ব্যবসায়িক চুক্তি প্রসঙ্গে

প্রশ্ন : মোশাররফ ও হাসান একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেছেন। শ্রম তাদের উভয়ের। কিন্তু বিনিয়োগের সব টাকা আবদুল মাজিদের। তাদের মাঝে এভাবে চুক্তি হয়েছে যে, মোশাররফ ও হাসান চার ভাগের এক ভাগ করে মোট অর্ধেক লাভ পাবেন। আর বাকি অর্ধেক লাভ আবদুল মাজিদের। আর মোশাররফ ও হাসান নিজ খরচের জন্য প্রতি মাসে ২০ হাজার করে মোট ৪০ হাজার টাকা বেতন পাবেন। জানার বিষয় হলো, তাদের এ চুক্তি বৈধ কি না? কারবারের ভেতর কোনো সমস্যা থাকলে তা এখন সমাধানের উপায় কী? 
হাসান আহমাদ, উত্তরা, ঢাকা

উত্তর : প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে মোশাররফ ও হাসানের  জন্য বেতন নির্ধারণ করা সহিহ হয়নি। কেননা এক পক্ষের পুঁজি ও অপর পক্ষের শ্রম অর্থাৎ মুদারাবা কারবারে শ্রমদাতার জন্য পারিশ্রমিক নির্ধারণ করা জায়েজ নয়। এক্ষেত্রে তার শ্রমের বিনিময়ে শুধু লভ্যাংশই প্রাপ্ত হবে। তবে এর ফলে চুক্তিটি ফাসেদ হয়ে যায়নি। এখন চুক্তি থেকে ওই ধারাটি বাদ দিতে হবে। ভবিষ্যতে তারা যদি বেশি নিতে চান, তাহলে তাদের লভ্যাংশের হার বাড়িয়ে নিতে পারেন। যেমন প্রত্যেকে ৩০ শতাংশ বা ৩৫ শতাংশ করে নেবেন আর অবশিষ্টাংশ বিনিয়োগকারীর হবে।
প্রকাশ থাকে যে, মাসিক খরচের জন্য যদি প্রতি মাসে কিছু নিতে চান, তাহলে পরবর্তী সময়ে লাভের সঙ্গে সমন্বয় করে নেবেনÑ এ শর্তে নিতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে যা নেওয়া হয়েছে এর চেয়ে লাভ যদি কম হয়, তাহলে অবশিষ্ট টাকা ফেরত দিতে হবে। (বাদায়েউস সানায়ে : ৫/১১৯; আলমুহিতুল বুরহানি : ১৮/১২৭; ফাতাওয়া হিন্দিয়া : ৪/২৮৭)।


ফেসবুকে আজহারীর আবেগঘন স্ট্যাটাস
দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ইসলামি বক্তা ড. মিজানুর রহমান আজহারী। তার
বিস্তারিত
ইজতেমায় মুসল্লিদের ঢল, আখেরি মোনাজাত
বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিন শনিবার। ফজর নামাজের পর
বিস্তারিত
যেমন কর্ম তেমন ফল
আল্লাহ তায়ালা গোটা সৃষ্টিলোককে খুব সুন্দরভাবে সৃষ্টি করেছেন। তিনি সৃষ্টির
বিস্তারিত
ছামুদ জাতির গল্প এবং আমাদের
আদ জাতির পতনের পর তামাম আরব উপদ্বীপে শৌর্যশালী জাতি হিসেবে
বিস্তারিত
অনুসরণীয় আধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ব হজরত ফুলতলী
প্রত্যেক জাতি, গোত্র, সমাজ ও দেশে যুগে যুগে বহু ক্ষণজন্মা
বিস্তারিত
অসুস্থতায় হোক ঈমান বৃদ্ধি
প্রায় দুই মাস ধরে মায়ের অসুস্থতার পরিচর্যার জন্য ঢাকার আহ্ছানিয়া
বিস্তারিত