ইতিহাস কখনও মুছে ফেলা যায় না: প্রধানমন্ত্রী

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পরাজিত শক্তির দোসরদের মদদে বারবার ইতিহাস মুছে ফেলার অপচেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু ইতিহাস কখনও মুছে ফেলা যায় না।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর পাকিস্তান থেকে ফিরে এলেন বঙ্গবন্ধু। তিনি দেশ গঠনে মনোনিবেশ করলেন। কিন্তু পাকিস্তানের দোসররা ৭৫-এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে পরাজয়ের প্রতিশোধ নিলো। তারা ভাষা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস থেকে তাকে মুছে ফেলার চেষ্টা করলো। কিন্তু ইতিহাস মুছে ফেলা যায় না।

গত এক দশকে দেশ আর্থিক সক্ষমতা অর্জন করেছে। শহীদদের আত্মত্যাগ আওয়ামী লীগ কখনও বৃথা যেতে দেবে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।


করোনায় বাংলাদেশে ২০ লাখ মানুষ
করোনাভাইরাসে বাংলাদেশে ২০ লাখ মানুষ মারা যাবে বলে মানুষের মধ্যে
বিস্তারিত
এবার রোহিঙ্গা ক্যাম্প নিয়ন্ত্রণে নেমেছে
কোয়ারেন্টিন এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য আজ বৃহস্পতিবার (২
বিস্তারিত
শামসুর রহমানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
সাবেক মন্ত্রী, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা‌ শামসুর
বিস্তারিত
প্রতি উপজেলার দুজনের নমুনা পরীক্ষার
করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিস্তার রোধে প্রত্যেক উপজেলা থেকে অন্তত দুজন করে
বিস্তারিত
ঘরে বসেই বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা
সারাবিশ্বে এখন আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। ভয় নয়, সচেতনতাই পারে এই
বিস্তারিত
গরম আবহাওয়ায় কি করোনা বিস্তার
অনেকর ধারণা সংক্রমণ রোগের প্রকোপ মৌসুম বা ঋতু পরিবর্তনের সঙ্গে
বিস্তারিত