নেতৃত্ব হারিয়ে যা বললেন ছাত্রলীগ সভাপতি শোভন

নানা বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের অভিযোগ ও সমালোচনার কারণে নেতৃত্ব হারিয়েছেন ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

শনিবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতৃত্বকে সরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরপরই প্রধানমন্ত্রী বরাবর পদত্যাগপত্র জমা দেন শোভন-রাব্বানী। সভাপতির ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দেয়া হয়েছে বর্তমান কমিটির জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়কে। সাধারণ সম্পাদকের ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব পালন করবেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

কমিটি ভেঙে দেয়ার গুঞ্জনের পর অনেকটাই একঘরে হয়ে পড়েছিলেন শোভন-রাব্বানী। তবে, নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সহযোগিতা করার কথা জানিয়েছেন সদ্য পদত্যাগ করা সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। শনিবার রাতেই নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়কে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শোভন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্জেন্ট জহুরুল হক হলে দু’জন একান্তে সংগঠনের বতর্মান সংকট ও সামনের কর্মসূচি নিয়ে কথা বলেছেন।

রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আমাদের যে দায়িত্ব দিয়েছেন আমরা চেষ্টা করেছিলাম সেটি সঠিকভাবে পালন করতে। আমাদের ভুল-ত্রুটি থাকতে পারে, আবার আমাদের বিরুদ্ধে অনেক ষড়যন্ত্রও ছিল। আমার জায়গা থেকে আমি নতুন দায়িত্বপ্রাপ্তদের আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করবো।

আর ছাত্রলীগের নতুন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, আমি আসলে কী প্রতিক্রিয়া দিবো বুঝতে পারছি না। তবে, নেত্রী আস্থা রেখে যে দায়িত্ব দিয়েছেন সেটি নিষ্ঠার সাথে পালন করার চেষ্টা করবো। আশা করছি সংগঠনকে সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য সবার সহযোগিতা পাবো।

আল নাহিয়ান খান জয় সদ্য পদত্যাগী সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের সহপাঠী ছিলেন। তারা দু’জনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন।

একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ছাত্রলীগের কর্মসূচি ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি জয়ের মতামতকে গুরুত্ব দেয়া হতো। ফলে নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তার বিশেষ অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। তাছাড়া, শোভন ও জয়ের মধ্যে ভালো বোঝাপড়া থাকায় তাদের অনুসারীদের মধ্যে সংঘাতের তেমন কোনো শঙ্কা নেই।

তবে, একাধিক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মনে করেন, কমিটি বহাল রেখে শীর্ষ নেতৃত্বকে সরিয়ে দেয়ার ঘটনা নজিরবিহীন। এর ফলে ছাত্রলীগ যে ইমেজ সংকটে পড়েছে সেটি পুনরুদ্ধার করা এতো সহজ হবে না। এজন্য নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতৃত্বকে সংগঠন গোছানোর দিকে বাড়তি নজর দিতে হবে।


‘প্যারোলের সঙ্গে দোষ স্বীকার করার
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের কথার তীব্র সমালোচনা
বিস্তারিত
বিদেশি প্রভুরাও সরকারের পতন ঠেকাতে
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন- সরকারের অনাচারে দেশে
বিস্তারিত
ছাত্রলীগের রাজনীতি বন্ধ করতে হবে
ছাত্র রাজনীতি নয় ছাত্রলীগের রাজনীতি বন্ধ করতে হবে বলে মন্তব্য
বিস্তারিত
আবরার হত্যায় সরকার বিব্রত: কাদের
আবরার হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলন না করে ক্লাসে ফিরে
বিস্তারিত
সম্রাটের মুক্তির দাবিতে আদালতের বাইরে
‘ক্যাসিনো কিং’, যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন
বিস্তারিত
উস্কানি দিয়ে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করা
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, ১৪ দলের মুখপাত্র ও খাদ্য মন্ত্রণালয়
বিস্তারিত