রাজশাহীতে চার ডাকাত গ্রেপ্তার

রাজশাহীতে চার ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেপ্তার ডাকাতরা হলেন, নগরীর নিমতলা এলাকার মোখলেসুর রহমানের ছেলে নুরু (২১), চন্ডিপুর এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে রুবেল ইসলাম (২৫), দাশপুকুর ব্যাংক কলোনীর মশিউর রহমানের ছেলে মুশফিকুর রহমান ওরফে মনিপ (২৩) এবং পুরাতন বিলশিমলা এলাকার ভাড়াটিয়া টিপু সুলতান (২৫)। টিপুর গ্রামের বাড়ি চুয়াডাঙ্গা সদরের বোয়ালিয়া গ্রামে। তার বাবার নাম শাহজাহান আলী।

আরএমপির মুখপাত্র জানান, গত শুক্রবার রাত ১টার দিকে নগরীর কাটাখালি থানার পালপাড়া ঢালান এলাকায় রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কে একটি ওষুধ কোম্পানীর গাড়ি থামিয়ে ছয়-সাতজনের একটি ডাকাতদল নগদ টাকা এবং কর্মীদের মুঠোফোন ও সোনার আংটিসহ প্রায় ৩ লাখ ৭২ হাজার টাকার মালামাল লুট করে। এরপর তারা একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাসে করে পালিয়ে যায়। এ নিয়ে ওষুধ কোম্পানীর পক্ষ থেকে থানায় মামলা করা হয়। এরপর ডাকাতদের শনাক্ত করতে কাজ শুরু করে পুলিশ।

এরপর মঙ্গলবার প্রথমে নুরুকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অন্যদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে লুট করা ১ লাখ ১৭ হাজার টাকা, একটি মুঠোফোন এবং একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো চ-১১-৬৫২৬ ) জব্দ করা হয়। তারা সবাই ডাকাতির সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

কাটাখালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিল্লুর রহমান জানান, গ্রেপ্তার চার ডাকাতকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আর ডাকাতির ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।


নাটোরে সুদের টাকার জন্য বৃদ্ধকে
নাটোরের গুরুদাসপুরে সুদের টাকার জন্য ইটভাটার শ্রমিক ছইরুদ্দিন (৬৫) নামে
বিস্তারিত
লালমনিরহাটে ছাগলের ৮ বাচ্চা প্রসব!
লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার প্রত্যন্ত পল্লী গ্রামে মোসলেম উদ্দিনের একটি ছাগল
বিস্তারিত
ভোলায় গৃহবধূ মিম হত্যার বিচারের
ভোলায় দৌলতখানে যৌতুকের জন্য গৃহবধূ নুসরাত জাহান মিম হত্যার বিচারের
বিস্তারিত
আমতলীর সাহসী কন্যা মনিকা খেলাঘরের
নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধ করে অসাধারণ সাহসীকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় দ্বিতীয়
বিস্তারিত
অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে শ্বশুর-শাশুড়ি
নোয়াখালীর সদরের আন্ডার চরে তিন বছরের শিশু সন্তানসহ অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর
বিস্তারিত
কক্সবাজার পৌরসভায় ৮৭ কোটি টাকার
প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেড়শ’ বছরের রেকর্ড ডিঙ্গিয়ে এবারই প্রথম প্রায়
বিস্তারিত