নতুন সড়ক আইন ও বিআরটিএ নিয়ে কিছু কথা

অবশেষে এলো বহুপ্রতীক্ষিত সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮। হাজার হাজার স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী, তাদের অভিভাবক ও জনসাধারণের প্রাণের দাবি ছিলো এ আইন। সড়কে শৃংখলা ফেরাতে সময়োপযোগী এ নতুন আইনকে সু-স্বাগত জানাই।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে দক্ষ ও ড্রাইভিং লাইসেন্সধারী চালকের খুব অভাব। আশা করবো বিআরটিএ ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানের প্রক্রিয়াকে আরো সহজ করে দেবে। আবেদনকারী সবাইকে ড্রাইভিং ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করবে।

আর তা না হলে ৫-৬ মাস অপেক্ষা না করিয়ে আবেদনের সাত দিনের মধ্যে যোগ্যতার পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা রাখলে হয়তো অনেক পারদর্শী চালক দ্রুত ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে সক্ষম হবেন। আর যারা ফেল করবে তাদের ৬ মাস পরে পুনরায় পরীক্ষার তারিখ দেওয়া যেতে পারে।

গাড়ীর মালিকানা বদলী/একনলেজমেন্ট স্লিপ নিয়ে কতবার আর অফিসে গিয়ে সময় বাড়ানোর সিল মারা যায়, দ্রুত রেজিস্ট্রেশন পেপার দেওয়ার ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

সেই সাথে আশা করবো রাস্তায় চলাচলরত লক্কর-ঝক্কর কন্ডিশনের বাস যার চিপা সিটে বসতে গেলে পা আটকে যায়, দাঁড়াতে গেলে মাথায় ছাঁদ ঠেঁকে যায় এই সব বাসগুলো রাস্তা থেকে উঠে যাবে। বিআরটিএ যেন এই সব গাড়িগুলোকে আর অনুমতি না দেয়।

রাস্তায় দরকার উন্নত মানের বাস। যেখানে থাকবে এয়ারকন্ডিশনিং সিস্টেম, উন্নত মানের বসার সিট, আধুনিক মানের সব সুযোগ সুবিধা।
থাকবে এমন সব সেবা আর সুবিধা যাতে সবাই প্রাইভেটকার ব্যবহার করাকে অপ্রয়োজনীয় মনে করবে।

আশা করবো সিটি কর্পোরেশন সিগন্যাল বাতির সংকেতের মাধ্যমে গাড়ি চলাচলের ব্যবস্থা করবে। তাহলে ট্রাফিক পুলিশকে আর দৌড়ে দৌড়ে সিগন্যাল ধরা লাগবে না। দেখতে খারাপ লাগবে না আর চালকদের সাথে ভুল বুঝাবুঝির সুযোগও থাকবে না।

নিজের ড্রাইভিং লাইসেন্স, গাড়ির সব কাগজপত্র সব ঠিক আর নিয়ম মেনে গাড়ি/বাইক চালানোর পরও যদি কোন পুলিশ মামলা দেয় বা হয়রানি করে তাহলে উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানান। একক ব্যক্তির অন্যায়ের জন্য গোটা পুলিশ বাহিনীকে দোষারোপ করবেন না।

লেখক- সার্জেন্ট মোহাম্মদ দীনার, কোর্ট-প্রসিকিউশন, মোটরযান শাখা, সিএমএম কোর্ট, ঢাকা।


একজন সৎ মানুষের পক্ষেই এমন
গত কালকের ঘটনা, এক সার্জেন্ট একটি প্রাইভেট কার সিগনাল দিয়ে
বিস্তারিত
লেখাটি বেকার শিক্ষিত সবার জন্য!
হাসিব মিয়া প্রতিদিনই সাভার থেকে ৭০ কেজি দুধ এনে ধানমন্ডির
বিস্তারিত
শুভ জন্মদিন সাংবাদিক নেতা আবু
ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) এর সভাপতি ও দৈনিক সংবাদ প্রতিদিনের
বিস্তারিত
একনজরে স্যার ফজলে হাসান আবেদ
না ফেরার দেশে চলে গেলেন বিশ্বের সর্ববৃহৎ বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা
বিস্তারিত
এ লজ্জা রাখি কোথায়?
আমরা জাতি হিসেবে সত্যিই লজ্জিত, আতঙ্কিত, বিস্মিত! একজন তরুণ হিসেবে
বিস্তারিত
একটা বাবা চাই
পাঁচটি আঙ্গুল আঁকড়ে ধরে আমিও হাঁটতে চাই। রোজ বিকেলে, সাঁঝ
বিস্তারিত