logo
প্রকাশ: ১২:১৪:২৭ AM, শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০১৭
শিশুদের গ্রন্থমেলা
গাজী আবদুল মান্নান

ধানমন্ডির সাবিনা বেগম তার দুই সন্তান নিরব ও সুমাইয়াকে নিয়ে গ্রন্থমেলায় এসেছেন। নিরব পড়ে সপ্তম শ্রেণীতে আর সুমাইয়া নবমে। তারা মেলার স্টলে স্টলে ঘুরে বই দেখছেন। তাদের মতো আরও অনেকেই গ্রন্থমেলায় এসেছেন তাদের শিশুদের নিয়ে। কারণ ৩ ফেব্রুয়ারি ছিল গ্রন্থমেলার শিশুপ্রহর। এ দিন বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত মেলায় কেবল শিশুরাই তাদের অভিভাবক নিয়ে প্রবেশের সুযোগ পেয়েছে।
আর তাই অভিভাবকরা এসেছেন তাদের শিশুদের নিয়ে। সাবিনা বেগম বলেন, শিশুদের জন্য শিশুপ্রহর ঘোষণা করে সত্যিই ভালো হয়েছে। অন্যসময় মেলায় ছোটদের নিয়ে আসা যায় না বা বই কেনাও কষ্টকর হয়। এখন শিশুপ্রহর হওয়ায় শিশুরা ঘুরে ঘুরে বই দেখতে পারছে বা তাদের পছন্দের বই কিনতে পারছে।


নিরবের পছন্দ ছড়ার বই। সে কয়েকটি ছড়ার বই কিনেছে। আর সুমাইয়ার পছন্দ গল্পের বই। সে-ও কয়েকটি গল্পের বই কিনেছে। নিরব ও সুমাইয়া জানাল, গ্রন্থমেলায় এসে তাদের ভালো লাগছে। নানা ধরনের নতুন বই দেখতেও তাদের ভালো লাগছে। আগামীতেও তারা মেলায় আসবে বলে জানায়।
মেলার বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শিশুদের প্রকাশনার স্টল বেশি রয়েছে। এছাড়া সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রকাশনাগুলোর স্টলেও মূলধারার সাহিত্যের পাশাপাশি ছোটদের বইও রয়েছে।
প্রান্ত প্রকাশনার কর্ণধার আমিনুর রহমান বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও আমরা মূলধারার বইয়ের পাশাপাশি ছোটদের জন্য বেশ কয়েকটি নতুন বই এনেছি। এসব বইয়ের মধ্যে আছে গল্প, ছড়া, কল্পকাহিনী ও ভৌতিক বই।
পুরানা পল্টন লাইন থেকে আরিফুর রহমান  মেলায় এসেছেন তার ছেলে অনিককে নিয়ে। তিনি বলেন, শিশুপ্রহর শিশুদের মেলায় আসতে উৎসাহ জুগিয়েছে। আর শিশুপ্রহরে বাচ্চারা খোলামেলা পরিবেশে স্টল ঘুরে ঘুরে বই দেখতে পারছে এটা ভালো দিক। অনিক জানায় তার ছড়ার বই পছন্দের। সেজন্য সে কয়েকটি ছড়ার বইও কিনেছে।
বাংলা একাডেমির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ছুটির দিনগুলোতেও গ্রন্থমেলায় শিশুপ্রহর ঘোষণা করা হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]