আবারও খোঁজ নেই কিমের

তিন সপ্তাহ ধরে আবার জনসম্মুখে আসা বন্ধ হয়ে গেছে উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের। এমনকি দেশটির সংবাদমাধ্যমেও তাকে নিয়ে কোনো সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে না। বিশ্লেষকদের বরাত দিয়ে আলজাজিরা এ তথ্য জানিয়েছে। এপ্রিল ও মে মাসে কিম চার বার জনসম্মুখে এসেছিলেন।

অথচ গত বছর একই সময়ে তিনি ২৭ বার জনসম্মুখে এসেছিলেন। কোরিয়া রিস্ক গ্রুপের প্রধান নির্বাহী শাদ ও’ক্যারল জানান, ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর উন সবচেয়ে কম জনসম্মুখে এসেছিলেন ২০১৭ সালে। ওই বছর তাকে ২১ বার জনসম্মুখে দেখা গিয়েছিল। ও’ক্যারল বলেন, ‘এটা স্বাভাবিক কর্মকাণ্ড নয়।’

অবশ্য দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তাদের বিশ্বাস করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগের কারণে কিম জং উন জনসমাবেশ এড়িয়ে চলছেন। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে অনেক সরকারি অনুষ্ঠান বাতিল করেছে পিয়ংইয়ং। দক্ষিণ কোরিয়ার পুনঃএকত্রীকরণ মন্ত্রীর কাছে শুক্রবার উনের অনুপস্থিতির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। তবে উনের জনসম্মুখে কম উপস্থিতি নতুন কিছু নয়।

গত ১২ এপ্রিল থেকে পহেলা মে পর্যন্ত উনকে জনসম্মুখে দেখা যায়নি। ওই সময় কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হয়, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন উন। অস্ত্রোপচারের পর তার অবস্থা সংকটজনক। আবার কেউ কেউ দাবি করেন, মারাই গেছেন উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা। তবে সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে ২ মে জনসম্মুখে হাজির হন তিনি।


কোন দেশ কবে করোনামুক্ত হবে,
সারা বিশ্বে মানুষ ঠিক কবে নাগাদ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্ত
বিস্তারিত
কুয়ায় মিলল ৯ লাশ
ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যে একটি কুয়া থেকে এক পরিবারের ছয় জনসহ
বিস্তারিত
চীনের উহানে একদিনে প্রায় ১৫
দুই সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে চীনের উহানে ১৪ লাখ ৭০
বিস্তারিত
খাসোগির হত্যাকারীদের ক্ষমা করল সন্তানরা
হত্যাকাণ্ডের শিকার সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগির সন্তানরা তার বাবার হত্যাকারীদের
বিস্তারিত
বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্ত ৫৩ লাখ
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। এরই মধ্যে কয়েকটি দেশে
বিস্তারিত
ভারতের ৩ এলাকা নিজেদের দাবি
ভারতের অভ্যন্তরে থাকা উত্তরাখন্ডের কালাপানি, লিপুলেখ ও লিমপিয়াধুরা অঞ্চলকে নিজেদের
বিস্তারিত