ফেসবুকে পরকীয়া: বিমানবন্দরে স্ত্রীর হাতে ধরা প্রবাসী স্বামী

ফরিদগঞ্জ উপজেলার রুপসা উত্তর ইউনিয়নের গাব্দের গাঁও গ্রামের গোফরান মিয়ার ছেলে সৌদি প্রবাসী আব্দুল গণি। ২ কন্যা ও ১ পুত্রসন্তানের জনক। ২০০৬ সালে কর্মের সন্ধানে সৌদি আরবে পাড়ি জমান।

ঠিক ভালই চলছিল স্ত্রী, সন্তান ও পিতা-মাতাকে নিয়ে তাদের সংসার। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ালো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়লেন গণি। এর ফলে এ বছর দেশে এসে পরকীয়ায় জড়িত নারীর কাছে গিয়ে প্রায় ২ মাস সময় কাটিয়ে পুনরায় দেশত্যাগের সময় ধরা পড়ল স্ত্রী ও পুলিশের হাতে। এদিকে পুত্রের আটকের খবর শুনে পিতা মৃত্যুবরণ করেছেন।

ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ ঢাকা বিমানবন্দর থেকে আব্দুল গণিকে গ্রেফতার করে বুধবার চাঁদপুর আদালতে পাঠালে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর চাঁদপুর জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রথমে স্ত্রীর হাতে আটক হয়ে পুলিশে সোপর্দ হন। এমন সংবাদ তার বাড়িতে জেনে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন গণির পিতা গোফরান মিয়া (৭৫)।

ঘটনার বিবরণ ও পুলিশের দেয়া তথ্যে জানা গেছে, সৌদি আরবে যাওয়ার জন্যে গণির ফ্লাইটের সময় ছিল গত সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিট। কিন্তু ফ্লাইটে ওঠার পূর্বেই আব্দুল গণির সামনে এসে উপস্থিত স্ত্রী। পরে সোপর্দ হন পুলিশের কাছে। যৌতুকবিরোধী আইনে স্ত্রীর দায়ের করা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হিসেবে প্রবাসী আব্দুল গণিকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

পুত্রের আটকের ঘটনার সংবাদ পেয়ে পিতা গোফরান মঙ্গলবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। পরে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

স্থানীয় মাধ্যম থেকে জানা যায়, উপজেলার ১৫নং রূপসা উত্তর ইউনিয়নের গাব্দেরগাঁও গ্রামের গোফরান মিয়ার ছেলে আব্দুল গণি ২০০৩ সালের ২৬ অক্টোবর একই উপজেলার ৭নং পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের বিষুরবন্দ গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে রাবেয়া বেগমকে বিয়ে করেন। তাদের দাম্পত্য জীবনে ২ মেয়ে ও ১ ছেলে রয়েছে।

রাবেয়া বেগম বলেন, ২০০৬ সালে তার স্বামী আব্দুল গণি সৌদি আরবে পাড়ি জমান। মাঝে মধ্যে ছুটি নিয়ে তিনি বাড়ি আসলেও তার তৃতীয় সন্তানটিকে মাতৃগর্ভে রেখে ২০১৫ সালে তিনি সর্বশেষ সৌদি আরবে ফিরে যান। এরই মধ্যে তিনি বিদেশে থাকাকালীন ফেসবুকে খুলনা জেলার শারমিন ইসলাম মিথিলা নামে এক নারীর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন।

চলতি বছরের ২১ জুলাই আব্দুল গণি সৌদি আরব থেকে দেশে আসলেও নিজ বাড়ি ফরিদগঞ্জে না এসে খুলনায় চলে যান। সেখানে তিনি প্রথম স্ত্রীর অনুমতি ছাড়াই শারমিন ইসলাম মিথিলাকে বিয়ে করেন।

বিয়ের সংবাদ জানতে পেরে রাবেয়া বেগম চাঁদপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে ২৮ জুলাই যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা দায়ের (সি আর ৩৮১/১৯) করেন। ওই মামলায় ২৩ আগস্ট আব্দুল গণির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত।

রাবেয়া জানতে পারেন যে, সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে একটি এয়ারলাইন্সে করে পুনরায় সৌদি আরবে যাওয়ার জন্যে প্রস্তুতি নিয়েছে আব্দুল গণি। সে অনুযায়ী রাবেয়া পূর্বেই ঢাকা বিমানবন্দরে অবস্থান নেন। আব্দুল গণি যথাসময়ে বিমানবন্দরে পৌঁছার সাথে সাথে রাবেয়া বেগম তাকে জাপটে ধরে ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি হিসেবে নিশ্চিত করে ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

পরে সংবাদ পেয়ে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ ঢাকা বিমানবন্দর থেকে আব্দুল গণিকে গ্রেফতার করে বুধবার চাঁদপুর আদালতে প্রেরণ করে। আব্দুল গনি গ্রেফতার ও তার পিতার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ।


৬ হাসপাতাল ঘুরেও ভর্তি নেয়নি
অ্যাজমাজনিত শ্বাসকষ্ট নিয়ে ছয়টি বেসরকারি হাসপাতাল ঘুরেও ভর্তি হতে পারেননি
বিস্তারিত
শ্রমিক বিক্ষোভ, নারায়ণগঞ্জের ৩ পোশাক
নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদ ও বোনাসের দাবিতে একই
বিস্তারিত
ঠাকুরগাঁওয়ে করোনায় আ’লীগ নেতার মৃত্যু
ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও বিশিষ্ট
বিস্তারিত
৩ মাস পর উপজেলা প্রশাসনের
হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রেমা চা বাগান পুনরায়
বিস্তারিত
পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র কদমতলী
সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমার বাস কদমতলী বাস টার্মিনাল এলাকায় পরিবহন
বিস্তারিত
মধুপুরে দাদা-নাতির ধর্ষণের শিকার কিশোরী
টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার কালিয়াকুড়ি গ্রামে এক কিশোরীকে অপহরণের পর দাদা-নাতি
বিস্তারিত