logo
প্রকাশ: ১২:৩৮:২৩ PM, শনিবার, আগস্ট ৫, ২০১৭
লালায় হৃদরোগের চিকিৎসা
আলোকিত ডেস্ক

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এঁটুলি নামে পরিচিত এক ধরনের কীটের থুতু বা মুখের লালা দিয়ে মারাত্মক ধরনের হৃদরোগের চিকিৎসা করা সম্ভব। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা এ কীটকে নতুন নতুন ওষুধের গোল্ডমাইন বা স্বর্ণ খনি বলে উল্লেখ করেছেন। 

কারণ স্ট্রোক ও আর্থাইটিজসহ আরও কিছু রোগের চিকিৎসায় এটিকে ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে এসব পরীক্ষার সবক’টিই এখন পর্যন্ত শুধু ল্যাবরেটরিতেই চালানো হয়েছে। তাই মানুষের পক্ষে এ ওষুধ কখন ব্যবহার করা সম্ভব, সেটা এখনই বলা যাবে না।

এঁটুলি কাউকে কামড়াতে খুবই দক্ষ। কামড় দিলেও সেটা বোঝা যায় না। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এর অর্থ হলো যে কোনো প্রাণী এবং মানুষের শরীরে এটি কোনো ধরনের সমস্যা না করেই ৮ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত থাকতে পারে। অর্থাৎ এ সময় প্রাণীর শরীরে কোনো ধরনের ব্যথা বা প্রদাহের সৃষ্টি হবে না। এর কারণ হলো এঁটুলির মুখের লালায় যে প্রোটিন আছে, সেটি যার শরীরে সে আশ্রয় নিয়েছে, সেখানে চেমোকিনের রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে ওই প্রদাহকে বন্ধ করে দেয়। মায়োকার্ডিটিসে যারা আক্রান্ত হয়, তাদের হৃদযন্ত্র থেকে চেমোকিন নির্গত হয় এবং সেটা হার্টের পেশিতে প্রদাহের সৃষ্টি করে। 

গবেষকরা বলছেন, এ কীটের মুখের থুতু ব্যবহার করে এখন মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব। সূত্র : বিবিসি

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]