পদ্মা সেতু নিয়ে বিএনপি অনেক ষড়যন্ত্র করেছে: ফজিলতুন নেসা ইন্দিরা

মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলতুন নেসা ইন্দিরা বলেছেন, পদ্মা সেতু নিয়ে বিএনপি অনেক ষড়যন্ত্র করেছে কিন্তু সফল হতে পারেনি। বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, পদ্মা সেতুতে উঠবেন না, উঠলে ভেঙে যাবে। তার এই হাস্যকর কথা কেউ বিশ্বাস করেনি বরং সকল ষড়যন্ত্রের নাকপাশ ছিঁড়ে পদ্মা সেতুতে একের পর এক স্প্যান বসছে।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মুন্সীগঞ্জ জেলা ইউনিট কমান্ডের আয়োজনে জেলা প্রশাসন ও মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার সার্বিক সহযোগিতায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবনের সামনে মুন্সীগঞ্জ হানাদার মুক্ত দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রতিমন্ত্রী ফজিলতুন নেসা ইন্দিরা আরও বলেন, এই স্বাধীনতা একদিনে আসেনি। অনেক রক্তের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করেছি। দীর্ঘ ৯ মাসের যুদ্ধে মুন্সীগঞ্জে মানুষের উপর হানাদার বাহিনী অনেক অত্যাচার-নিপীড়ন চালিয়েছে। জেলার বিভিন্ন স্থানে সম্মুখযুদ্ধ আর মুক্তিযোদ্ধাদের একর পর এক সফল অপারেশনের ফলে ১১ ডিসেম্বর মুন্সীগঞ্জ হানাদার মুক্ত হয়। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে অনেক কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের সময়ের গণকবরগুলো কোন সরকার চিহ্নিত করেনি। আওয়ামী সরকার খোঁজ-খবর নিয়ে গণকবরগুলো চিহ্নিত করার কাজ করছে। শেখ হাসিনার সরকার অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ইতিমধ্যে ১০ হাজার ফ্ল্যাট নির্মাণ করছেন। 

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে অবৈধভাবে জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় এসে মুক্তিযোদ্ধাদের হত্যা করেছে। মুন্সীগঞ্জে হনাদার মুক্ত দিবসে একটাই প্রত্যাশা- এ দেশে যাতে কোন দিন রাজাকার, আলবদরদের দোসরা ক্ষমতায় আসতে না পারে; সেজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

এক সময় এদেশে ছিল দুর্ভিক্ষ আর এখন খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে যা দৃশ্যমান। এখন ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলে। শিক্ষাক্ষেত্র ব্যাপক উন্নতি হয়েছে। দারিদ্র্যের হার কমেছে। বিশ্বের দীর্ঘ মেয়াদি নারী সরকার হচ্ছেন শেখ হাসিনা। দুর্নীতিবাজ সরকার বিএনপিকে আর কোন দিন দাঁড়াতে দিবে না বাংলার মানুষ।

অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহিউদ্দিন। জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত আইজিপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুব হোসেন, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আনিস উজ্জামান আনিস, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারুক আহম্মেদ। 

অন্যদের উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ হোসেন বাবুল, এনামূল হক, এম এ কাদের, মুন্সীগঞ্জ পৌর মেয়র ফয়সাল বিপ্লব, মিরকাদিম পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন, ইউপি চেয়ারম্যান সামসুল কবির মাস্টার, বীর মুক্তিযোদ্ধা এটিএম দেলোয়ার হোসেন, যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহাজাহান খান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সভাপতি জালাল উদ্দিন রুমি রাজন প্রমুখ।

এর আগে ১১ ডিসেম্বর মুন্সীগঞ্জ হানাদার মুক্ত দিবসটি উপলক্ষে মুন্সীগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বেলা সাড়ে ১১টায় মুন্সীগঞ্জ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়।


সীমান্ত হত্যা বন্ধে আবারও বিএসএফের
আবারও সীমান্তে বাংলাদেশি হত্যা বন্ধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে ৫ সাংবাদিক সন্ত্রাসী হামলার
সিরাজগঞ্জে রাস্তার নির্মাণকাজে অনিয়মের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে ৫ সাংবাদিক
বিস্তারিত
সচিবের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের
সরকারের পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার অপুর বিরুদ্ধে মানহানিকর
বিস্তারিত
ওরশে যাওয়ার পথে ট্রলার ডুবে
চট্টগ্রামের বাঁশখালী থেকে কক্সবাজারের কুতুবদিয়া যাওয়ার পথে ২টি ট্রলার ডুবে
বিস্তারিত
টাঙ্গাইলে প্রাইভেটকারে পাওয়া গেল ৯৭০
টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে প্রাইভেটকারসহ বিপুল পরিমাণ ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার
বিস্তারিত
কিশোরগঞ্জে করোনাভাইরাস বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত
কিশোরগঞ্জের জাফরাবাদে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের আয়োজনে
বিস্তারিত