logo
প্রকাশ: ০৬:২২:০৯ PM, রবিবার, জানুয়ারী ৮, ২০১৭
৬৩ বছর ধরে বালি খান তিনি!
অনলাইন ডেস্ক

সারাদিন কাজ করেন কৃষিজমিতে। বয়স তার ৭৮ বছর। কিন্তু এই বয়সেও তিনি দিব্যি সুস্থ্য আছেন। অন্য যে কোনও বৃদ্ধার তুলনায় অনেক শক্ত তার দেহ। শরীরে এখনও থাবা বসাতে পারেনি বয়স ঘটিত কোন রোগ। তার নাম বারাণসী নিবাসী কুসমাবতী। ভারতীয় এই নারীর দাবি, প্রতিদিন নিয়মিত বালি খাওয়ার অভ্যাসই তার সুস্থতার চাবি!

শুনতে যতই অদ্ভুত লাগুক কুসমাবতী ৬৩ বছর ধরে নিয়মিত বালি খেয়ে আসছেন। দিনে পাঁচ-ছ’বার দু’মুঠো করে বালি খান তিনি। এই অভ্যাসের ফলে তার শরীর অসুস্থ হওয়ার পরিবর্তে বরং নীরোগ থাকে দাবি তার।

কুসমাবতী দেবী জানালেন, তার বয়স যখন বছর পনেরো, তখন একবার দুরারোগ্য পেটের অসুখে শয্যাশায়ী হয়ে পড়েন তিনি। কোনও এক আত্মীয় পরামর্শ দেন, বালি খেলেই রোগমুক্তি ঘটবে। পরামর্শ মতো বালি খেতে শুরু করেন কুসমাবতী। কয়েক দিনের মধ্যেই সেরে যায় রোগ। সেই শুরু। তার পর ৬৩ বছর কেটে গেছে, কিন্তু বালি খাওয়ার অভ্যাস কুসমাবতী ছাড়েননি।

তার ধারণা, বালির মধ্যে এমন‌ কোনও গুণ রয়েছে, যা তাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে। কারণ তার দাবি, নিয়মিত বালি খাওয়ার ফলেই এই বয়সেও একেবারে সুস্থ রয়েছে তার দেহ।

বালি স্বাদ সম্পর্কে কুসমাবতী জানান, বালি অনেকটা লবণ-চিনির মিশ্রণ যেমন হয়, তেমনই নোনতা-মিষ্টি স্বাদের।

বৃদ্ধার ছেলে রমেশ বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই মা-কে বালি খেতে দেখছি। আর কোনও দিন এর জন্য মায়ের শরীর খারাপ হতে দেখিনি। আর মা যে শুধু বালিই খান, তা তো নয়, অন্যান্য খাবারের পাশাপাশি কয়েক মুঠো বালিও খেয়ে নেন। অনেকটা ওষুধের মতোই। মায়ের বিশ্বাস, বালি খেলে শরীর ভালো থাকে।’

সূত্র : ডেইলি মেইল।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]