জাবি ভিসির পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষোভ

রাষ্ট্রপতি নির্দেশ দিলে সরে যাব: ড. ফারজানা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর ব্যানারে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ মিছিলটি সমাজবিজ্ঞান অনুষদ থেকে শুরু হয়ে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

এদিকে আন্দোলনের মুখে পদত্যাগ করবেন না জানিয়ে ভিসি বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতি নির্দেশ দিলে দায়িত্ব থেকে সরে যাবো।

উন্নয়ন প্রকল্প থেকে ছাত্রলীগকে দুই কোটি টাকা দেয়ার ঘটনায় আগামী ১ অক্টোবরের মধ্যে  ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে আল্টিমেটাম দেয় আন্দোলনকরীরা। এছাড়া আসন্ন ভর্তি পরীক্ষায় তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়। সব পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

এদিকে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন শিশির বলেন, ‘আমরা ভিসিকে বলতে চাই, আমাদের আল্টিমেটাম শেষ আগেই ক্ষমতা ছেড়ে দেবেন। না হলে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে আপনার পদত্যাগ নিশ্চিত করা হবে।’

নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মির্জা তাসলিমা সুলতানা বলেন, ‘আমরা আজকে এই অবস্থানে আসতে বাধ্য হয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এমন গুরুতর অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার পরে আর কোনোভাবেই এমন সম্মানীয় পদে থাকতে পারেন না।’

ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. নুরুল ইসলাম বলেন, ভিসি শুধু বিশ্ববিদ্যালয়কে কলঙ্কিত করেন নাই বরং এর সঙ্গে তার পুরো পরিবারকে জড়িয়েছেন। স্বামী-পুত্রকে সব রকম অনৈতিক কাজের সঙ্গে যুক্ত করেছেন। 

শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চের মুখপাত্র অধ্যাপক রায়হান রাইন বলেন, ভিসি  উন্নয়ন প্রকল্পকে ব্যবসা ক্ষেত্রে পরিণত করেছেন। ভিসির বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তার বিচার রাষ্ট্রীয় আইনে চাই। আমরা আসন্ন ভর্তি পরীক্ষায় ভিসিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি। কারণ এই অভিযোগ ওঠার পরে আমাদের কর্মস্থলে আর ভিসিকে দেখতে চাই না। 

দর্শন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কামরুল আহসান বলেন, ভিসি একবার বলছেন, ছাত্রলীগ তার কাছে চাঁদাবাজি করেছে, আরেকবার বলছেন চাঁদাবাজি করে নাই। একজন ভিসি কোনোভাবেই এভাবে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিতে পারেন না। আমরা বারবার বলেছি ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। কখনো বলিনি, আপনি দুর্নীতিবাজ তবে আপনার কার্যক্রমের মাধ্যমে আপনি সেটা প্রমাণ করছেন। 

পদত্যাগের বিষয়ে ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতি যদি নির্দেশ দেন তবে পদ থেকে সরে যাব। যদি আমাকে নির্দেশ না দেন তবে আন্দোলনকারীদের গালমন্দ খেয়েও পদে থেকে যাব। হয়তো তাদের আন্দোলন আরও দীর্ঘায়িত হবে কিন্তু নির্দেশ আসা না পর্যন্ত আমি আমার দায়িত্ব পালন করব।’


শেরপুর সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন
শেরপুরের নালিতাবাড়ী সীমান্তের মধুটিলা ইকোপার্কের মহুয়া রেস্ট হাউজে ১৬ অক্টোবর
বিস্তারিত
কিশোরগঞ্জে বিচারকের বিরুদ্ধে আইনজীবীর মামলা
কিশোরগঞ্জ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো.
বিস্তারিত
পীরগঞ্জে পুলিশ-গ্রামবাসী সংঘর্ষ, ৫ পুলিশ
রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ভেন্ডাবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পুলিশ হেফাজতে থাকাকালিন
বিস্তারিত
স্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির সভা
ইন্টার-পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন (আইপিইউ)’র স্বাস্থ্য বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রির অপরাধে
সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার পোড়াবাড়ি এলাকায় মারিয়া ফার্মেসিকে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রি
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নারী নিহত
বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিমপাড় সংযোগ মহাসড়কের সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার নলকা সেতু
বিস্তারিত