অসিয়ত প্রসঙ্গে

প্রশ্ন : কিছুদিন আগে আমাদের এলাকায় এক ব্যক্তি মারা গেছেন। লোকটি অবিবাহিত ছিলেন। তাই তার ছেলে-সন্তান, স্ত্রী-পরিবার-পরিজন কেউ নেই। মৃত্যুর আগে তিনি অসিয়ত করে গেছেন, তার যাবতীয় সম্পদ মসজিদ-মাদ্রাসায় দিয়ে দিতে। এখন মসজিদ ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ উভয়ে তার সম্পদ দাবি করছে। কিন্তু মৃত ব্যক্তির ভাই তা মেনে নিচ্ছেন না। মৃতের আত্মীয় বলতে শুধু তিনিই আছেন। বিষয়টি নিয়ে অনেক সমস্যা হচ্ছে। এখন আমরা সবাই (মসজিদ ও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ ও তার ভাই) মুফতি সাহেবের শরণাপন্ন হচ্ছি, আমাদের শরিয়তের সঠিক সমাধান জানিয়ে কৃতজ্ঞ করবেন। মুহাম্মাদ আলী, যশোর
উত্তর : লোকটি যদি তার জীবদ্দশায় ওই জমিন মসজিদ-মাদ্রাসায় দান না করে গিয়ে থাকেন, বরং শুধু অসিয়ত করে থাকেন তাহলে সেক্ষেত্রে ওই সম্পদের এক-তৃতীয়াংশ মসজিদ-মাদ্রাসা পাবে। কারণ সাধারণ নিয়মে অসিয়ত এক-তৃতীয়াংশ সম্পদের ভেতরেই কার্যকর হয়। মসজিদ-মাদ্রাসার অংশ দেওয়ার পর লোকটির যদি একজন ভাই ছাড়া আর কোনো ওয়ারিশ না থাকেন, তাহলে তিনি অবশিষ্ট পুরো সম্পদের মালিক হবেন। অবশ্য মৃতের ভাই যদি স্বতঃস্ফূর্তভাবে তার অংশ থেকে আরও কিছু সম্পদ মসজিদ-মাদ্রাসার জন্য দিতে চান তাহলে সেটি কার্যকর হবে এবং তা হবে উত্তম কাজ। আর প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে মসজিদ ও মাদ্রাসা সমান সমান জমির অধিকারী হবে। (শরহু মুখতাসারিত তাহাবি ৪/১৬১; আলমাবসুত, সারাখসি ২৭/১৫৩; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ৪/২২৪; আলইখতিয়ার ৪/৩৭৬; তাবয়িনুল হাকায়েক ৭/৩৭৬; আদ্দুররুল মুখতার ৬/৬৫০; ইলাউস সুনান ১/৩০৩)।

মুফতি আবদুল মালেক
শিক্ষা সচিব, মারকাযুদ্দাওয়া আল 
ইসলামিয়া, ঢাকা


সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি প্রকাশ
রমজান মাস আসন্ন। বছর ঘুরে আবারও আসছে মুসলিম জাতির জন্য
বিস্তারিত
শবে বরাতের নামাজ ঘরে পড়ার
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে সবাইকে ঘরে দোয়া ও
বিস্তারিত
ইসলামি দৃষ্টিকোণ থেকে করোনা ভাইরাসে
বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়েছে। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে
বিস্তারিত
দুইশ বছর পর এবারের হজ
ইসলাম ধর্মের পাঁচটি স্তম্ভের একটি হলো পবিত্র হজ। বিশ্ব মুসলিমের
বিস্তারিত
তাবলিগ থেকে ৯০০০ মানুষ করোনার
ভারতের তাবলিগ জামাতের মার্কাজ হিসেবে ব্যবহৃত দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদের একটি
বিস্তারিত
সালাত মোমিনের আশ্রয় ও অবলম্বন
কতই না মহান এর মর্যাদা। কি সমুচ্চ এর অবস্থান। এটি
বিস্তারিত