সওয়াল জওয়াব

প্রশ্ন : আমাদের দেশে অনেক মসজিদে ইমামকে দোয়ার জন্য টাকা দেওয়া হয়। যেমন বলেÑ হুজুর, আমার ছেলে বিদেশ যাবে তার জন্য একটু দোয়া করবেন। এই বলে কিছু টাকা দেয়। এই টাকা নেওয়া জায়েজ হবে?
কেউ কেউ বলেন, এই টাকা নেওয়া নাজায়েজ। আবার কেউ বলেন, যদি খতমে শেফা বা বরকতের জন্য ঘরে বা দোকানে খতমে কোরআন পড়ে টাকা নেওয়া জায়েজ হয়, তাহলে এ টাকা জায়েজ হবে না কেন? বিস্তারিত জানালে কৃতজ্ঞ থাকব।
মুহাম্মাদ মিজানুর রহমান, সন্দ্বীপ, চট্টগ্রাম

উত্তর : হাদিয়ার একটি আদব হলোÑ সবধরনের বিনিময় ও উদ্দেশ্য থেকে মুক্ত হওয়া। তা হবে শুধু মহব্বত ও ইকরাম হিসেবে একমাত্র আল্লাহকে রাজি-খুশি করার জন্য। হাদিয়া প্রদান করে দোয়া চাওয়ার প্রচলনটি আসলেই সংশোধনযোগ্য। তবে হাদিয়া প্রদান করে দোয়া চাইলে এর অর্থ এই নয় যে, হাদিয়াটি দোয়ার বিনিময় হিসেবে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এক্ষেত্রে কারও নিয়ত যদি বাস্তবেই এমন হয়ে থাকে, তাহলে তা খুবই আপত্তিকর। কারণ দোয়ার কোনো বিনিময় হয় না। দোয়া খালেস ইবাদত। তা দুনিয়ার জন্য হোক বা আখেরাতের জন্যÑ সেটি ইবাদত। তাই দোয়ার বিনিময় হিসেবে কোনো কিছু নেওয়া যাবে না। তবে প্রচলিত হাদিয়া দেওয়া ও দোয়া চাওয়ার মধ্যে বিনিময়ের কোনো সংযোগ নেই।
আর দুনিয়াবি বৈধ উদ্দেশ্যে খতম ইত্যাদি পড়ে পারিশ্রমিক নেওয়া জায়েজ হওয়ার কথা ফিকহের কিতাবে উল্লেখ রয়েছে। সেটির সঙ্গে দোয়ার বিনিময়কে তুলনা করা ঠিক নয়। দোয়া করে পারিশ্রমিক নেওয়া বৈধ হওয়ার কথা কেউ বলেননি। দোয়া মুসলমানরা একে অপরের জন্য বিনিময়হীনভাবেই করে থাকে এবং তাই করা উচিত। (জামে তিরমিজি : ৩৩৭২; বাযলুল মাজহুদ : ৭/৩২৪; মাজমুউ রাসাইলি ইবনি আবিদীন : ১/১৫৪; রদ্দুল মুহতার : ২/৫৯৫; ইমদাদুল ফাতাওয়া : ৩/৩৩৪)।


আজানের মহিমা
সর্বোপরি আজান হচ্ছে নামাজের আহ্বান। আর নামাজের গুরুত্ব যে সর্বাধিক,
বিস্তারিত
আল-মাদ্রাসাতুস সাওলাতিয়াহ মক্কা মোকাররমা
  আল-মাদ্রাসাতুস সাওলাতিয়াহ। পবিত্র মক্কা নগরীতে অবস্থিত আরব উপদ্বীপের প্রাচীনতম দ্বীনি
বিস্তারিত
একদিন নবীজির বাড়িতে
ধৈর্য ও সহনশীলতা : নবীজির (সা.) বাড়িতে শুধু শান্তি আর
বিস্তারিত
ফুটপাতে ক্রয়-বিক্রয় প্রসঙ্গে
  প্রশ্ন : আমি ফুটপাতের দোকান থেকে বিভিন্ন জিনিস ক্রয় করি।
বিস্তারিত
২৯ নভেম্বর আন্তর্জাতিক কেরাত সম্মেলন
আসছে ২৯ নভেম্বর শুক্রবার বাদ আসর বাংলাদেশ কারি সমিতির উদ্যোগে
বিস্তারিত
সুদভিত্তিক অর্থব্যবস্থা
ইসলাম অতীত ক্ষমা করে দিয়েছে। কারণ ইসলাম পূর্বকৃত সব গোনাহ
বিস্তারিত