জাবি ভিসির পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষোভ

রাষ্ট্রপতি নির্দেশ দিলে সরে যাব: ড. ফারজানা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর ব্যানারে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ মিছিলটি সমাজবিজ্ঞান অনুষদ থেকে শুরু হয়ে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

এদিকে আন্দোলনের মুখে পদত্যাগ করবেন না জানিয়ে ভিসি বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতি নির্দেশ দিলে দায়িত্ব থেকে সরে যাবো।

উন্নয়ন প্রকল্প থেকে ছাত্রলীগকে দুই কোটি টাকা দেয়ার ঘটনায় আগামী ১ অক্টোবরের মধ্যে  ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে আল্টিমেটাম দেয় আন্দোলনকরীরা। এছাড়া আসন্ন ভর্তি পরীক্ষায় তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়। সব পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

এদিকে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন শিশির বলেন, ‘আমরা ভিসিকে বলতে চাই, আমাদের আল্টিমেটাম শেষ আগেই ক্ষমতা ছেড়ে দেবেন। না হলে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে আপনার পদত্যাগ নিশ্চিত করা হবে।’

নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মির্জা তাসলিমা সুলতানা বলেন, ‘আমরা আজকে এই অবস্থানে আসতে বাধ্য হয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এমন গুরুতর অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার পরে আর কোনোভাবেই এমন সম্মানীয় পদে থাকতে পারেন না।’

ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. নুরুল ইসলাম বলেন, ভিসি শুধু বিশ্ববিদ্যালয়কে কলঙ্কিত করেন নাই বরং এর সঙ্গে তার পুরো পরিবারকে জড়িয়েছেন। স্বামী-পুত্রকে সব রকম অনৈতিক কাজের সঙ্গে যুক্ত করেছেন। 

শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চের মুখপাত্র অধ্যাপক রায়হান রাইন বলেন, ভিসি  উন্নয়ন প্রকল্পকে ব্যবসা ক্ষেত্রে পরিণত করেছেন। ভিসির বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তার বিচার রাষ্ট্রীয় আইনে চাই। আমরা আসন্ন ভর্তি পরীক্ষায় ভিসিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করছি। কারণ এই অভিযোগ ওঠার পরে আমাদের কর্মস্থলে আর ভিসিকে দেখতে চাই না। 

দর্শন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কামরুল আহসান বলেন, ভিসি একবার বলছেন, ছাত্রলীগ তার কাছে চাঁদাবাজি করেছে, আরেকবার বলছেন চাঁদাবাজি করে নাই। একজন ভিসি কোনোভাবেই এভাবে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিতে পারেন না। আমরা বারবার বলেছি ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। কখনো বলিনি, আপনি দুর্নীতিবাজ তবে আপনার কার্যক্রমের মাধ্যমে আপনি সেটা প্রমাণ করছেন। 

পদত্যাগের বিষয়ে ভিসি অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বলেন, মহামান্য রাষ্ট্রপতি যদি নির্দেশ দেন তবে পদ থেকে সরে যাব। যদি আমাকে নির্দেশ না দেন তবে আন্দোলনকারীদের গালমন্দ খেয়েও পদে থেকে যাব। হয়তো তাদের আন্দোলন আরও দীর্ঘায়িত হবে কিন্তু নির্দেশ আসা না পর্যন্ত আমি আমার দায়িত্ব পালন করব।’


ভেঙেছে বাঁশের সাঁকো, দুর্ভোগে গ্রামবাসী
  কয়েক  দিনের টানা  বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে
বিস্তারিত
করোনা রোগী ভর্তি হওয়ায় শেবাচিমের
তথ্য গোপন করে করোনা আক্রান্ত ২ রোগী সেবা নিতে যাওয়ায়
বিস্তারিত
ডোমারে আশ্রয়ন প্রকল্প বন্ধের দাবিতে
নীলফামারীর ডোমারে আশ্রয়ন প্রকল্প বন্ধ করার দাবিতে মানবন্ধন করেছেন স্থানীয়
বিস্তারিত
চুনারুঘাটে পাহাড়ি ঢলে ঘরবাড়ি রাস্তা
হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলায় পাহাড়ি ঢলে ঘরবাড়ি রাস্তা ব্রিজ ফসলের
বিস্তারিত
চুনারুঘাটে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু
  বজ্রপাতে হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাটে শাহজাহান  মিয়া(৪৩) নামে এক কৃষকের মৃত্যু
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে প্রভাবশালী দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ-ভাংচুর,
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী ২ গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ গাড়ী
বিস্তারিত