শরৎ বন্দনা

স্নানমুখী এক শাপলা

 


আছাড়-পিছাড় খেতে-খেতে
হাঁটু তুষার মাড়িয়ে যখন
ছুটছি, কেবল ছুটছিÑ
বাসস্টপের পাশেই দেখি
স্নানমুখী এক শাপলাÑ
ঘাপলা বাধায় হাত ইশারায় ডাকে
আয় আয় আয়
দিবাস্বপ্নের ক্রনিক ব্যামো
চাপলো বুঝি ঘাড়ে
হয়নি থামা, ছুটতে হ’লো
পরের গোলামিতেÑ
ক্লান্তি গ্লানি জড়াজড়ি
বাসের সিটে একা,
হঠাৎ তখন দ্যাখাÑ
ঠিক অবিকল মায়ের কণ্ঠস্বর
আয় আয় আয়

আমার আদর-স্নেহ পাওয়া
একটা লোভী বুকের মধ্যে ছিলো
মাগো আমার ভয় যে ভীষণ...

শাপলা হাসে, শাপলা কথা বলে
বাংলা বর্ণমালা ঝরে বিয়ার-ঢালা পথে
ভ্যাবাচ্যাকা এশিয়ান শপ থির হ’য়ে রয় চেয়েÑ

আমার চোখের পানি মোছার জন্য তুই নিজের প্রাণ হাতের মুঠোয়
নিয়েছিলি, মনে নেই?
আছে। ঠিকই মনে আছে

এই দ্যাখ্, মুক্তির দেওয়া সবুজ শাড়িটার কী হাল? তোরা না-দিলে যারা
বস্ত্রহরণ করছে তাদের কাছে হাত পাতবো রে খোকা?

না শাপলা নয়, গন্ধহীন কতগুলো টিউলিপ
ড্যাব-ড্যাব ক’রে তাকিয়ে আছে আমার দিকে।


নৈসর্গ, পাহাড় ও নদীর কবি
কবি ও কথাসাহিত্যিক আফিফ জাহাঙ্গীর আলির জন্মদিন পহেলা জানুয়ারি। ১৯৭৮
বিস্তারিত
এলোমেলো
মনে করো কেউ তোমাকে ডাকেনি,  অথচ তুমি শুনতে পাচ্ছো অতল
বিস্তারিত
বুড়ি চাঁদ
সুগন্ধি রোমাল হাতে         তুমি মেপে গেলে ষাঁড়ের
বিস্তারিত
প্রেমিক হতে পারি না আজকাল
প্রেমিকার উষ্ণ চুম্বনে কৃষ্ণগৌড় ঠোঁটে  ভেসে ওঠে শোষিত মানুষের রক্তের দাগ! 
বিস্তারিত
এ মাটি
এ মাটি আমাকে দিয়েছে জীবনের যতো গান, বাতাসে রৌদ্রের ঝিলিমিলি প্রজাপতি
বিস্তারিত
নোনাজলের ঢেউ
যাবতীয় আয়োজন শেষে কত ভেঙেছি  এ নদীতে নোনাজলের মিছিলের ঢেউ  শব্দবাণে
বিস্তারিত