একই দিনে বাবা-ছেলের জন্মদিন

মাশরাফি বিন মর্তুজা। বাংলাদেশের ক্রিকেটের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। ১৯৮৩ সালের আজকের এই দিনে নড়াইলের চিত্রা নদীর পাড়ে মহিষখোলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মাশরাফি। কাকতালীয়ভাবে একই দিনে মাশরাফির সঙ্গে তার ছেলে সাহেলেরও জন্মদিন। ২০১৪ সালের এই দিনে ঢাকায় জন্ম হয় সাহেলের।

জানা গেছে, ১৯৮৩ সালের ৫ অক্টোবর রাত ৮টায় নানাবাড়িতে জন্ম হয় মাশরাফির। ছোটবেলা থেকে খেলার প্রতি মাশরাফির প্রবল আগ্রহ ছিল। এজন্য বাড়ির পাশের স্কুল মাঠে বড়দের ক্রিকেট খেলতে দেখে দাঁড়িয়ে থাকতেন তিনি। এমনও অনেক দিন গেছে যে সারাদিন খেলার মাঠেই পড়েছিলেন মাশরাফি। খেলার প্রতি ছেলের এমন আগ্রহ দেখে মাশরাফির মা স্কুলশিক্ষিকা হামিদা মর্তুজা ক্রিকেট খেলার সামগ্রী কেনার টাকা দিতেন মাশরাফিকে।

ক্রীড়াঙ্গনে তিনি এখন ‘নড়াইল এক্সেপ্রেস’ হিসেবে পরিচিত। বাংলাদেশের এ যাবৎকালের সেরা পেসার। ২০০১ সালের ৮ নভেম্বর টেস্টের মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে আগমন ঘটে তাঁর। ২০০৯ সাল পর্যন্ত এই ফরম্যাটে মোট ৩৬টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। এরই মাঝে নিয়েছেন ৭৮টি উইকেট। একই সঙ্গে তিনটি হাফ সেঞ্চুরিসহ রান করেছেন ৭৯৭। 

এরপরে একই বছরের ২৩ নভেম্বর ওয়ানডে ক্রিকেটে মাশরাফির অভিষেক হয়। সর্বশেষ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ পর্যন্ত ২১৭টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। বাংলাদেশের প্রথম বোলার হিসেবে তিনি ২৬৬টি উইকেটও তুলে নিয়েছেন । 

সম্প্রতি টি-টুয়েন্টিতে থেকে অবসর নিয়েছেন তিনি। ক্রিকেটের এ ফরম্যাটে ৫৪ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ৪২টি উইকেট। সেই সঙ্গে ব্যাট হাতে করেছেন ৩৭৭ রান।


যার ভুলে ২০১১ বিশ্বকাপ দল
সবারই স্বপ্ন থাকে বিশ্বকাপ খেলার, আর সেটা যদি হয় নিজ
বিস্তারিত
আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাই :
পবিত্র শবে কদরের রাতে মুমিন বান্দারা ক্ষমাপ্রার্থনা ও শান্তি-সমৃদ্ধি কামনায়
বিস্তারিত
৪২ লাখে মাশরাফির ব্রেসলেট বিক্রি
করোনাভাইরাস-সংকটে দুস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়াতে নিজের পছন্দের ব্রেসলেটটি নিলামে তুলেছেন
বিস্তারিত
ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী মাঠ রূপ
মহেন্দ্র সিং দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে ২০১১ বিশ্বকাপে ভারত দ্বিতীয়বারের মতো ক্রিকেটের
বিস্তারিত
‘আমাদের সঙ্গে যা করেন তা
শুক্রবার তামিম ইকবালের ফেসবুক লাইভে অতিথি হয়ে এসেছিলেন ভারতের জাতীয়
বিস্তারিত
‘বাংলেদেশকে পেলেই কেন এমন করেন’,
বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানেই তীব্র উত্তেজনা। মাঠের লড়াইয়ের আগে শুরু হয়ে
বিস্তারিত