মানবতার হারানো শান্তি ইসলামে

গোটা বিশ্বে মানবতা আজ পদদলিত, নিগৃহীত, লাঞ্ছিত ও বঞ্চিত। মানবতার ধ্বজাধারীদের কাছে মানবতা লুণ্ঠিত। আফগানিস্তান ও ইরাকে আমেরিকার নগ্ন থাবা। ফিলিস্তিনে ইসরাইল, কাশ্মীরে ভারত, উইঘুরে চীন, রেঙ্গুনে বার্মা মগদের নৃশংস হত্যা। সর্বত্র আজ একই চিত্র। নির্যাতনের দাস্তান। জুলুমের প্রতিযোগিতা। রক্তের হোলিখেলা। কালো ধোঁয়ার আকাশছোঁয়া কু-লী। মুসলিম নর-নারীর আর্তচিৎকার ‘আমাদেরকে জনপদ থেকে মুক্তি দাও। নরপিশাচ থেকে বাঁচাও।’ এই দৃশ্যপট সবার সামনে। সবাই দেখছে, করণীয়ও বুঝছে; কিন্তু কিছুই করার নেই। 
আফসোস, সর্বত্র আজ মুসলমানরা নিপীড়িত। অন্য ধর্মের লোকেরাও খুব শান্তিতে নেই। অথচ মুসলমানদের আছে ছোট-বড় ছাপ্পান্নটি রাষ্ট্র। আনুমানিক নব্বই লাখ সৈন্য। উন্নতি-উৎকর্ষের উপাদান। আরও আছে পেট্রল, লোহা ইত্যাদি খনিজ সম্পদ। দ্বিতীয়ত, মুসলিম রাষ্ট্রগুলো পরস্পর কাছাকাছি। ইচ্ছা হলে এক হতে পারে। মানবতার পাশে দাঁড়াতে পারে। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো মুসলিম উম¥াহর নেই যোগ্য নেতৃত্ব। নেই উম্মাহর কোনো একক নেতা। 
মুসলিম জাতির নির্যাতনদশা আর পুরো মানবতার হারানো সুখ-শান্তির বীজ লুকানো ইসলামে। নবীজি (সা.) আজ থেকে চৌদ্দশত বছর আগে আমাদের সবক দিয়েছেন। মানবতার কথা বলেছেন। হাতে-কলমে শিক্ষা দিয়েছেন। বলেছেনÑ মানুষের কল্যাণ কামনা করো। উপকার করো। অনিষ্ট থেকে বাঁচাও। অনর্থক কষ্ট দিও না। কোরআন বলেছেÑ ‘মানুষের সঙ্গে সুন্দরভাবে কথা বলো।’ (সূরা বাকারা : ৮৩)। 
এ আয়াতে মুসলিম-অমুসলিম সবাই অন্তর্ভুক্ত। ভালো ব্যবহার, উত্তম আচরণ ও মিষ্টি কথার হকদার। ইনসাফ পাওয়ার উপযুক্ত। কোরআন আমাদের শিক্ষা দেয় ‘কোনো সম্প্রদায়ের শত্রুতা তোমাদের যেন এ বিষয়ে উদ্বুদ্ধ না করে যে, তাদের সঙ্গে ইনসাফ করো না বরং তাদের সঙ্গে ইনসাফের আচরণ করো। তা পরহেজগারিতার খুবই কাছাকাছি।’ (মায়েদা : ৮)। 
সাহাবিদের প্রশংসায় আল্লাহপাক কোরআনে বলেছেন ‘তারা গরিব, মিসকিন, এতিম এবং বন্দিদের খাবার দান করেন।’ (দাহর : ৮)। সাহাবাদের কাছে অমুসলিমরাই তখন বন্দি ছিল। কত সৌজন্য ব্যবহার করেছেন। কোমল আচরণ করেছেন। যারা নিজের ওপর অস্ত্র ধারণ করেছে, তাদের সঙ্গে এমন উত্তম ব্যবহার কোনো জাতির ইতিহাসে নেই। নবী করিম (সা.) বদর যুদ্ধের বন্দিদের ব্যাপারে সাহাবায়ে কেরামকে হুকুম দিয়েছিলেন যে মুসলমানের কাছে কোনো বন্দি আছে, সে যেন তার সঙ্গে উত্তম আচরণ করে। এই হুকুম পেয়ে নিজেদের থেকেও ভালো খাবার বন্দিদের তারা দিতেন। (তাফসিরে ওসমানী)। 
এক হাদিসে এসেছে সৃষ্টি জগৎ আল্লাহর পরিবারভুক্ত। আল্লাহর কাছে প্রিয় সৃষ্টি সেই যে তার পরিবারের সঙ্গে উত্তম আচরণ করে। (শুয়াবুল ঈমান : ৪৯৯৯)। আর লোকমুখে সেই প্রসিদ্ধ হাদিস তো আমরা জানি ‘তোমরা জমিনবাসীর ওপর রহম করো। আসমানের অধিপতি তোমাদের ওপর রহম করবেন।’ (তিরমিজি : ১৯২৪)। আরেক হাদিসে নবীজি (সা.) বলেন, ‘সে ব্যক্তি পূর্ণ মোমিন হতে পারবে না যতক্ষণ না নিজের জন্য যা পছন্দ করে অপরের জন্য তাই পছন্দ করবে।’ (বোখারী : ১৮৪৪)। 
এসব হাদিস মুসলিম-অমুসলিম সবার জন্য অভিন্ন। সবাই সুন্দর ও উত্তম আচরণ পাওয়ার হকদার। ওমর (রা.) একবার এক অমুসলিম অন্ধ ব্যক্তিকে ভিক্ষা করতে দেখেন। তাকে হাত ধরে ঘরে নিয়ে আসেন। কিছু দান করেন এবং বায়তুল মাল থেকে নির্ধারিত ভাতা চালু করেন। নবীজি (সা.) এক ইহুদি পরিবারের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। আর উম্মুল মুমিনিন সাফিয়া (রা.) ইহুদি আত্মীয়দের ত্রিশ হাজারের মতো টাকা-পয়সা দান করেছিলেন। (সিরাতুন্নবী : ৬/১৭৩)। 
ইসলামে একটা স্বীকৃত পদ্ধতি হলো জাকাত ব্যতীত নফল দান অমুসলিমদেরও দেওয়া যাবে। এতে প্রীতি বাড়বে। সখ্য গড়ে উঠবে। পরস্পর সুখ-দুঃখের ভাগি হবে। সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে অপার সহযোগিতা মিলবে। আসলে মিলেমিশে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলা, একই সমাজে শান্তিতে বসবাস করা, এক অপরের সুখ-দুঃখ বুঝা, কারও কষ্টে এগিয়ে যাওয়া, তখনই সম্ভব যদি আমাদের মাঝে গড়ে ওঠে মানবতা ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধন। নবীজির রেখে যাওয়া আদর্শ। যদি আজ সমাজ ও রাষ্ট্রে মানবতা প্রতিষ্ঠিত হয়, তাহলে ফিরে পাবো এক মুঠো রোদ্দুর। আমাদের হারানো সোনালি অতীত। 


চীনে মুসলিম নির্যাতনের গোপন নথি
  সম্প্রতি নিউইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত এক নথিতে গণচীনে উইঘুর মুসলিম নির্যাতন
বিস্তারিত
হিজাব পরার অনুমতি পেলেন ত্রিনিদাদ-টোবাগোর সেই
দক্ষিণ ক্যারিবিয়ান সাগরের দেশ ত্রিনিদাদ-টোবাগো প্রজাতন্ত্রের এক মুসলিম নারী পুলিশ
বিস্তারিত
আফগান যুদ্ধ অবসানে তালেবানের সঙ্গে
দীর্ঘদিনের আফগান যুদ্ধের অবসান ঘটানোর লক্ষ্য নিয়ে তালেবানের সঙ্গে আবার
বিস্তারিত
ইউনেস্কোর তালিকায় বিশ্বের প্রভাবশালী কবিদের
বাহলানির কবিতা ছিল সূক্ষ্ম প্রেমময়। কিন্তু তার সাহিত্য ও চিন্তাজগতে
বিস্তারিত
যে ১০ দেশে বাংলাদেশের সবচেয়ে
  জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো বা বিএমইটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশে
বিস্তারিত
জনসমাবেশের ‘শব্দদূষণ’ নিয়ন্ত্রণ
যানবাহনের হর্নের শব্দ, মানুষের হল্লা, চিৎকার, বিভিন্ন রাজনৈতিক প্রোগ্রামের মাইকের
বিস্তারিত