১৪৬ বছর পর বেলুনে ওড়ানো চিঠি অস্ট্রেলিয়ায়!

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিস থেকে বেলুনে ওড়ানো একটি চিঠি ১৪৬ বছর পর অস্ট্রেলিয়ায় পাওয়া গেছে। এ চিঠিটি কিভাবে অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছালো তারই খোঁজ করছে অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল আর্কাইভ। ফ্রাঙ্কো-প্রুসিয়ান যুদ্ধের সময় মাকে উদ্দেশ্য করে এই চিঠিটি উড়িয়েছিলেন এক সন্তান।
১৮৭০ সালে ফ্রান্সের রাজধানীতে বসবাসকারী এক ব্যক্তি উত্তর ফ্রান্সের নরম্যান্ডিতে তার মাকে উদ্দেশ্য করে এই চিঠিটি লিখেছিলেন। চিঠিতে তিনি জানতে চেয়েছিলেন, মা ও তার পরিবার নিরাপদ রয়েছে কিনা?
ন্যাশনাল আর্কাইভ বলছে, কীভাবে চিঠিবাহী বেলুনটি এতদূর আসলো সে সম্পর্কে কোনও তথ্যই তাদের কাছে নেই।
ন্যাশনাল আর্কাইভের সহকারী মহাপরিচালক লুইস ডয়লি বলেছেন, এই চিঠিটি সেই সময়কার ফরাসি ইতিহাস জানার সুযোগ করে দিয়েছে।
ফ্রাঙ্কো-প্রুসিয়ান যুদ্ধের সময় ১৮৭০ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ১৮৭১ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত প্যারিসকে চার মাসের বেশি সময় দখলে রেখেছিল প্রুসিয়ান বাহিনী। শত্রুপক্ষ সিন নদী দিয়ে যাওয়া টেলিগ্রামের তার কেটে দেওয়ায় প্রায় ২০ লাখ চিঠি গরম বাতাসের বেলুনে করে পাঠানো হয়েছিল। সাবধানতার সঙ্গে ছোট খামে ভরে চিঠিগুলো বেলুনে করে শত্রুপক্ষের ওপর দিয়ে উড়িয়ে দেওয়া হত।
এই চিঠিটির স্ট্যাম্পে দেখা যাচ্ছে, ১৮৭০ সালের ৭ই ডিসেম্বর এটি পোস্ট করা হয়েছিল। কিভাবে অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে পৌঁছল তা এখনও রহস্য।
অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল আর্কাইভ খুঁজে দেখার চেষ্টা করছে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে এর কোনও যোগাযোগ আছে কিনা বা প্রেরকের কোন আত্মীয় ব্রিসবেনে বাস করছে কিনা। সূত্র: বিবিসি বাংলা।


একজন মায়ের অসহায়ত্ব, ডাক্তারদের অবহেলা
ঘটনাটি ছিল রোববার। জাহেরা খাতুন ছেলেকে নিয়ে কুমিল্লার মুরাদনগর থেকে
বিস্তারিত
এইচএসসিতে মা পেলেন জিপিএ ৪,
উচ্চমাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে আজ।
বিস্তারিত
ব্লু মক্স সুলতান আহমদের অমর
ইস্তানবুলের প্রাচীন স্থাপত্যের এক অন্যতম নিদর্শন হচ্ছে আহমেদীয়া মসজিদ। পশ্চিমারা
বিস্তারিত
অপরূপ নিদর্শন ইস্তানবুলের সুলাইমানিয়া মসজিদ
তৃতীয় দিন আমরা ঠিক করলাম সুলাইমানিয়া মসজিদটি দেখতে যাবো। সেখানে
বিস্তারিত
ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে তালের শাঁস
পাকা তালের রস, কচি তালের শাঁস, অংকুরিত তালের আটির ভেতরের
বিস্তারিত
ইস্তানবুলের পথে পথে
ঈদের ছুটিঁতে স্বপরিবারে তুরস্কের রাজধানী ইস্তানবুলে গিয়েছিলাম। যার আবেশ এখনো
বিস্তারিত