ যেন ভারত বাধা
বিস্তারিত
প্রধানমন্ত্রীর ফোনে কাঁদলেন আফিফ
বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন সম্ভাবনার নাম আফিফ হোসেন ধ্রুব। এ তরুণের
বিস্তারিত
বাংলাদেশের রোমাঞ্চকর জয়
আফগানিস্তানের কাছে একমাত্র টেস্টে হারলেও ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে শুরুটা হলো
বিস্তারিত
খেলা নিয়ে পাপনকে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন,
এলেন, খেললেন এবং জয় এনে দিলেন। অথচ তার অভিজ্ঞতার ঝুলিতে
বিস্তারিত
টস জিতে বোলিংয়ে বাংলাদেশ
ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচের খেলা বৃষ্টির কারণে নির্ধারিত সময়ে
বিস্তারিত