একজন স্বপ্নবাজের ‘শখের অসুখ’

‘বয়সের ফ্রেম সবাইকে বাঁধতে জানে না’, কথাটি তার বইয়ের প্রচ্ছদে দেয়া। স্বপ্ন তার আকাশছোঁয়া, কিন্তু অলীক নয়। প্রতিনিয়তই তিনি নিজেকে গড়ে তুলছেন। শিখছেন, শেখাচ্ছেন। 
বলছি একজন আলামিন মোহাম্মদের কথা। এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলাতেই এসেছে তার প্রথম গল্পগ্রন্থ ‘শখের অসুখ’। মোস্তাফিজ কারিগরের প্রচ্ছদে বইটি প্রকাশ করেছে ঘাসফুল 
বইটি প্রথম হলেও তার লেখনীতে কিন্তু তা একেবারেই বোঝা যায়নি। 
বরং তিনি পাঠকদের ভালোভাবেই বোঝাতে সক্ষম যে তিনি হারিয়ে যেতে আসেন নি। রাতের আকাশের তারার মতই জাজ্বল্যমান হয়ে নিজের জানান দিতে এসেছেন। তার লেখনীতে যত্ন ও কাহিনীর গাঁথুনিবিন্যাস পড়লেই পাঠকরা বুঝতে পারবেন লেখকের মুনশিয়ানার পরিচয়।
মোট ১১টি গল্প রয়েছে বইটিতে। তার মধ্যে দি তার্কিশ ওয়াইফ, একটি সুইসাইড নোট, বউ উদ্ধার এবং শখের অসুখ গল্পগুলো বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। কিন্তু ১১টি গল্পই ভিন্ন স্বাদের এবং পাঠক বইটি হাতে নিলে যে শেষ না করে উঠতে পারবেন না, তা বেশ জোর দিয়েই বলা যায়। 
বইটি পাওয়া যাবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ‘ঘাসফুল প্রকাশনী’তে। স্টল নম্বর ১৩৭। এছাড়াও বইটি বাংলা একাডেমীর লিটল ম্যাগ চত্বরে, ২৩ নম্বর স্টলে পাওয়া যাবে। বইটির বিনিময় মূল্য রাখা হয়েছে ২০০ টাকা।
বইটি নিয়ে আলামিন মোহাম্মদ অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, শৈশব থেকেই আমি প্রচুর বই পড়তে ভালোবাসি। বই পড়ার তীব্র নেশায় আমি প্রায় সময়ই রাতের ঘুমকে হার মানিয়েছি। বিভিন্ন রকমের বই কিনার পাশাপাশি পাড়া-মহল্লার সকল বন্ধু-বান্ধব,ছোট ভাই-বড় ভাই,আত্নীয়-স্বজন এর কাছ থেকে বই হাওলাত করার মাধ্যমেও বই সংগ্রহের সর্বাত্নক চেষ্টা করে এসেছি আমি। একবার বইপড়া শুরু করলে পড়তে পড়তে আমি নিজেকে আবিষ্কার করতাম অন্য এক জগতে। আমি অনুভব করতে  পারতাম কীভাবে একজন লেখক তার মনের মত করে একটি জগত তৈরি করতে পারে, সাজাতে পারে।কতই না চমৎকার এবং স্বাধীন সেন জগত। আমারও ইচ্ছে জাগে নিজের মতো করে জগত তৈরি করার, নিজের মতো করে সেই জগতটিকে সাজাবার।
আলামিন মোহাম্মদের জন্ম ১৯৮৯ সালের ১০ নভেম্বর টাঙাইল জেলার বানাইল গ্রামে। বাবা আমানত উল্লাহ এবং মা আঞ্জু আরা। এক ভাই এবং দুই বোনের ছোট পরিবার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস এর উপর বিবিএ, এমবিএ করার পর বর্তমানে মেটলাইফে প্রশিক্ষণ অফিসার পদে নিয়োগপ্রাপ্ত আছেন। স্বপ্ন দেখেন মোটিভেশনাল স্পিকার হবার।


এনাম রাজুর তিনটি কবিতা
এনাম রাজুর তিনটি কবিতা এক যদি পূর্ণবার ঘর থেকে বের হয়ে দেখি
বিস্তারিত
ফখরুল হাসানের দুটি কবিতা
ফখরুল হাসানের দুটি কবিতা  জানালাহীন মাটির ঘর জগৎখ্যাত সার্চ লাইট দিয়ে খুঁজে
বিস্তারিত
ধৈর্যের ফল
ফারুক হোসেন নীরব নিস্তব্ধ রাত। বাতাস বইছিল ঝিরি ঝিরি।
বিস্তারিত
একটি মানবিক আবেদন
    কবি জাহাঙ্গীর কবির গানের কলি দিয়েই বলি  “মানুষ মানুষের
বিস্তারিত
'তবু আমারে দেব না ভুলিতে'
'আমি চিরতরে দূরে চলে যাব/তবু আমারে দেব না ভুলিতে'- লিখেছিলেন
বিস্তারিত
আমাদের চলচ্চিত্রে একজন জহির রায়হান
জহির রায়হান। একাধারে একজন সাহিত্যিক, সাংবাদিক, রাজনৈতিক কর্মী, মুক্তিযোদ্ধা। আরও
বিস্তারিত